মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলার আসামির বিরুদ্ধে ছাগল চুরির অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক

মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় কক্সবাজারের মহেশখালীর ১৭ আসামির বিরুদ্ধে আনা ১২টি অভিযোগের মধ্যে একটিতে ছাগল চুরির অভিযোগ এনেছে প্রসিকিউশন।

আজ রোববার বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের অন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে এ অভিযোগ আনা হয়। এ সময় অভিযোগের বিষয়ে উভয়পক্ষ শুনানিতে অংশ নেয়। পরে মামলার অভিযোগ গঠনের আদেশের জন্য ২২ জানুয়ারি দিন ধার্য করা হয়েছে।

আসামিদের বিরুদ্ধে আনা ১২টি অভিযোগ গঠনের পক্ষে শুনানি করেন প্রসিকিউটর রানা দাশ গুপ্ত। এরপর আসামিদের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট আব্দুস সোবহান তরফদার ও অ্যাডভোকেট আব্দুস সাত্তার পালোয়ান।

প্রসিকিউশনের বক্তব্যের পর আসামি মৌলভী আমজাদ আলীর আইনজীবী আব্দুস সাত্তার পালোয়ান ট্রাইব্যুনালকে বলেন, ট্রাইব্যুনাল গঠন করা হয়েছে একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচারের জন্য। সেখানে আমার মক্কেলের বিরুদ্ধে ৬ নম্বর অভিযোগে একাত্তরে ছাগল চুরির অভিযোগ তুলেছে প্রসিকিউশন। তার বিরুদ্ধে এই মামলায় আর কোনো অভিযোগ নেই। তাই এই অভিযোগ থেকে আমার মক্কেলের অব্যাহতি চাই।

অন্যদিকে এ মামলার প্রসিকিউটর রানা দাসগুপ্ত ট্রাইব্যুনালকে বলেন, ছাগল চুরির বিষয়টিও একটি অপরাধ। তবে মৌলভী আমজাদ আলীকে শুধু ৬ নম্বর অভিযোগেই নয়, তাকে গণহত্যার দায়ে আনা ১২ নম্বর অভিযোগেও সম্পৃক্ত করা হয়েছে। বিষয়টি হয়তো আসামি পক্ষের আইনজীবী লক্ষ্য করেননি।

রানা দাসগুপ্ত বলেন, এ মামলার ১৭ আসামির বিরুদ্ধে আমরা ১২টি অভিযোগ দাখিল করেছি। এর মধ্যে ৬নং অভিযোগে আসামি আমজাদ আলী, সালামত উল্লাহ খান, মৌলভী মোহাম্মদ জাকারিয়া, মো. রশিদ মিঞা ও মৌলভী রমিজ হাসানের বিরুদ্ধে একাত্তরে তিনটি ছাগল চুরি করে খাওয়ার দায়ে একটি অভিযোগ এনেছি। কিন্তু শুধু আমজাদ আলীর আইনজীবী অভিযোগটি নিয়ে ট্রাইব্যুনালে আপত্তি তুলেছেন। তাই ট্রাইব্যুনাল এ বিষয়ে উভয়পক্ষের বক্তব্য শুনেছেন। আদেশের দিন ধার্য করেছেন।

এ মামলার মোট আসামির সংখ্যা ১৭ জন। তারা হলেন- সালামত উল্লাহ খান, মৌলভী মোহাম্মাদ জকরিয়া শিকদার (৭৮), মো. রশিদ মিয়া বিএ (৮৩), অলি আহমদ (৫৮), মো. জালাল উদ্দিন (৬৩), মৌলভী নুরুল ইসলাম (৬১), মোহাম্মদ সাইফুল ওরফে সাবুল (৬৩), মমতাজ আহমদ (৬০), হাবিবুর রহমান (৭০), মৌলভী আমজাদ আলী (৭০), মৌলভী রমিজ হাসান, বাদশা মিয়া (৭৩), ওসমান গণি (৬১), আব্দুল শুক্কুর (৬৫), মো. জাকারিয়া (৫৮), মৌলভী জালাল (৭৫) ও আব্দুল আজিজ (৬৮)।

এর আগে আসামি এসআই সামসুল হকের ঠিকানা না পাওয়ায় এবং আব্দুল মজিদ মাস্টার মারা যাওয়ায় অভিযোগপত্র থেকে তাদের নাম বাদ দেয়া হয়।

আসামিদের বিরুদ্ধে হত্যা, নির্যাতন, অগ্নিসংযোগ, ধর্মান্তরিত ও দেশান্তরসহ মানবতাবিরোধী ১২টি অভিযোগ আনা হয়েছে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.