ঢাকা, মঙ্গলবার,২৩ জানুয়ারি ২০১৮

মধ্যপ্রাচ্য

ইসরাইল একটি নিপীড়ক ও দখলদার অবৈধ রাষ্ট্র: এরদোগান

নয়া দিগন্ত অনলাইন

১১ ডিসেম্বর ২০১৭,সোমবার, ১৭:১০


প্রিন্ট
ইসরাইল একটি নিপীড়ক ও দখলদার অবৈধ রাষ্ট্র: এরদোগান

ইসরাইল একটি নিপীড়ক ও দখলদার অবৈধ রাষ্ট্র: এরদোগান

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগান বলেছেন, ইসরাইল সন্ত্রাসী রাষ্ট্র ও শিশু হত্যাকারী। ইসরাইল হচ্ছে একটি নিপীড়ক ও দখলদার অবৈধ রাষ্ট্র। তারা নির্বিচারে ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীদের ওপর শক্তি প্রয়োগ করেছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ফিলিস্তিনের পবিত্র শহর জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার পর এরদোগান এসব কথা বললেন।

তুরস্কের মধ্যাঞ্চলীয় সিভাস প্রদেশে ক্ষমতাসীন দল জাস্টিস অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট পার্টির সম্মেলনে এরদোগান বলেলেন, পবিত্র শহর জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার যে ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট তা আন্তর্জাতিক আইনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। তার একদিন পর এরদোগান রবিবার এসব কথা বললেন।

তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেন, ইসরাইল হচ্ছে একটি দখলদার রাষ্ট্র; তাদের পুলিশ ফিলিস্তিনের শিশু-কিশোরদেরকে গুলি করে। তারা গাজা উপত্যকার ওপর এফ-১৬ বিমান নিয়ে হামলা চালায়। বায়তুল মুকাদ্দাস ইস্যুতে এরইমধ্যে তারা ফিলিস্তিনিদের ওপর হামলা চালিয়েছে।

ইসরাইলের বিরুদ্ধে নেতৃত্ব দিবেন এরদোগান

জেরুসালেমকে ইসরাইলের রাজধানী স্বীকৃতি দেয়া যুক্তরাষ্ট্রের একপেশে সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে মুসলিম দেশগুলোর ঐক্যবদ্ধ প্রতিক্রিয়া জানানো অনিশ্চিত হওয়ায়, এতে সমন্বয়কের ভূমিকা পালন করতে চায় তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তৈয়ব এরদোগান।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের এই ঘোষণার আগ পর্যন্ত এরদোগান ফিলিস্তিন ইস্যুতে নিজেকে চ্যাম্পিয়ন হিসেবে দাবি করেন।

এরদোগান বলেন, ফিলিস্তিন নাগরিকরা মুসলিম সম্প্রদায়ের জন্য অতি গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে বিবেচিত পূর্বাঞ্চলের শহর জেরুসালেমকে তাদের ভবিষ্যত রাজধানী হিসেবে মনে করে।

ট্রাম্পের সতর্কতাকে উপেক্ষা করে এরদোগান ইসলামি সহযোগিতা সংস্থা (ওআইসি)-এর বর্তমান চেয়ারম্যান হিসেবে প্যান ইসলামিক গ্রুপের শীর্ষ সম্মেলন আহ্বান করার জন্য তার অবস্থান ব্যাখ্যা করেন।

২০১০ সালে তুর্কি জাহাজ গাজার ওপর অবরোধ ভাঙার পর ইসরাইলের সাথে তুরস্কের সম্পর্কের অবনতি হয়। এরপর ২০১৬ সালে তুরস্ক পুনরায় ইসরাইলের সাথে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনে আগ্রহ দেখায়। তবে এরদোগানের ইসরাইলের সাথে সম্পর্ক স্থাপনের ইচ্ছার চেয়ে বরং হামাসের সাথেই সম্পর্ক বজায় রাখতেই তুরস্কের জনগণের আগ্রহ দেখা গেছে।

ট্রাম্পের পদক্ষেপ মধ্যপ্রাচ্যকে আগুনের গোলায় ঠেলে দেবে : এরদোগান
জেরুসালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোলান্ড ট্রাম্পের কঠোর সমালোচনা করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগান। ট্রাম্পের এই পদক্ষেপ মধ্যপ্রাচ্যকে আগুনের গোলায় মধ্যে ঠেলে দেবে বলে সতর্ক করেছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার গ্রিস সফরের উদ্দেশ্যে রাজধানী আঙ্কারা ত্যাগ করার আগে এসেবোগা বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের তিনি এই কথা বলেন। ট্রাম্পকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, ‘ট্রাম্প, এই পদক্ষেপের মাধ্যমে আপনি কী করতে চাচ্ছেন?’

তিনি বলেন, ‘এই ধরনের পদক্ষেপ এই অঞ্চলকে একটি আগুনের গোলার মধ্যে নিক্ষেপ করবে।’
এরদোগান বলেন, ‘রাজনীতিবিদদের উচিত শান্তি প্রতিষ্ঠা করা, আগুন জ্বালিয়ে দেয়া নয়।’

জেরুসালেমকে খ্রিষ্টানদের জন্যও একটি পবিত্র স্থান উল্লেখ করে তিনি বিষয়টি নিয়ে পোপ ফ্রান্সিসের সাথেও কথা বলবেন বলে জানান। এর আগে জেরুসালেমকে ইসরাইলের রাজধানী ঘোষণা করা নিয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্পের পরিকল্পনার বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন এরদোগান।

তিনি জেরুসালেমকে মুসলিমদের জন্য একটি রেড লাইন বলে সতর্ক করে দিয়েছিলেন। এদিকে ট্রাম্পের এই পদক্ষেপ নিয়ে করণীয় নির্ধারণে আগামী ১৩ ডিসেম্বর ওআইসির জরুরি বৈঠক ডেকেছে তুরস্ক।

 

 

অন্যান্য সংবাদ

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫