ঢাকা, মঙ্গলবার,২৩ জানুয়ারি ২০১৮

শেষের পাতা

বিএনপির দুর্নীতির খবর অবশ্যই দুদককে খোঁজখবর নিতে হবে : কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক

১১ ডিসেম্বর ২০১৭,সোমবার, ০০:১৬


প্রিন্ট
স্বেচ্ছাসেবক লীগের আলোচনায় বক্তৃতা করছেন ওবায়দুল কাদের : স্টার মেইল

স্বেচ্ছাসেবক লীগের আলোচনায় বক্তৃতা করছেন ওবায়দুল কাদের : স্টার মেইল

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘বিএনপির দুর্নীতির খবর দেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে এসেছে, তাই অবশ্যই দুর্নীতি দমন কমিশনকে খোঁজখবর নিতে হবে, এটি আমাদের দায়িত্ব।’
বিজয় দিবস উপলে গতকাল রোববার বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে স্বেচ্ছাসেবক লীগ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। এ সময় তিনি আরো বলেন, ‘সৌদি আরবে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও তার ছেলে তারেক রহমানের দুর্নীতির খবর বেরিয়ে গেছে, আর সেটি নিয়ে তাদের গাত্রদাহ শুরু হয়ে গেছে। কী করে এই দায় এড়াবে। দুদক অবশ্যই অভিযোগের ভিত্তিতে এ সব দুর্নীতির বিষয়ে তদন্ত করবে।’ 
বিএনপি মহাসচিবকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, যখন দেশের প্রধানমন্ত্রীর মুখ দিয়ে কথা বের হয় তা না জেনে, না শুনে তিনি (প্রধানমন্ত্রী) অন্ধকারে ঢিল ছুড়েন না। বিএনপির অতীতের দুর্নীতি দেশ ও আন্তর্জাতিক (আমেরিকা ও কানাডা) আদালতে প্রমাণিত হয়েছে। সত্য কোনো দিন চাপা থাকে না। এ সত্য গোপন রেখে কী লাভ মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর? এখন অবস্থা হলো ‘ফাঁন্দে পড়িয়া, বগা কান্দেরে’।  বিএনপি নেতাদের উদ্দেশ তিনি বলেন, ‘ময়লা নিয়ে যতই ঘাঁটাঘাঁটি করবেন ততই গন্ধ ছড়াবে।’ 
বিএনপির মুখে গণতন্ত্র শোভা পায় না মন্তব্য করে কাদের বলেন, ‘গণতন্ত্রের কথা বলে মায়া কান্না করছেন, গেল রে গেল গণতন্ত্র গেল। আপনাদের মুখে গণতন্ত্র শোভা পায় না।’
আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, আজকে যারা বিজয়ের বিরুদ্ধে, নায়কের বিরুদ্ধে খলনায়ককে দাঁড় করিয়েছে তা বিজয়ের আদর্শ থেকে কচ্যুত হয়েছে। যারা বিজয় মানে কিন্তু বঙ্গবন্ধুকে মানে না, তারা বিজয়ের আদর্শে আছে বলে আমরা মনে করি না। মুক্তিযুদ্ধ মানেন কিন্তু বঙ্গবন্ধুকে মানেন না, তারা কখনোই প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা হতে পারে না। তারা হলো দুর্ঘটনাক্রমে মুক্তিযোদ্ধা। 
তিনি বলেন, যারা ইতিহাস নিয়ে কানামাছি খেলে, মিথ্যাচার করে, ইতিহাস বিকৃত করে; তারা সবচেয়ে নিকৃষ্টতম। তারা বিজয় দিবস পালন করে কিন্তু বিজয়ের চেতনা মনে ধারণ করে না। নেতাকর্মীদের সতর্ক করে দিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, নির্বাচন সামনে, অনেক পরগাছা আসতে পারে। এদের থেকে সতর্ক থাকতে হবে। যেন কোনো পরগাছা দলে ঢুকে তি না করতে পারে।
স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোল্লা মো: আবু কাওছারের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক পঙ্কজ দেবনাথের সঞ্চালনায় আরো বক্তব্য রাখেন প্রবীণ সাংবাদিক হারুন হাবীব, নাট্য ব্যক্তিত্ব শমী কায়সার প্রমুখ।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫