প্রতিবন্ধী শিশুপুত্রকে হত্যার পর পিতার আত্মহত্যার চেষ্টা

ময়মনসিংহ অফিস

ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়ায় আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় পাঁচ বছরের প্রতিবন্ধী শিশুপুত্রকে গলাকেটে হত্যার পর ঘাতক পিতা আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন।

পারিবারিক অশান্তির কারনে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

আত্মহননের চেষ্টাকারী পিতাকে ময়মসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, ফুলবাড়িয়া উপজেলার বরুকা গ্রামের হাজী জয়নাল আবেদীনের ছেলে হাবিবুর রহমান (৩৫) পাশ্ববর্তী ইচাইল গ্রামে বিয়ে করেন। তাদের রিয়াদ (৬) নামে শারিরীক প্রতিবন্ধী এক শিশুপুত্র রয়েছে। হাবিবুর রহমান জামালপুরে একটি এনজিওতে চাকরি করার সময়ে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। এ নিয়ে প্রথম স্ত্রী লাকী আক্তার স্বামী হাবিবুরকে তালাক দিয়ে বাপের বাড়ি চলে যায়।

শুক্রবার সন্ধ্যায় হাবিবুর রহমান তার শিশুপুত্র রিয়াদকে বাড়ি থেকে ৩/৪ কিলোমিটার দুরে কেশরগঞ্জ সড়কের বাট্টা তালতলা নামক স্থানে নিয়ে চাকু দিয়ে গলা কেটে হত্যা করেন। পরে তিনি নিজের গলা কেটে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। এসময় তার আত্মচিৎকারে স্থানীয় লোকজন ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। খবর পেয়ে পুলিশও ঘটনাস্থলে যায়।

ফুলবাড়ীয়া থানার ওসি শেখ কবিরুল ইসলাম জানান, শিশুটির গলাকাটা লাশ ও হত্যাকাণ্ডের আলামত চাকুটি উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশ প্রহরায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঘাতক পিতা হাবিবুর রহমানকে গলায় জখম অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.