ঢাকা, শনিবার,১৬ ডিসেম্বর ২০১৭

প্রথম পাতা

বাংলাদেশ চীনের গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার : ওয়াং ইয়াজুন

নিজস্ব প্রতিবেদক

০৮ ডিসেম্বর ২০১৭,শুক্রবার, ০০:০০


প্রিন্ট

চীনা কমিউনিস্ট পার্টির আন্তর্জাতিক বিভাগের সহকারী মন্ত্রী ওয়াং ইয়াজুন বলেছেন, ভৌগোলিক অবস্থান, জনসংখ্যা প্রভৃতি বিবেচনায় বাংলাদেশ চীনের গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার। চীনের ভালো প্রতিবেশী বাংলাদেশ বিভিন্ন ক্ষেত্রে দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। দুই দেশ পরস্পরকে বিশ্বাস করে এবং সমর্থন করে।
তিনি বলেন, চীন এবং বাংলাদেশে বিভিন্ন ক্ষেত্রে মিল রয়েছে। বাংলাদেশের মানুষ সোনার বাংলা গড়ার ক্ষেত্রে কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছে। চীনের জনগণও একইভাবে কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছে।
গতকাল স্থানীয় একটি হোটেলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।
গত অক্টোবর-নভেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত হয় শাসক দল চীনা কমিউনিস্ট পার্টির ১৯তম জাতীয় সম্মেলন। এখানে আগামী পাঁচ বছরের জন্য চীন শাসনের জন্য নেতৃত্ব বাছাই করা হয়। চীনা কমিউনিস্ট পার্টির এ ১৯তম জাতীয় সম্মেলন, সম্মেলনের সিদ্ধান্ত বিষয়ে প্রচার এবং অবহিতকরণের লক্ষ্যে ওয়াং ইয়াজুনের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল তিন দিনের সফরে বাংলাদেশে আসেন। গতকাল হোটেল সোনারগাঁওয়ে সম্মেলনের বিষয়ে অবহিতকরণ উপলক্ষে ব্রিফিংয়ের আয়োজন করা হয় ঢাকার চীনা দূতাবাস ও চীনা কমিউনিস্ট পার্টির আন্তর্জাতিক বিভাগের উদ্যোগে। এতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, বিএনপি এবং বাংলাদেশের বামপন্থী বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও তাদের সমর্থক বিভিন্ন শ্রেণিপেশার লোকজন যোগদান করেন।
ওয়াং ইয়াজুন বলেন, একটি আধুনিক সমাজতান্ত্রিক দেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে চীনা কমিউনিস্ট পার্টি। চীনা কমিউনিস্ট পার্টি শুধু একটি দল নয় বরং চীনের জনগণের আশার প্রতীক। চীনের জনগণসহ গোটা মানবজাতির সুখ শান্তি নিশ্চিত করার জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। শান্তিপূর্ণ উন্নয়ন আমাদের লক্ষ্য। তিনি বলেন, অর্থনৈতিক উন্নতি, দারিদ্র্য দূরীকরণ, সামাজিক ন্যায় বিচার, পরিবেশ রক্ষায় তার দেশ অসামান্য অগ্রগতি অর্জন করেছে। দুর্নীতির বিরুদ্ধে যুদ্ধে চীনের অর্জন খ্বুই গুরুত্বপূর্ণ। শিল্পে চীনের অগ্রগতি অনন্য সাধারণ। বিভিন্ন দেশ যেখানে শত শত বছর লেগেছে শিল্প বিপ্লব এবং এর সুফল অর্জনে সেখানে চীন অনেক কম সময়ে শিল্পে অনন্য সাধারণ অগ্রগতি অর্জন করেছে।
আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য লে. কর্নেল (অব:) ফারুক খান উপবিষ্ট ছিলেন মঞ্চে। তিনি বলেন, চীনের ওয়ান বেল্ট ওয়ান রোড উদ্যোগ এ অঞ্চলের অগ্রগতি ও নিরাপত্তার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। সমৃদ্ধি ও অগ্রগতির ক্ষেত্রে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। তিনি বলেন, সেজন্য আমরা আশা করব চীন রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমারের ওপর চাপ সৃষ্টির ক্ষেত্রে যথাযথ ভূমিকা পালন করবে।
রোহিঙ্গা বিষয়ে এক প্রশ্নে চীনা সহকারী মন্ত্রী ওয়াং ইয়াজুন চীনের নীতি পুনর্ব্যক্ত করে বলেন, আলোচনার মাধ্যমে এর সমাধান করতে হবে। সে লক্ষ্যে ইতোমধ্যে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলাদেশ সফর করেছেন। এরপর তিনি রোহিঙ্গাদের আশ্রয়দানসহ এ বিষয়ে বাংলাদেশের ভূমিকা প্রশংসা করেন তিনি।
অনুষ্ঠানে সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এয়ার ভাইস মার্শাল (অব:) আলতাফ হোসেন চৌধুরী, সাবেক পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আবুল হাসান চৌধুরী, বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক প্রফেসর মাহবুব উল্লাহ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর আবুল কাসেম ফজলুল হক, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব:) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহীম, সাংবাদিক আমানুল্লাহ কবির, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর সুকমল বড়–য়া, প্রফেসর এম এম আকাশ, সাম্যবাদী দলের সভাপতি দিলীপ বড়–য়াসহ অনেকে যোগদান করেন অনুষ্ঠানে।

 

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫