এরশাদ গণতন্ত্রের মানসপুত্র : সংবিধান সংরক্ষণ দিবসে বাবলা

বিশেষ সংবাদদাতা

জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপি বলেছেন, যারা এরশাদকে স্বৈরাচার বলেন- তারাই প্রকৃত স্বৈরাচার। এরশাদের হাত ধরেই এদেশে গণতন্ত্র এসেছে। তাই এরশাদ হলেন বাংলার গণতন্ত্রের মহাপুরুষ, গণতন্ত্রের মানসপুত্র।

তিনি বলেন, যারা গণতন্ত্রের বুলি ছুড়ে, ২৭ বছর ক্ষমতায় এসেছেন, তারাই গণতন্ত্রের হত্যাকারী। আওয়ামী লীগ ও বিএনপি এরশাদের সমর্থন নিয়েই ক্ষমতায় এসেছেন। তাই তাদের মূখে এরশাদের সমালোচনা শোভা পায় না।

‘৬ ডিসেম্বর দলটির সংবিধান সংরক্ষণ দিবস’ উপলক্ষে আজ বুধবার বিকেলে কাকরাইলে ইনস্টিটিউট অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স মাল্টিপারপাস হলে জাতীয় পার্টি আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি এস এম ফয়সল চিশতীর সভাপতিত্বে ও কেন্দ্রীয় দফতর সম্পাদক সুলতান মাহমুদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রেসিডিয়াম সদস্য সাহিদুর রহমান টেপা, সুনীল শুভ রায়, মীর আবদুস সবুর আসুদ, হাজী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন, উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য রিন্টু আনোয়ার, ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইকবাল হোসেন রাজু, জহিরুল ইসলাম জহির, আরিফুর রহমান খান, নুরুল ইসলাম নুরু, যুগ্ম মহাসচিব গোলাম মোহাম্মদ রাজু, ইয়াহইয়া চৌধুরী এমপি, জহিরুল আলম রুবেল, জাতীয় যুব সংহতির সাধারণ সম্পাদক ফরখরুল আহসান শাহজাদা, জাতীয় স্বেচ্ছাসেবক পার্টির সদস্য সচিব বেলাল হোসেন, ঢাকা মহানগর উত্তরের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল খায়ের, জাতীয় শ্রমিক পার্টির সভাপতি একেএম আসরাফুজ্জামান খান, জাতীয় ছাত্র সমাজের সভাপতি সৈয়দ ইফতেকার আহসান হাসান, জাতীয় ওলামা পার্টির সাধারণ সম্পাদক মাওলানা এস এম আল জুবোয়ের, জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পার্টির সভাপতি জাফর উল্লাহ মজুমদার আজাদ প্রমুখ বক্তৃতা করেন।

আলোচনা সভায় জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান খন্দকার আব্দুছ সালাম, বাহাউদ্দিন আহমেদ বাবুল, যুগ্ম মহাসচিব শেখ আলমগীর হোসেন, শফিকুল ইসলাম শফিক, সাংগঠনিক সম্পাদক ইসহাক ভূইয়া, মনিরুল ইসলাম মিলন, মোবারক হোসেন আজাদ, জসিম উদ্দিন ভূইয়া, শামসুল হক, আমির উদ্দিন আহমেদ ডালু, সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য খোরশেদ আলম খুশু, এম এ রাজ্জাক খান, আবু সাঈদ স্বপন, ডাঃ সেলিমা খান, সাহিদা রহমান রিংকু, হেলাল উদ্দিন, মিজানুর রহমান মিরু, সুজন দে, আজহারুল ইসলাম সরকার, নাজমুল খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.