ঢাকা, শনিবার,১৬ ডিসেম্বর ২০১৭

ফুটবল

না বলে দিলেন মেসি!

ক্রীড়া প্রতিবেদক

০৬ ডিসেম্বর ২০১৭,বুধবার, ০৮:২৯


প্রিন্ট
মেসি

মেসি

ক্লাব ফুটবল ইতিহাসের সর্বোচ্চ ব্যয়বহুল বোনাস অফারও টলাতে পারেনি আর্জেন্টাইন লায়নেল মেসিকে। বার্সেলোনার ঘরের ছেলেকে ইংল্যান্ডে উড়িয়ে আনতে ম্যানসিটির মালিকানায় থাকা শেখ মানসুর নিজেই কাজে নেমে পড়েন। কিন্তু লাভ হয়নি কিছুই। মেসি সরাসরি ‘না’ বলে দেন বিশেষ প্রতিনিধির মাধ্যমে ম্যানসিটির ধনকুবের মালিক মানসুরের ১০০ মিলিয়ন ইউরোর অবিশ্বাস্য বোনাস অফারও। প্রাচুর্যে সবার চেয়ে এগিয়ে থাকা ইউরোপীয় ক্লাব ফুটবলের দলবদলের দীর্ঘ ইতিহাসে শুধু বোনাস হিসেবে ওই বিপুল অর্থের অফার কল্পনায়ও ছিল না নামকরা দলগুলোর মধ্যে। বোনাসের পাশাপাশি বার্ষিক বেতন হিসেবে মেসিকে ইতিহাসের সর্বোচ্চ ৫০ মিলিয়ন ইউরো দেয়ার অন্তর্ভুক্ত ছিল মানসুরের প্রস্তাবে।

সম্প্রতি এক বিশেষ প্রতিবেদনে স্প্যানিশ দৈনিক মার্কা প্রকাশ করেছেÑ মেসি সরাসরি ‘না’ বলে দেন ম্যানসিটির মালিক মানসুরের অবিশ্বাস্য অর্থ বরাদ্দের প্রস্তাবে। উল্টো বার্সেলোনাকে আড়ালে রেখে প্রস্তাব পাঠানোর মাশুলও গুনেছে ইংল্যান্ডের দলটি।

শিগগিরই ইংল্যান্ডে মেসির উপস্থিতির প্রাথমিক চিন্তার পথ খোলা রাখেনি বার্সেলোনা। তাদের কাছে গোপন ইংল্যান্ডের ক্লাবটির মেসিকে দেয়া অবিশ্বাস্য অঙ্কের অফার। অত্যন্ত স্পর্শকাতর বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণে বিন্দুমাত্র সময়ক্ষেপণের ঝুঁকি নিতে রাজি হননি বার্সার সভাপতি জোসেফ বারতেমেয়ু। রাজি হয়ে গেছেন মেসির চাওয়া পূরণে। আর্জেন্টাইনকে বার্সেলোনায় রাখার প্রশ্নে চুক্তিটিতে বরাদ্দ অর্থের পরিমাণ চূড়ান্ত নবায়নের সময় বৃদ্ধিতেও আপত্তি তোলেননি।


দ্য ফ্যান্টম কনট্রাক্ট
৫ জুলাই, ২০১৭। সময়ের স্বল্পতার কারণে অনেকটা তাড়াহুড়ো করেই অফিসিয়াল টুইটার পেজের মাধ্যমে লায়নেল মেসির সাথে চুক্তি নবায়ন সম্পন্নের ঘোষণা দেয় বার্সেলোনা। চুক্তির অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত ছিলেন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার। মেসির অনুপস্থিতিতে পিতা ও প্রতিনিধির মাধ্যমে বার্সেলোনার চুক্তির আয়োজনকে বিতর্কে জড়িয়ে দেয় সেলিব্রেটিনির্ভর মিডিয়া টিভি-৩।

এরপরই নেইনামের আলোচিত দলবদল। তার সর্বোচ্চ পারিশ্রমিকের রেকর্ড দখলে ফ্রান্সে ঠিকানা বেছে নেন। ততক্ষণে বার্সেলোনা-মেসির প্রাথমিক চুক্তির বিষয় রূপ নেয় অনুকরণের অযোগ্যে অবস্থানে।


সত্যিকারের চুক্তি
মুনাফা অর্জনে ক্লাব ইতিহাসের সেরা সময়ে বার্সেলোনা। নেইমারকে বিক্রিতে তাদের তহবিলে যোগ হয়েছে ২২ মিলিয়ন ইউরো। তবে লায়নেল মেসির সাথে চুক্তি নবায়নে ক্লাব ইতিহাসে একজন ফুটবলারের পেছনে বার্ষিক ব্যয়ের কল্পনার বাইরে থাকা অর্থ বিনিয়োগ করেছে বার্সেলোনা। আর মেসির পেছনে বার্ষিক বরাদ্দের পরিমাণ ছাড়িয়ে গেছে ২০১৪ সাল থেকে এমএনএস জুটির জন্য একত্র ব্যয়ের পরিমাণও।

চুক্তির আনুষ্ঠানিকতা শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংয়ে বারতেমেয়ু বলেন, ‘আমরা অনেক ব্যয় করেছি’।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫