এই স্কুলে নারীদের বকাঝকা বা প্রহার মেনে নেয়ার শিক্ষা দেওয়া হতো
এই স্কুলে নারীদের বকাঝকা বা প্রহার মেনে নেয়ার শিক্ষা দেওয়া হতো

চীনে পুরুষদের প্রতি নারীদের আনুগত্য শেখানোর স্কুলে তালা

নয়া দিগন্ত অনলাইন

নারীদের পুরুষদের প্রতি অনুগত হওয়ার শিক্ষা দেওয়া হয় এরকম একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দিয়েছে চীনের কর্তৃপক্ষ। এই স্কুলে মেয়েদের বাবা, স্বামী এবং পুত্রের প্রতি শর্তহীন আনুগত্যে উৎসাহিত করা হতো।

চীনের শিক্ষা বিভাগ বলছে, বন্ধ করে দেওয়া ঐ প্রতিষ্ঠান চীনা সমাজের ‘ঐতিহ্যগত গুণাগুণ বা মূল্যবোধ’ শেখার যে কথা বলতো তা ‘সমাজতান্ত্রিক মূল্যবোধের’ পরিপন্থী।

অনলাইনে প্রকাশিত এক ভিডিওতে দেখা গেছে, শিক্ষকরা সেখানে নারীদের পরামর্শ দিচ্ছেন যে পুরুষদের হাতে মার খেলেও তারা যেন প্রতিরোধ না করে।

একজন শিক্ষককে বলতে শোনা যাচ্ছে, ‘তোমাদের স্বামীরা যা করতে বলবে, তোমরা সাথে সাথে তা মেনে নেবে।’

ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে ফুশুন স্কুল অব ট্র্যাডিশনাল কালচার নামে ঐ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা নারীদের বলছেন, কেরিয়ার তৈরির জন্য মরিয়া না হয়ে তারা যেন সংসারে অনুগত হয়ে জীবনযাপন করেন।

একটি ফুটেজে এক শিক্ষক নারীদের সাবধান করছেন - তারা যদি তিন জনের বেশি পুরুষের সাথে যৌনকর্ম করেন তাহলে বিষক্রিয়ায় তাদের মৃত্যু হবে।

ঐতিহ্য শিক্ষা দেওয়ার নামে চীনে সাম্প্রতিক সময়ে এ ধরণের কিছু প্রতিষ্ঠান গজিয়েছে।

সরকারি কর্তৃপক্ষ এ ধরণের প্রতিষ্ঠান খুঁজে বের করার নির্দেশ দিয়েছেন। ফুশুন শিক্ষা কর্তৃপক্ষ এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘সমাজতন্ত্রের মূল শিক্ষা লঙ্ঘন করছে যারা, তাদেরকে ঠেকাতে হবে।’

সূত্র: বিবিসি

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.