খারাকান যমজ বুরুজ

আজ তোমরা জানবে খারাকান যমজ বুরুজ সম্পর্কে। এটি আসলে দু’টি জাঁকজমকপূর্ণ সমাধি। ইটের এই স্থাপনার উচ্চতা ১৫ মিটার বা ৪৫ ফুট। এখানকার বিস্তৃত জ্যামিতিক ব্যবহার বিস্ময়কর।
লিখেছেন মুহাম্মদ রোকনুদ্দৌলাহ্
প্রাচীন সভ্যতার দেশ ইরানের অন্যতম স্থাপত্যিক নিদর্শন খারাকান যমজ বুরুজ । এই যমজ বুরুজ বা টুইন টাওয়ার টিকে আছে প্রায় হাজার বছর ধরে। কাজভিন প্রদেশে এর অবস্থান।
খারাকান যমজ বুরুজ আসলে দু’টি জাঁকজমকপূর্ণ সমাধি। ইটের এই স্থাপনার উচ্চতা ১৫ মিটার বা ৪৫ ফুট। এখানকার বিস্তৃত জ্যামিতিক ব্যবহার বিস্ময়কর। ইটের আলঙ্কারিক সজ্জা দারুণ সুন্দর।
প্রাচীন সমাধির ভেতরে রয়েছে একটি বাতি (ল্যাম্প) ও চিত্রকর্ম।
মধ্যযুগের পারস্যের (ইরান) সেলজুক বংশের সময়ে নির্মিত এই স্থাপনা দৃষ্টিনন্দন, অসাধারণ। প্রথম বুরুজটি নির্মাণ করা হয়েছিল ১০৬৭ সালে এবং দ্বিতীয়টি ১০৯৩ সালে।
অনেকের মতে, যমজ বুরুজ ইরানের অতীত গৌরবের বিশেষ সাক্ষী, যা সেলজুক রাজপুত্রদের স্মরণে নির্মিত।
যমজ বুরুজ যখন নির্মিত হয় তখন পারস্য ছিল বিশ্বের অন্যতম বড় দেশ এবং সামরিক শক্তিতে বলীয়ান।
২০০০ সালের ভূমিকম্পে যমজ বুরুজ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। পরে যত দূর সম্ভব পূর্বাবস্থায় ফিরিয়ে আনা হয়েছে।
তথ্যসূত্র : ওয়েবসাইট

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.