তত্ত্বাবধায়ক সরকার ফিরে আসবে না : হাছান মাহমুদ

নিজস্ব প্রতিবেদক

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের এক বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করে আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এমপি বলেছেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা এখন ‘মৃত’। তা আর কখনোই ফিরে আসবে না। আপনি অনেক বড় আইনজীবী। অনেক ভালো করেই জানেন, সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচন হয় না। নির্বাচন হবে নির্বাচন কমিশনের অধীনে। আপনারা নির্বাচনে আসুন। একটি প্রতিযোগিতামূলক নির্বাচন হবে।

আজ রোববার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত এক মানববন্ধনে তিনি একথা বলেন।

গতকাল শনিবার এক আলোচনা সভায় ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছিলেন, ১৯৯৪-৯৫ সালে বেগম খালেদা জিয়া বলতেন, সংবিধান অনুসারে দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন হবে। তখন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মাথা থেকেই তত্ত্বাবধায়ক সরকারের ধারণা এসেছিলো। এখন তিনিও খালেদা জিয়ার মতো একই কথা বলেছেন। যারা তত্ত্বাবধায়কের ধারণা প্রবর্তন করলো, এখন তারাই সুযোগ পেয়ে সংবিধান পরিবর্তন করে বলছেন, দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন হবে। দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন কমিশন কোনোদিনও সুষ্ঠু নির্বাচন করতে পারেনি, পারবেও না।

সম্প্রতি গণমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া খালেদা জিয়ার পরিবারের সদস্যদের বিদেশে অর্থপাচারের অভিযোগ প্রসঙ্গে হাছান মাহমুদ বলেন, সৌদি আরবসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে খালেদা জিয়ার পরিবারের হাজার হাজার কোটি টাকা ধরা পড়েছে। এগুলো যে লুটপাটের সম্পত্তি, সেটা আজ তদন্তে বেরিয়ে এসেছে। যখনই সত্য বেরিয়ে আসে তখনই বিএনপির নেতারা চুপ হয়ে যান।

তিনি আরো বলেন, চোরের মায়ের বড় গলা। শুধু তাই নয়, তিনি নিজেও চোর, যা তদন্তে বেরিয়ে এসেছে। তার গুণধর পুত্রের বিরুদ্ধে এফবিআই স্বাক্ষর দিয়ে গেছে। বেগম খালেদা জিয়ার লজ্জা হয় কিনা জানি না। কিন্তু এগুলো বলতে আমার লজ্জা হয়।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে গ্রেফতারের দাবি জানিয়ে সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, আদালতে গ্রেফতারি পরোয়ানা অনুযায়ী বেগম জিয়াকে গ্রেফতার করা হোক। সরকারের কাছে আহবান জানাই, খালেদা জিয়ার পরিবারের বিদেশে পাচারকৃত সব টাকা বাজেয়াপ্ত করা করে দেশে ফেরত আনার ব্যবস্থা করা হোক।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.