ঢাকা, শনিবার,১৬ ডিসেম্বর ২০১৭

ময়মনসিংহ

শীতের বার্তা এলো শিশিরে

মো. আব্দুল আউয়াল, ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ)

০২ ডিসেম্বর ২০১৭,শনিবার, ১০:১১


প্রিন্ট

শিশির জমা দুর্বাঘাসে শশীর আলো পড়ে, দীপ্ত দ্যুতি ঝলমলিয়ে সবার মন কাঁড়ে। কবির এ কথার রেশ ধরেই যেন হেমন্তের শেষ প্রান্তে এসে শীতের বার্তা এলো শিশিরে।
বর্তমানে দেশের আবহাওয়া এতটাই বদলে গেছে যে, ঋতুর আচরণও পাল্টাতে শুরু করেছে। আঁচ করা কঠিন হয়ে পড়েছে গ্রীষ্ম, বর্ষা কিংবা শীতের মতো প্রধান ঋতুর আচরণ। প্রকৃতিকে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে গেছে মানুষসৃষ্টি জলবায়ু বিপর্যয়। এরপরও বদলায় ঋতু। তবু বৃক্ষপাতায় উত্তরের হাওয়ায় কাঁপন লেগে ঝেঁকে বসে শীত। সকাল-সন্ধ্যায় বৃক্ষ পাতায় কিংবা দুর্বাঘাসে বিন্দু বিন্দু শিশির জমে। গ্রামবাংলায় সবুজ পাতা আর দুর্বাঘাসের ডগায় টলমল করা শিশিরের নান্দনিক সৌন্দর্য পথিকের মন কাড়ে।

বিলম্বে হলেও বাড়তে শুরু করেছে শীত। সকালে দুর্বাঘাসে জমানো শিশির পথিকের পা ধুয়ে জানান দিচ্ছে শীতের আগমনী বার্তা। সন্ধ্যা ও ভোরে কুয়াশাচ্ছন্ন আকাশ আর হাল্কা ঠান্ডা বাতাসে শীতের আমেজ লক্ষ্য করার মতো। এরই মধ্যে শহরের ফুটপাতগুলোতে বসতে শুরু করেছে গরম কাপড়েরর দোকান। সচ্ছল-বিত্তবানেরা ছুটছেন অভিজাত মার্কেটগুলোতে। ঘরে ঘরে আয়োজন চলছে শীতের খাবারের। লেপ-কম্বলের প্যাকেটও এর মধ্যে অনেকে খুলে ফেলেছেন।
কুয়াশার আঁচল সরিয়ে ভোরে ওঠে কোমল রোদের কিরণ ছটা। এখন যাঁরা ভোরে ঘুম থেকে ওঠেন তাঁরা দেখতে পারেন কুয়াশার বুকচিরে ভোরের সূর্যোদয়ের মনোরম দৃশ্য। গ্রামবাংলার নদ-নদী অববাহিকায় আর গ্রামীণ জনপদে সন্ধ্যা থেকে ভোর অবধি ঘন কুয়াশা জানান দিচ্ছে শীত এসেছে। এই শীত যেন ফুটপাতবাসী দরিদ্রদের কাছে সৌন্দর্যের বদলে অভিশাপ হিসেবে দেখা না দেয় সেজন্যে বিত্তবানদের প্রতি আহ্বান রইল। শীতের শিশির ভেজা হিমেল বার্তা সুখ নিয়ে আসুক সবার জীবনে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫