গুলিস্তানে মাদরাসাছাত্র হত্যা মামলায় সহপাঠীর স্বীকারোক্তি

আদালত প্রতিবেদক

ঢাকার গুলিস্তানে মদিনাতুল উলুম হাফিজিয়া মাদরাসার ছাত্র জিদান ওরফে আবদুর রহমান হত্যা মামলায় তার সহপাঠী মো: আবু বক্কর আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে। গতকাল মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পল্টন থানার এসআই রেজাউল করিম তাকে ঢাকার সিএমএম আদালতে হাজির করে স্বীকারোক্তি নেয়ার জন্য আদালতে আবেদন করেন। আদালত জবানবন্দী নেয়ার জন্য ঢাকার মহানগর হাকিম আমিরুল হায়দার চৌধুরীকে দায়িত্ব দেন। তিনি দায়িত্ব পেয়ে আসামির দেয়া জবানবন্দী ফৌজদারি কার্যবিধি ১৬৪ ধারায় রেকর্ড করেন। পরে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।
এ মামলায় সাক্ষী হিসেবে ৯ বছরের রাফিউল ইসলাম, ১৩ বছরের হাবিবুল্লাহ, ১৪ বছরের মো: কামরুল ইসলাম ও ২৭ বছরের মঈনুল ইসলাম আদালতে সাক্ষী হিসেবে জবানবন্দী দেন।
শিক্ষকদের কাছ থেকে খবর পেয়ে সোমবার ভোরে মাদরাসার সেপটিক ট্যাংক থেকে জিদানের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। গত রোববার রাত ২টায় এ হত্যাকাণ্ড ঘটে বলে ধারণা করছেন মাদরাসার শিক্ষকেরা। নিহত জিদান ওই মাদরাসার হেফজ শাখার ছাত্র এবং ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার জালেরশর গ্রামের হাফিজ উদ্দিনের ছেলে। ছেলের লাশ উদ্ধারের খবর পেয়ে ঢাকায় এসে তিনি পল্টন থানায় আবু বক্করের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন। গত বুধবার ভোরে আবু বক্করকে সদরঘাট এলাকা থেকে গ্রেফতার করে র‌্যাব-৩।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.