ঢাকা, বৃহস্পতিবার,১৪ ডিসেম্বর ২০১৭

রাজনীতি

আ’লীগ ক্ষমতায় থাকলে দেশের অস্তিত্ব থাকবে না : মির্জা ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক

২২ নভেম্বর ২০১৭,বুধবার, ২০:০৩


প্রিন্ট

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারকে জগদ্দল পাথর আখ্যা দিয়ে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সরকার দেশের প্রতিটি প্রতিষ্ঠান ধ্বংস করে দিচ্ছে। এরা বাংলাদেশকে একটি ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত।

আজ বুধবার এক সভায় তিনি বলেন, মেগা প্রজেক্টের নামে মেগা লুট চালাচ্ছে। দেশের প্রধান বিচারপতিকে পর্যন্ত প্রথমে দেশ ছাড়তে পরবর্তীতে পদত্যাগে বাধ্য করেছে। তাই এরা যদি রাষ্ট্র ক্ষমতায় থাকে তাহলে দেশের পতাকা থাকবে কিন্তু স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব ও অস্তিত্ব থাকবে না। তবে স্বাভাবিক পদ্ধতিতে জগদ্দল পাথরের মতো বসে থাকা সরকারকে সরাতে পারবো বলে মনে হয় না বলে মন্তব্য করেন বিএনপি মহাসচিব।

রাজধানীতে ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশন মিলনায়তনে আজ সন্ধ্যায় এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব বলেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ৫৩তম জন্মদিন উপলক্ষে এ আলোচনা সভার আয়োজন করে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল।

সংগঠনের সভাপতি রাজীব আহসানের সভাপতিত্বে ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদের সঞ্চালনায় সভায় বক্তৃতা দেন বিএনপি চেয়ারপারনের উপদেষ্টা ও সাবেক ছাত্রনেতা আমান উল্লাহ আমান, ভাইস চেয়ারম্যান ও ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি শামসুজ্জামান দুদু, সাবেক ছাত্রনেতা খায়রুল কবির খোকন, ফজলুল হক মিলন, শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, কামরুজ্জামান রতন, আজিজুল বারী হেলাল, সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, আমিরুল ইসলাম খান আলিম, আব্দুল কাদির ভুঁইয়া জুয়েল, ছাত্রদলের সিনিয়র সহসভাপতি মামুনুর রশীদ, সহসভাপতি আলমগীর হাসান সোহান, নাজমুল হাসান প্রমুখ।

এছাড়াও ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় নেতাদের মধ্যে মামুন বিল্লাহ, নিয়াজ মাখদুম মাসুম বিল্লাহ, ইসতিয়াক নাসির, ইখতিয়ার রহমান কবির, জহিরুল ইসলাম বিপ্লব, আবু আতিক আল হাসান মিন্টু, বায়েজিদ আরেফিন, কাজী মোকতার হোসেন, রাজিব আহসান চৌধুরী পাপ্পু, রাশিদুল ইসলাম রিপনসহ বিভিন্ন ইউনিট ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, সরকারকে বিদায় করতে আমাদের হাতিয়ার লাগবে। কারণ এরা জনগণের অধিকার কেড়ে নিয়ে বন্দুক পিস্তল হাতে নিয়ে জোর করে ক্ষমতায় বসে আছে। তাই এদেরকে সরাতে হলে এবং জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠায় করতে রুখে দাঁড়াতে হবে। সবাইকে জেগে উঠতে হবে।

তিনি উপস্থিত ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, যেকোনো মূল্যে বর্তমান দখলদারী ক্ষমতাসীন সরকারকে বিদায় করে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। কেননা দেশের মানুষ এদের কাছ থেকে মুক্তি পেতে চায়, চায় পরিবর্তন। শুধু ভাই ভাই বলে স্লোগান না দিয়ে অঙ্গীকার করতে হবে। আমরা যদি খালেদা জিয়াকে প্রধানমন্ত্রী বানাতে পারি এবং জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে পারি তাহলেই তারেক রহমান নির্বাসিত থেকে দেশে আসবেন, অন্যথায় নয়।

দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, তারেক রহমান তরুণদের নেতা তিনি স্বপ্ন দেখিয়েছেন নতুন বাংলাদেশের, যেখানে থাকবে না গুম খুন ও বিচারবর্হিভুত হত্যা। তাই সত্যিকার অর্থে দেশ ও জাতির স্বাধীনতা ও মানুষের মুক্তি, গণতন্ত্র পেতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে জেগে উঠতে হবে।

মির্জা ফখরুল বলেন, জিম্বাবুয়ের ৩৭ বছরের স্বৈরাচার মুগাবের পতন, পদত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছে। সেই খবর ছোট করে দেয়া হয়েছে কারণ এই যে, স্বৈরাচার, যে ১০ বছর ধরে ক্ষমতা দখল করে আছে তদের উপর প্রভাব পড়বে। এজন্য এই খবর বড় করে দেয়া যাবে না!

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫