ঢাকা, রবিবার,১৭ ডিসেম্বর ২০১৭

বিবিধ

ঠাণ্ডা বাতাসের সাথে শীত, সাগরে ফের লঘুচাপ

নিজস্ব প্রতিবেদক

২২ নভেম্বর ২০১৭,বুধবার, ১৯:৫৭


প্রিন্ট

ঠাণ্ডা বাতাসের সাথে পড়েছে শীত। সারাদেশে সকাল থেকেই বয়ে গেছে ১০ থেকে ১২ কিলোমিটার বেগে ঠাণ্ডা বাতাস। কমেছে বাতাসের আদ্রতা। দেশের উত্তরাঞ্চলে পড়তে শুরু করেছে হালকা ধরনের কুয়াশা। তাপমাত্রার পারদ নেমে গেছে ১২ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত। এদিকে সাগরে ফের গঠিত হয়েছে আরেকটি লঘুচাপ। এক সপ্তাহ আগের লঘুচাপটি নিম্নচাপ পর্যন্ত উন্নীত হলেও এখনকারটা কোন পর্যন্ত গড়ায় তা এখনো স্পষ্ট নয়।

আবহাওয়া চলতি নভেম্বর মাসে এক থেকে দুটি নিম্নচাপ হতে পারে। ইতোমধ্যে একটি নিম্নচাপ সৃষ্টি হয়ে আবার সাগরেই গুরুত্বহীন হয়ে পড়ে ১৭ নভেম্বর। এর আগে গত ১ নভেম্বর একটি লঘুচাপ গঠিত হয়ে সাগরেই এটা গুরুত্বহীন হয়ে পড়ে ৩ নভেম্বর। চলতি লঘুচাপটি নিম্নচাপ পর্যন্ত উন্নীত হলে অবাক হবেন না আবহাওয়াবিদেরা।

ঠাণ্ডার কারণে গতকাল মঙ্গলবার অথবা আজ বুধবার রাতের বেলা কাঁথা-কম্বল গায়ে দিয়েই ঘুমাতে হয়েছে। ঢাকার তাপমাত্রা তেমন না কমলেও গ্রামের তাপমাত্রা ক্রমহ্রাসমান অবস্থায় ছিল। রাজধানী ঢাকার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৯.৫ পর্যন্ত নামলেও আজ দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় চুয়াডাঙ্গায় ১২.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। চট্টগ্রাম বিভাগ ছাড়া দেশের অন্যত্র সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১২ থেকে ১৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে ছিল।

আজ সন্ধ্যা ৬টায় ঢাকায় বাতাসের আদ্রতা ছিল ৫৪ শতাংশ। আদ্রতা বেশি থাকলে বাতাস বেশি জলীয় বাষ্প ধারণ করে রাখতে পারে। আর জলীয় বাষ্প বেশি তাপও ধরে রাখতে পারে। ফলে সার্বিকভাবে পরিবেশ সহনীয় থাকে।

বাংলাদেশে শীতল পরিবেশের অনেকগুলো কারণের একটি হলো উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়। এ প্রক্রিয়াটি উত্তরের কনকনে ঠাণ্ডা হাওয়া বয়ে নিয়ে আসে বাংলাদেশ। উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয় সরাসরি বাংলাদেশের আকাশে আসে না। এর বর্ধিতাংশ বাংলাদেশে উত্তর উত্তরপশ্চিমাঞ্চল পর্যন্ত পৌঁছে। এর বর্ধিতাংশ বাংলাদেশের কিয়দংশ স্পর্শ করলে প্রচণ্ড ঠাণ্ডা পড়ে থাকে। তখন দেশের তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে নেমে আসে।

গত মঙ্গলবার থেকেই এ উচ্চচাপ বলয় ভারতের বিহার পর্যন্ত অগ্রসর হয়েছে। তবে এটা উঠা-নামা করছে। আজ সকাল পর্যন্ত এটা বিহার অতিক্রম করে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ পর্যন্ত বিস্তৃত ছিল। কিন্তু বিকেল থেকে আবহাওয়ার একটু উন্নতি হয়েছে। ঠাণ্ডা ভাবটা দুপুরের দিকে ছিল না।

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয় কিছুটা উপরের দিকে সরে গিয়ে আবারো বিহার ও এর আশ-পাশের এলাকায় সীমাবদ্ধ হয়েছে। এ কারণে গতকল মঙ্গলবার রাত থেকে হঠাৎ বেশ শীত পড়ে এবং তা সকাল পর্যন্ত বিস্তৃত ছিল।

আবহাওয়া অফিস আগামী পাঁচ দিনের পূর্বাভাস দিয়ে বলেছে, এ সময়ের মধ্যে সার্বিক তাপমাত্রা কিছু নেমে যেতে পারে। দিনের তাপমাত্রা খুব বেশি না কমলে রাতের তামপাত্রা কমতে থাকবে। এর মধ্যে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপটি শক্তি সঞ্চয় করে নিম্নচাপে পরিণত হলে আকাশে মেঘ জমবে বৃষ্টিপাত হতে পারে। হঠাৎ পরিবেশে তাপমাত্র বাড়বে, বাড়বে বাতাসের আদ্রতা।

আজকের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল সিলেট নগরী ও সমুদ্র বন্দর মংলায় ৩০.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫