পরীক্ষাকেন্দ্রে ছাত্রীর শ্লীলতাহানি! শিক্ষকের কারাদণ্ড
পরীক্ষাকেন্দ্রে ছাত্রীর শ্লীলতাহানি! শিক্ষকের কারাদণ্ড

পরীক্ষাকেন্দ্রে ছাত্রীর শ্লীলতাহানি! শিক্ষকের কারাদণ্ড

মুহাম্মদ হানিফ ভুঁইয়া, নোয়াখালী

প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় কেন্দ্রের পরীক্ষার হলে এক ছাত্রীর শ্লীলতারহানির অভিযোগে নোয়াখালীর সেনবাগে এক শিক্ষকের এক বছরের কারাদণ্ড ভ্রাম্যমাণ আদালত। মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যলয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত এ আদেশ দেন। পরে তাকে সেনবাগ থানার মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়। অভিযুক্ত শিক্ষক উপজেলার কাদরা ইউপির চাঁদপুর খলিফা পাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষক ও ডমুরুয়া ইউপির নলুয়া গ্রামের আবদুর রবের পুত্র।

ভ্রাম্যমাণ আদালত ও কেন্দ্র সুত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার পিএসসি পরীক্ষায় বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় বিষয়ের পরীক্ষা চলাকালে উপজেলার গাজীরহাট কেন্দ্রের গাজীরহাট সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২ নং হলে পরিকোট সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক ছাত্রী হলে দায়িত্বরত শিক্ষক ইব্রাহিমকে একটি প্রশ্ন জানতে চায়। শিক্ষক সে ছাত্রীর সে দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে তার কাছে গিয়ে শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিয়ে শ্লীলতারহানি ঘটায়।

সাথে সাথে হলের সকল শিক্ষার্থী এ ঘটনার প্রতিবাদ করে ছাত্রী নিজে এসে শিক্ষিকাদের জানায়। তারা বিষয়টি সাথে সাথে কেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আতিকুল ইসলামকে অবগত করে।

ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা ছাত্রী ও অভিযুক্ত শিক্ষক ইব্রাহিমকে কেন্দ্র সচিবের অফিসে নিয়ে আসে তার জিম্মায় রেখে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে জানান। উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা এমরান হোসেন ঘটনা স্থলে পৌছে অভিযুক্ত শিক্ষককে কেন্দ্র নির্বাহী কর্মকতার কার্যালয়ে নিয়ে আসেন। বিকেলে অভিযুক্ত শিক্ষক ইব্রাহিম কর্তৃক ছাত্রীর শ্লীলতানির অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আলম অভিযুক্ত শিক্ষক মো: ইব্রাহিমকে ১ বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন। পরে তাকে সেনবাগ থানার মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

 

 

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.