গাজীপুরে উদ্ধারকৃত নবজাতকটি মারা গেছে

গাজীপুর সংবাদদাতা

গাজীপুরে ডাস্টবিনে বিড়ালের কবল থেকে কয়েক ঘণ্টা বয়সী উদ্ধারকৃত মেয়ে নবজাতকটি অবশেষে মারা গেছে। রোববার রাতে ওই নবজাতকটি মারা যায়। সোমবার দুপুরে নামাজে জানাজা শেষে স্থানীয় লক্ষ্মীপুরা এলাকায় গোরস্থানে তাকে দাফন করা হয়েছে।
উদ্ধারকারী পোশাকশ্রমিক রেখা আক্তার জানান, রোববার রাত দেড়টার দিকে শিশুটি মারা যায়।
উল্লেখ্য, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের তিন সড়ক এলাকার স্প্যারো কারখানার পোশাকশ্রমিক রেখা আক্তার রোববার দুপুরে একই এলাকায় ঢাকা-গাজীপুর সড়কের পাশে ডাস্টবিনে একটি বিড়ালকে প্লাস্টিকের বাজারের ব্যাগ নিয়ে টানাটানি করতে দেখেন। এ সময় তিনি ওই ব্যাগের ভেতর বাচ্চার কান্নার শব্দ পেয়ে এগিয়ে যান। পরে বিড়াল তাড়িয়ে দিয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করে শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আসেন। পরে হাসপাতালে ওই শিশুটিকে চিকিৎসা ও ভর্তি করা হয়।
শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক প্রণয় ভূষণ দাস জানান, নবজাতকটির মুখমণ্ডলসহ শরীরের বিভিন্ন স্থান বিড়ালের দাঁত ও নখের আঁচড় ও ক্ষত চিহ্ন ছিল। হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে তাকে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হয়। বিকেলে শিশুটির শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকলে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার জন্য রেফার্ড করা হয়। কিন্তু শিশু আনয়নকারী রেখা শিশুটিকে ঢাকায় না নিয়ে নিজেদের বাসায় নিয়ে গেছেন বলে জানতে পেরেছি। তা ছাড়া এ নবজাতকের বিষয়টি জয়দেবপুর থানা পুলিশ ও জেলা প্রশাসনকে জানানো হয়েছে।
জয়দেবপুর থানার ওসি মো: আমিনুল ইসলাম বলেন, এ ব্যাপারে জয়দেবপুর থানায় একটি জিডি করা হয়েছে এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।
এ প্রসঙ্গে রেখা আক্তার জানান, তার বাড়ি সিরাজগঞ্জের সাদাতপুর থানা এলাকায়। তার স্বামী আব্দুল মতিন ২০০৮ সালে মারা গেছেন। বর্তমানে তিনি লক্ষ্মীপুরা এলাকার কাজীমদ্দিনের বাড়িতে ভাড়া থেকে পোশাক কারখানায় চাকরি করেন। তার রেজাউল করিম (১৭) নামে প্রতিবন্ধী ছেলে রয়েছে। এ কারণে ছেলেকে ফেলে ওই শিশুটিকে ঢাকায় নেয়া সম্ভব হয়নি।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.