ঢাকা, শুক্রবার,১৫ ডিসেম্বর ২০১৭

ফুটবল

পগবার ফেরার ম্যাচে ইউনাইটেডের বড় জয়

নয়া দিগন্ত অনলাইন

১৯ নভেম্বর ২০১৭,রবিবার, ১৫:০৩


প্রিন্ট

ইনজুরি কাটিয়ে দলে ফিরেই ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে গোলের দেখা পেয়েছেন পল পগবা। শনিবার ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ইউনাইটেড ডার্বিতে নিউক্যাসেলের বিপক্ষে পিছিয়ে থেকেও শেষ পর্যন্ত ৪-১ গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছে হোসে মরিনহোর ইউনাইটেড। ম্যাচে সমতাসূচক গোলটি করেছেন এ্যান্থনী মার্শাল। বিরতির ঠিক আগে ক্রিস স্মলিং এগিয়ে দিয়েছিলেন স্বাগতিকদের। এছাড়া সাত ম্যাচ পরে গোল করে কোচের আস্থার প্রতিদান দিয়েছেন রোমেলু লুকাকু।

ফ্রেঞ্চ তারকা পগবা ছাড়ও কাল ইনজুরি কাটিয়ে দীর্ঘদিন পরে দলে ফিরেছেন সুইস সুপারস্টার জালাটান ইব্রাহিমোভিচ। বদলী খেলোয়াড় হিসেবে ইব্রা শেষ ১৩ মিনিট মাঠে ছিলেন। এই জয়ে টেবিলের শীর্ষে থাকা ম্যানচেস্টার সিটির থেকে এখনও আট পয়েন্ট পিছিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ইউনাইটেড।

ম্যাচের শুরুতেই অবশ্য শঙ্কায় পড়েছিল স্বাগতিকরা। ১৪ মিনিটে ডুয়াইট গেইলের গোলে নিউক্যাসেল এগিয়ে গেলে ওল্ড ট্র্যাফোর্ড স্বব্ধ হয়ে যায়। ৩৭ মিনিটে পগবার দারুন এক ক্রসে হেডের সাহায্যে মার্শাল প্রতিপক্ষ গোলরক্ষক রব এলিয়টকে পরাস্ত করলে সমতায় ফেরে ইউনাইটেড। হ্যামস্ট্রিং ইনজুরির কারণে দুই মাস বিশ্রামে ছিলেন পগবা। বিরতির ঠিক আগে লেফট-উইং কর্ণার থেকে এ্যাশলে ইয়ংয়ের ৩০ গজ দুর থেকে ক্রসে পোস্টের খুব কাছ থেকে স্মলিং মাথা ছুঁইয়ে ইউনাইটেডকে এগিয়ে দেয়। কিন্তু তখনও প্রথমার্ধের নাটক শেষ হয়নি। কাউন্টার এটাক থেকে হেইডেনের শট অসাধারণ দক্ষতায় রুখে দেন ডেভিড ডি গিয়া। ফিরতি বলে ম্যাট রিচির শট গেইলের হাঁটুতে লেগে বাইরে চলে যায়।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই নিউক্যাসেল আক্রমণের সুযোগ হাতছাড়া করে। তবে ৫৪ মিনিটে লুকাকুর পাস থেকে বক্সে ভিতর রাশফোর্ডের সহজ হেডে অনেকটা ফাঁকায় দাঁড়ানো পগবা গোল করলে পুরো স্টেডিয়াম উল্লাসে ফেটে পড়ে। মারফির ২৫ গজ দূর থেকে জোড়ালো শট আটকাতে ডি গিয়াকে খুব একটা কষ্ট করতে হয়নি। কিন্তু ৭০ মিনিটে হুয়ান মাতার সহায়তায় এলিয়টকে একা পেয়ে সহজেই পরাস্ত করেন বেলজিয়াম তারকা লুকাকু।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫