ঢাকা, শুক্রবার,১৫ ডিসেম্বর ২০১৭

রাজনীতি

রাজশাহীর জয়ে নায়ক অখ্যাত জাকির

নয়া দিগন্ত অনলাইন

১৭ নভেম্বর ২০১৭,শুক্রবার, ১৭:২৪


প্রিন্ট
মুশফিকুর রহিমের সাথে জাকির হাসান (ফাইল ছবি)

মুশফিকুর রহিমের সাথে জাকির হাসান (ফাইল ছবি)

বিপিএলের আজকের ম্যাচে সিলেটকে হারিয়ে রাজশাহীকে দুর্দান্ত এক জয় এনে দিলো অখ্যাত ব্যাটসম্যান জাকির হাসান। অর্জন করেন অসাধারণ এক অর্ধ শতক।

জাকিরের বয়স এখনও ২০ বছর পূর্ণ হয়নি। বাংলাদেশ অনুর্ধ-১৯ দলে মেহেদী হাসান মিরাজদের সঙ্গে খেলেছেন বেশ কিছুদিন। তবে তরুণ প্রতিভাবান ব্যাটসম্যান হিসেবে তার পরিচয় আগেই প্রকাশ হয়েছিল। তাই তাকে দলে টেনে নেয় রাজশাহী কিংস।

কিন্তু কোনো ম্যাচে যে তিনিই জয়ের নায়ক হয়ে যাবেন, সেটা হয়তো কল্পনাতেই ছিল না ২০ বছর ছুঁই ছুঁই এই তরুণের। সিলেট সিক্সার্সের বিপক্ষে আজ সেটা বাস্তবেই করে ফেললেন।

বিপিএলে এবারের আসরে সিলেট পর্বে দুর্দান্ত শুরু করেছিল স্বাগতিক সিলেট সিক্সার্স। নাসির হোসেনের নেতৃত্বে টানা তিন ম্যাচে জয় পেয়েছিল স্বাগতিকরা। এরপর থেকেই যেন জয় ভুলে যেতে বসেছে সিলেট। নিজেদের মাঠে শেষ ম্যাচের পর ঢাকায়ও দুই ম্যাচ সহ টানা মোট তিন ম্যাচই হেরে বসলো নাসির হোসেনের দল।

আজ রাজশাহী কিংসের অখ্যাত জাকিরের কাছেই হারতে হলো তাদের! পয়েন্ট টেবিলের তলানীতে থাকা রাজশাহী সিলেটের বিপক্ষে জয় পেয়েছে ৭ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে।

জয়ের জন্য সিলেটের বেঁধে দেয়া ১৪৭ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে প্রথম থেকেই আগ্রাসী ব্যাটিং করতে থাকেন রাজশাহীর দুই ওপেনার মুমিনুল হক এবং রনি তালুকদার। দু'জনে মিলে গড়েন ৬৫ রানের ধুন্দুমার এক জুটি। এরপর ২২ বলে ২৪ রান করে রনি তালুকদার ফিরে গেলেও এক পাশ আগলে আগ্রাসি ব্যাটিং করে যান মুমিনুল।

এর মধ্যে সামিত প্যাটেল এসে অন্য ম্যাচগুলোর মতই ব্যর্থতার পরিচয় দিয়ে ফিরে যান ১ রান করেই। মুমিনুল তখন জুটি গড়েন উদীয়মান জাকির হাসানের সঙ্গে। গড়েন ৩১ রানের জুটি। তবে ৪২ রান করে মুমিনুল আউট হলেও, শেষ পর্যন্ত উইকেটে ছিলেন জাকির হাসান। ২৬ বলে খেলেন হার না মানা ৫১ রানের ইনিংস। তার স্কোরটি সাজানো ছিল ৪টি বাউন্ডারি এবং ৩টি ছক্কায়।

আর মুমিনুল ৩৬ বলে এক ছক্কা ও পাঁচ চারের সাহায্যে করেন ৪২ রান। রাজশাহীর হয়ে খেলা জাতীয় দলের টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকুর রহীমের ব্যাট থেকেও আসে অপরাজিত ২৫ টি রান। তিনি খেলেন ২০ বল এবং বাউন্ডারি মারেন ৩টি।

সিলেটের হয়ে নাসির হোসেন, নাবিল সামাদ ও আবুল হাসান একটি করে উইকেট নেন। এ জয়ের ফলে রাজশাহী পয়েন্ট টেবিলের তলানী থেকে এক ধাপ উপরে উঠে আসলো আর সিলেট শীর্ষে ওঠার পরিবর্তে দুই নাম্বারে থাকাটাও নড়বড়ে করে দিলো। ম্যাচ সেরার পুরস্কার জেতেন জাকির হাসান।

শেষ ৫ ওভারেই ঝড় তুলল নাসিররা
একে ঝড়-ই বলা যায়। একের পর এক চার আর ছক্কা হাঁকিয়ে দলের মান বাঁচালো সাব্বির রহমান ও ব্রেসনান। শেষ পাঁচ ওভারে এই জুটি তুলেছে ৬৩ রান। নির্ধারিত ওভারের ২ বল আগে আউট হন সাব্বির।

সিলেটের সংগ্রহ ২০ ওভারে ১৪৬ রান।

সাব্বিরের সংগ্রহ ২৬ বলে চার ছক্কা ও ১ বাউন্ডারিতে ৪১ রান। সর্বোচ্চ সংগ্রহ তারই।

আর ব্রেসনানের সংগ্রহ ছিল ১৭ বলে ৪ বাউন্ডারি ও এক ছক্কায় ২৯।

এর আগে টস জিতে সিলেটকে ব্যাট করতে পাঠায় রাজশাহী।

সিলেট সিক্সার্স দল : নাসির হোসেন (অধিনায়ক), উপুল থারাঙ্গা, আন্দ্রে ফ্লেচার, দানুষ্কা গুনাথিলাকা, সাব্বির রহমান, নুরুল হাসান (উইকেটরক্ষক), টিম ব্রেসনান, লিয়াম প্লাংকেট, আবুল হাসান রাজু, তাইজুল ইসলাম ও নাবিল সামাদ।

রাজশাহী কিংস দল : ড্যারেন সামি (অধিনায়ক), মোমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম, রনি তালুকদার, জাতির হোসেন, জেমস ফ্রাঙ্কলিন, সামিত প্যাটেল, মেহেদি হাসান মিরাজ, ফরহাদ রেজা, মোহাম্মদ সামি, ও কেসরিক উইলিয়ামস।

সাব্বিরের তাণ্ডব
এক ওভারে ঝড় তুললেন সাব্বির রহমান। তিন বলে চার-ছক্কার তাণ্ডব চালালেন তিনি। ফরহাদ রেজার ১৭তম ওভারের শেষ তিন বলে পর পর দুই ছক্কা ও এক বাউন্ডারি হাঁকান তিনি। তুলেন ১৬ রান!

এর আগে ওভারের দ্বিতীয় বলে এক ছক্কা হাকান সঙ্গী ব্রেসনান। প্রথম বলে ১ রান নেন সাব্বির। ফলে এক ওভারে এই জুটি তুলে নেন ২৪ রান।

দুইবার জীবন ফিরে পেয়েও পারলেন না নাসির
ফরহাদ রেজার ওভারে পর পর দুইবার জীবন ফিরে পান নাসির হোসেন। কিন্তু তা কাজে লাগাতে পারেননি সিলেট সিক্সার্সের এই অধিনায়ক। ১১ বলে ৯ রানে সাজঘরে ফিরেন তিনি।

ফরহাদের পর পাটেলের ওভারের দ্বিতীয় বলে বোল্ড হন নাসির।

অধিনায়কের বিদায়ের পরই ফিরেন গুনাথিলাকা। ৩৭ বলে ৪০ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলেন তিনি। ফ্রাঙ্কলিনের বলে মমিনুল হকের তালুবন্দি হন গুনাথিলাকা।

টসে জয় রাজশাহীর
টস জিতে সিলেট সিক্সার্সকে ব্যাট করতে পাঠিয়েছে রাজশাহী কিংস। দুপুর ২টায় ম্যাচটি শুরু হয়েছে।
দুই দলেই পরিবর্তন আনা হয়েছে।

রাজশাহী কিংসে ইনজুরি কাটিয়ে দলে ফিরছেন অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি। একাদশে আছেন জাকির হাসান ও সামিত পাটেল। বাদ পড়েছেন লেন্ডল সিমন্স, ম্যালকম ওয়াল্টার ও নিহাদুজ্জামান।

সিলেট সিক্সার্স একাদশে নিয়েছেন নাবিল সামাদ, অ্যান্দ্রে ফ্লেচার ও লিয়াম প্লাঙ্কেটকে। বাদ পড়েছেন রস হোয়াইটলি, অনিন্দু হাসারাঙ্গা ও মোহাম্মদ শরিফ।

এটি সিলেটের সপ্তম ম্যাচ। আগের ৬ খেলা থেকে ৩ জয় ও ২ হারে ৭ পয়েন্ট নিয়ে রান রেটে পিছিয়ে থেকে টেবিলের দ্বিতীয়স্থানে রয়েছে সিলেট।

অন্যদিকে, ৪ ম্যাচে অংশ নিয়ে ১ জয় ও ৩ হারে মাত্র ২ পয়েন্ট নিয়ে রান রেটে পিছিয়ে থেকে টেবিলের তলানিতে রাজশাহী।

এবারের আসরে লিগ পর্বে ইতোমধ্যে মুখোমুখি হয়েছিলো সিলেট ও রাজশাহী। গত ৭ নভেম্বর সিলেট ক্রিকেট স্টেডিয়ামে রাজশাহীকে ৩৩ রানে হারিয়েছিলো সিলেট।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫