ঢাকা, শুক্রবার,১৫ ডিসেম্বর ২০১৭

ফুটবল

রাশিয়া বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হতে পারেন কারা? জানালেন মেসি

নয়া দিগন্ত অনলাইন

১৭ নভেম্বর ২০১৭,শুক্রবার, ১৩:৪২ | আপডেট: ১৭ নভেম্বর ২০১৭,শুক্রবার, ১৫:২২


প্রিন্ট
লিওনেল মেসি

লিওনেল মেসি

আগামী জুনে রাশিয়ায় আয়োজিত বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পথে সবচেয়ে বড় বাধা কোন দেশগুলো? এই ব্যাপারে মুখ খুললেন ক্যাপ্টেন লিওনেল মেসি। তিনি মনে করেন জার্মানি, ব্রাজিল, ফ্রান্স ও স্পেন আগামী বিশ্বকাপে খেতাব জয়ের বড় দাবিদার।

পাঁচবারের ফিফা বর্ষসেরা পুরস্কার পাওয়া মেসি এখনও পর্যন্ত মেজর কোনো ট্রফি আর্জেন্টিনাকে জেতাতে পারেননি। এটাই সম্ভবত তার শেষ সুযোগ। কারণ ২০২২ সালে দোহায় আয়োজিত বিশ্বকাপের সময় মেসির বয়স ৩৪ বছর অতিক্রান্ত হবে। তাই মেসি দলের সহ খেলোয়াড়দের সামনে শ্লোগান তুলছেন, ‘নাও অর নেভার’।

মেসি সম্ভাব্য চ্যাম্পিয়ন হিসেবে যে চারটি দেশের নাম বলেছেন, তার সাথে আর্জেন্টিনাকে যোগ করলে দেখা যাচ্ছে, ওই পাঁচটি দেশ মোট ১৩বার বিশ্বকাপ জিতেছে। সুতরাং ফেবারিট চিহ্নিত করতে মেসি কোনো ভুল করেননি।

তবে ইংল্যান্ডকে হিসেবের মধ্যে রাখেননি মেসি। কারণ ১৯৬৬ সালে নিজেদের দেশে আয়োজিত বিশ্বকাপ জেতার পর থেকে ইংল্যান্ড মাত্র একবার এই প্রতিযোগিতার সেমি-ফাইনালে উঠতে সক্ষম হয়েছিল।

গোটা বিশ্বে সবচেয়ে বেশি নথিভুক্ত ফুটবলার রয়েছে ব্রাজিল, জার্মানি ও মেক্সিকোয়। এমনকী, উরুগুয়েকেও ধর্তব্যের মধ্যে রাখেননি মেসি। অথচ উরুগুয়েও দুইবার বিশ্বকাপ জিতেছে।

সবচেয়ে মজার ব্যাপার হল, ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো নেতৃত্বাধীন পর্তুগাল দলের নাম একবারও উল্লেখ করেননি মেসি। আয়োজক দেশ রাশিয়াও তার বিবেচনায় কোনো জায়গা পায়নি।

বিশ্বকাপের ৩২ প্রতিনিধি

ছয় মহাদেশ। ২০৯ দল। ৮৬৪ ম্যাচ এবং ২৪৫৪ গোলের মহাযজ্ঞ শেষেই চূড়ান্ত হয়েছে আসছে ২০১৮ সালের রাশিয়া বিশ্বকাপের ৩২ প্রতিনিধি। বিউটিফুল গেম ফুটবলের গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’ বিশ্বকাপের আসন্ন আসরের চূড়ান্তপর্বে খেলার যোগ্যতা সবার আগে অর্জন করেছিল ৫ বারের চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল। বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার সকালে সর্বশেষ দল হিসেবে আসন্ন টুর্নামেন্টের টিকিট নিশ্চিত করেছে পেরু। অংশগ্রহণকারী সবগুলো দল চূড়ান্ত হয়ে যাওয়ায় অপেক্ষা এখন রাশিয়া বিশ্বকাপের ড্রর। বাছাইপর্বের নাটকীয়তা শেষে মস্কোর ক্রেমলিন প্যালেসের দিকেই নজর ফুটবল অঙ্গনের। অভিজাত এই প্রসাদেই ১ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে ২০১৮ বিশ্বকাপের অন্যতম বিশ্বকাপের গুরুত্বপূর্ণ ইভেন্ট ড্র অনুষ্ঠান।

বাছাইপর্বের নাটকীয়তা শেষে মূল টুর্নামেন্টের ফেবারিট নির্বাচনে নজর ফুটবল বিশ্লেষকদের। শীর্ষস্থানীয় দলগুলোর সাম্প্রতিক নৈপুণ্য ও দলীয় শক্তিমত্তা প্রাধন্য পেয়েছে তাদের শিরোপা জয়ের সম্ভাব্য দলগুলোকে বেছে নেয়ায়। সবার বিচারেই ২০১৮ সালের বিশ্বকাপের হট ফেবারিট তকমা দখলে গেছে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ব্রাজিলের। দারুণ ফর্মে থাকা সেলেকাও খ্যাত পেলের উত্তরসূরি দলটির বর্তমান জেনেরেশনের ফুটবলাররা সম্প্রতি আলোচনায় জায়গা করে নেন মাঠের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে। বর্তমান কোচ টিটে দায়িত্ব গ্রহণের পর অনেকটা রাতারাতিই পাল্টে গেছে ব্রাজিল। বাছাইপর্ব টপকে সবার আগে রাশিয়া টিকিট অর্জনের কৃর্তিত্বও দেখায় লাতিন জায়ান্টরা। সাবেক বার্সেলোনা তারকা নেইমারসহ ইউরোপীয় কাব ফুটবলের এক ঝাঁক তারকায় ঠাসা দল ব্রাজিল। দলটির প্রতিটি পজিশনেই উপস্থিতি রয়েছে পরীক্ষিত সব পারফরমারদের।

ব্রাজিলের পরই রাশিয়া বিশ্বকাপ জয়ের ফেবারিট জার্মানি। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন দলটিতে কিছুটা হলেও অভিজ্ঞ ফুটবলারদের ঘাটতি রয়েছে। ২০১৪ সালে তাদের বিশ্বকাপ জয়ে এক্স ফ্যাক্টর ভূমিকা পালন করেন অধিনায়ক লাম ও মিডফিল্ডার বাস্তেন শোয়াইন্সটাইগার রাশিয়া বিশ্বকাপে দেখা যাবে না।

মূলত তারুণ্যনির্ভর জার্মান দলই অংশ নেবে রাশিয়া বিশ্বকাপে। ২০১০ সালের চ্যাম্পিয়ন টিকি টাকা ফুটবলের ধারক-বাহক স্পেন আসন্ন রাশিয়া বিশ্বকাপের তৃতীয় ফেবারিট। তারুণ্য ও অভিজ্ঞতার মিশেলে গঠিত স্প্যানিশ দলটির প্রধান টার্গেট গত বিশ্বকাপের দুঃস্বপ্নে ভরা পারফরম্যান্সকে পেছনে ফেলে শ্রেষ্ঠত্ব পুনরুদ্ধার।

বিশ্বকাপের ৩২ দেশ

আয়োজক : রাশিয়া

এশিয়া অঞ্চল : অস্ট্রেলিয়া, ইরান, জাপান, সৌদি আরব ও দক্ষিণ কোরিয়া।

আফ্রিকা অঞ্চল : নাইজেরিয়া, মিসর, মরক্কো, সেনেগাল ও তিউনেসিয়া।

কনকাকাফ অঞ্চল : মেক্সিকো, কোস্টারিয়া ও পানামা।

দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চল : ব্রাজিল, উরুগুয়ে, কলম্বিয়া, আর্জেন্টিনা ও পেরু।

ইউরোপীয় অঞ্চল : বেলজিয়াম, জার্মানি, স্পেন, ফ্রান্স, পর্তুগাল,আইসল্যান্ড, সুইডেন, পোল্যান্ড, সার্বিয়া, ক্রোয়েশিয়া, ডেনমার্ক, সুইজারল্যান্ড ও ইংল্যান্ড।

সদ্যসমাপ্ত রাশিয়া বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে সবচেয়ে বেশি গোল করার কৃর্তিত্ব অস্ট্রেলিয়ার দখলে। ২০ ম্যাচে তারা করেছে ৪৮ গোল। তবে ম্যাচপ্রতি গড়ে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড গড়েছে ইউরোপের অন্যতম আলোচিত দল বেলজিয়াম। অ্যাটাক নির্ভর দলটির ম্যাচপ্রতি গোলের গড় ৪ দশমিক ৩। ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ও লায়নেল মেসির মতো স্ট্রাইকারকে টপকে বাছাইপর্বের সর্বোচ্চ গোলের কৃর্তিত্ব দখল করেছেন পোলিশ স্ট্রাইকার রর্বাট লেমনডস্কি। জার্মান জায়ান্ট বার্য়ান মিউনিখের স্ট্রাইকার ম্যাচে করেন সর্বোচ্চ ১৬ গোল।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫