দিল্লি ভারতের রাজধানী নয়?

নয়া দিগন্ত অনলাইন

দিল্লি যে ভারতের রাজধানী, সেটা কি সংবিধানে বলা আছে? নাকি সংসদে এ নিয়ে কোনো আইন পাশ হয়েছে? সুপ্রিম কোর্টের সামনে এ প্রশ্নই রাখল দিল্লির অরবিন্দ কেজরিওয়ালের সরকার।

বিশেষ কিছু ক্ষেত্রে প্রশাসনিক ক্ষমতা প্রয়োগের চেষ্টায় দিল্লি সরকারের পক্ষ থেকে শীর্ষ আইনজীবী ইন্দিরা জয়সিং সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র, বিচারপতি একে সিক্রি, এএম খানউইলকর, ডিওই চন্দ্রচূড় ও অশোক ভূষণের বেঞ্চের কাছে বক্তব্য তুলে ধরেন। 

তিনি বলেন, ‘রাজধানী কোনো আইন দ্বারা স্বীকৃত নয়। কাল কেন্দ্র অন্য কোথাও রাজধানী সরিয়ে নিয়ে যেতে পারে। দিল্লিই যে রাজধানী সেটা সংবিধানেও কোথাও বলা নেই। আমরা জানি ব্রিটিশরা কলকাতা থেকে রাজধানী সরিয়ে এনেছিল দিল্লিতে। ন্যাশনাল ক্যাপিটল টেরিটোরি অফ দিল্লি অ্যাক্ট (এনসিটি) আছে। তবে এতেও দিল্লিকে রাজধানী হিসেবে চিহ্নিত করা হয়নি।’

তিনি আরও বলেন, এনসিটির উপর কেন্দ্রীয় সরকার ও দিল্লি সরকার উভয়েরই কর্তৃত্ব থাকবে কি না সেটাই বড় প্রশ্ন। কেজরিওয়াল সরকার যাতে সহজভাবে কাজ করতে পারে, সে জন্য প্রশাসনিক ক্ষমতার ক্ষেত্রে কেন্দ্র ও দিল্লি সরকারের মধ্যে ক্ষমতার সমান বিভাজন প্রয়োজন। বিশেষত সমাজকল্যাণমূলক পরিষেবাগুলোর ক্ষেত্রে এটি সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন।

জবাবে শীর্ষ আদালতের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, সব রাজ্যকেই কেন্দ্রের সঙ্গে সমঝোতার সঙ্গে কাজ করতে হবে। প্রশানিক ক্ষমতায় বিভাজনের কথা কোনো আইনেই বলা নেই।

সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.