ঢাকা, শনিবার,১৮ নভেম্বর ২০১৭

ইউরোপ

পরমাণু যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছে ন্যাটো!

নয়া দিগন্ত অনলাইন

১২ নভেম্বর ২০১৭,রবিবার, ১১:৪১ | আপডেট: ১২ নভেম্বর ২০১৭,রবিবার, ১১:৪৭


প্রিন্ট
রাশিয়ার অভিযোগ, মার্কিন নেতৃত্বাধীন পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটো পরমাণু যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছে

রাশিয়ার অভিযোগ, মার্কিন নেতৃত্বাধীন পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটো পরমাণু যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছে

রাশিয়া অভিযোগ করেছে, মার্কিন নেতৃত্বাধীন পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটো পরমাণু যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছে। রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু এই অভিযোগ করেছেন বলে জানিয়েছে মস্কো থেকে প্রকাশিত দৈনিক ‘নাজাভিসিমা গেজেটা’।

সের্গেই শোইগু বলেন, ন্যাটো পারমাণবিক যুদ্ধ শুরু করতে চায় এবং এ লক্ষ্যেই ওই জোট রাশিয়া ও বেলারুশের মধ্যে অনুষ্ঠিত সামরিক মহড়ার বিরুদ্ধে উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়েছে।

গত সেপ্টেম্বর মাসে বেলারুশের একটি অঞ্চলের পাশাপাশি রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গ বন্দরের কাছে 'জাপাদ-২০১৭' নামের যৌথ মহড়া চালায় মস্কো ও মিনস্ক। ন্যাটো জোটের পক্ষ থেকে ওই মহড়ার ব্যাপারে নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া জানানো হয়।

এ সম্পর্কে রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী আরো বলেন, তার দেশের সীমান্তে মার্কিন নেতৃত্বাধীন ন্যাটো জোট যে ক্রমবর্ধমান সামরিক তৎপরতা চালাচ্ছে তাকে ধামাচাপা দেয়ার জন্যই জাপাদ-২০১৭’র বিরুদ্ধে অযথা হৈ চৈ শুরু করেছে পশ্চিমা গণমাধ্যমগুলো।

শোইগু বলেন, এমন সময় রাশিয়া ও বেলারুশের যৌথ সামরিক মহড়া বিরোধী প্রচারণা চালানো হচ্ছে যখন এই দুই দেশের সীমান্তে সামরিক শক্তি বৃদ্ধি করেছে ন্যাটো; এমনকি তারা পরমাণু অস্ত্রও মোতায়েন করেছে।

রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, রাশিয়ার পশ্চিম সীমান্তে নতুন নতুন সামরিক ও বিমান ঘাঁটি নির্মাণ করছে মার্কিন নেতৃত্বাধীন ন্যাটো জোট। ন্যাটোর এই তৎপরতা আঞ্চলিক স্থিতিশীলতাকে বিপদের মুখে ঠিলে দেবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

সিরিয়া সঙ্কটের রাজনৈতিক সমাধানে ট্রাম্প-পুতিন মতৈক্য

সিরিয়া সঙ্কট নিরসনে যৌথ উদ্যোগে একটি রাজনৈতিক সমাধানে পৌঁছতে সম্মত হয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। ভিয়েতনামে এপেক সম্মেলনের ফাঁকে অনুষ্ঠিত বৈঠক শেষে এক যৌথ বিবৃতিতে এ কথা জানিয়েছেন দুই নেতা।

ভিয়েতনামের দানাং নগরীতে বৈঠকের পর দেয়া বিবৃতিতে দুই নেতা সিরিয়া সঙ্কটের রাজনৈতিক সমাধানের আহ্বান জানিয়ে আইএসের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র-রাশিয়ার যৌথ লড়াই অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন। বৈঠকের পর দানাং থেকে ভিয়েতনামের রাজধানী হ্যানয় যাওয়ার পথে এয়ারফোর্স ওয়ানে ট্রাম্প সাংবাদিকদের বলেন, এর ফলে অসংখ্য লোকের জীবন রক্ষা পাবে।

পুতিনের সাথে বৈঠকের বিষয়ে ট্রাম্প বলেন, ‘আমরা দ্রুতই সিদ্ধান্ত নিয়েছি। দু'জনেরই বেশ ভালো লাগছে। পরস্পরকে ভালো করে না জানলেও আমাদের সম্পর্কটা দারুণ।’ আর বৈঠকের পর ট্রাম্প সম্পর্কে ভ্লাদিমির পুতিন বলেন, ‘তিনি চমৎকার একজন মানুষ, যার সাথে আলোচনা করাটাও উপভোগ্য।’

পুতিন বলেন, ‘আমরা পরস্পরের সম্পর্কে খুব কম জানি কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট আচরণে অত্যন্ত মার্জিত ও বন্ধুত্বপূর্ণ। দুর্ভাগ্যবশত আমাদের বৈঠকের সময় ছিল সীমিত।’

এ দিকে মার্কিন প্রেসিডেন্টের সাথে সংক্ষিপত আলোচনার পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে হস্তক্ষেপের অভিযোগে অপমান বোধ করেছেন ভ্লাদিমির পুতিন। ট্রাম্প বলেন, ‘আপনারা অনেকবার জিজ্ঞাসা করতে পারেন। তিনি নিশ্চয়তা দিয়ে বলেছেন, আমাদের নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করেননি তিনি।’

২০১৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপ অভিযোগকে ‘কল্পকাহিনী’ বলে অভিহিত করেছেন প্রেসিডেন্ট পুতিন। তবে অভিযোগ নিয়ে তদন্ত করছে এফবিআই, কংগ্রেশনাল তদন্ত কমিটি ও বিচার বিভাগ। চলমান তদন্তে রাশিয়ার সাথে আঁতাতে জড়িত থাকার সন্দেহে এরই মধ্যে ট্রাম্পের কয়েকজন ঘনিষ্ঠ সহযোগীর নাম প্রকাশ করা হয়েছে। বেরিয়ে আসছে আরো নতুন নতুন তথ্য। এ নিয়ে চরম চাপের মুখে রয়েছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

বৈঠক ছাড়াও দানাংয়ে এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অর্থনৈতিক সহযোগিতা সংস্থার (এপেক) তিন দিনব্যাপী শীর্ষ সম্মেলন চলাকালীন ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ভ্লাদিমির পুতিনের মধ্যে তিনবারের সংক্ষিপ্ত দেখায় কিছু কথাও হয়েছে। প্রতিবার সাক্ষাতের সময় তাদের হাস্যোজ্জ্বল দেখা গেছে। দু'জনে একই ধরনের নীলরঙের শার্ট পরে পাশাপাশি দাঁড়িয়ে ছবি তুলেছেন। তাদের মধ্যে উষ্ণ শুভেচ্ছা বিনিময় হয়েছে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫