ঢাকা, বৃহস্পতিবার,২৩ নভেম্বর ২০১৭

বিবিধ

চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩৫ বছর করার দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক

১১ নভেম্বর ২০১৭,শনিবার, ১৮:৩৭


প্রিন্ট

উন্নত বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩৫ বছর করা প্রয়োজন বলে অভিমত ব্যক্ত করেছেন
বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

এর কারণ হিসাবে তারা বলেছেন, উন্নত বিশ্বকে অনুসরণ করে আমরা শিক্ষা, চিকিৎসা, কৃষি, তথ্যপ্রযুক্তি, জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ ইত্যাদি ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জন করেছি। তেমনি চাকরিতে প্রবেশের ক্ষেত্রে উন্নত বিশ্বকে অনুসরণ করে দক্ষ জনশক্তিকে কাজে লাগিয়ে সফলতা অর্জন করতে পারি।

জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সমাবেশে বক্তারা এমন অভিমত ব্যক্ত করা হয়।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী ফাতেমা বিনতে মোবারক মুন বলেন, বর্তমান রাষ্ট্রপতি স্পিকার থাকা অবস্থায় ৩১ জানুয়ারি ২০১২ সালে সংসদে চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩৫ বছর করতে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। কিন্তু যুব সমাজ আশার আলো দেখেনি।

একই বিশ্ববিদ্যালয়ের অপর ছাত্রী আছিয়া সুলতানা শিশির বলেন, নবম জাতীয় সংসদের ১৪তম অধিবেশনে চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩৫ বছর করার প্রস্তাব গৃহীত হয়। শিগগিরই এর বাস্তবায়ন চাই।

ইডেন কলেজের ছাত্রী নাসরিন আক্তার বলেন, গড় আয়ু যখন ৪৫ ছিল তখন চাকরিতে প্রবেশের বয়স ছিল ২৭। যখন ৫০ ছাড়ালো তখন প্রবেশের বয়স ৩০ হলো। বর্তমানে গড় আয়ু ৭২ বছর হলে চাকরিতে প্রবেশের বয়স এখন কতো হওয়া উচিত?

সরকারি তিতুমীর কলেজের ছাত্রি কলি দাস বলেন, সরকারি নিয়ম অনুসরণ করার ফলে বেসরকারি ব্যাংকসহ বহুজাতিক কোম্পানিগুলোও অভিজ্ঞতা ছাড়া ৩০ বছরের ঊর্ধ্বে জনবল নিয়োগ দেয় না। ফলে বেসরকারি ক্ষেত্রেও কর্মের সুযোগ সংকুচিত হচ্ছে।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী পিংকি বলেন, উন্নত বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে চলার জন্য চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩৫ বছর করা প্রয়োজন।

শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী লুবনা ইয়াসমিন বলেন, গত ২৭ বছরে দেশের সব ক্ষেত্রে পরিবর্তন হলেও সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীদের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়নি।

বাংলাদেশ ছাত্র পরিষদের মহিলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী শেফালি সুমি বলেন, উন্নত বিশ্বে কোথাও চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩০ নেই। ভারতে ৩৯, শ্রীলংকায় ৪৫, মালয়েশিয়ায় ৩৫, ইন্দোনেশিয়ায় ৪৫, সিঙ্গাপুরে ৪০, সুইডেনে ৪৭, কাতারে ৩৫, নরওয়েতে ৩৫, ফ্রান্সে ৪০, যুক্তরাষ্ট্রে ৫৯, কানাডায় ৫৯, দক্ষিণ আফ্রিকায় ৪০, আফ্রিকা মহাদেশের বিভিন্ন দেশে চাকরিতে প্রবেশের নির্দিষ্ট কোনো বয়সসীমা নেই।

সমাবেশে আরো বক্তব্য দেন, ছাত্রপরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আলামিন রাজু, সিনিয়র সহসভাপতি সঞ্জয় দাস, সাধারণ সম্পাদক সবুজ ভূঁইয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক নিত্যানন্দ সরকার, যুগ্মসম্পাদক হারুন-অর-রশিদ, প্রচার সম্পাদক আমিরুল ইসলাম সেলিম, শফিক রহমান, বিনয় বিশ্বাস, আলী রেজা রাজু, রাকিবুল হাসান, শাহদাৎ হোসেন, ইসুফ ইলিয়াস, শাখাওয়াত শামিম, সুমি আক্তার প্রমুখ।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫