ঢাকা, শনিবার,১৮ নভেম্বর ২০১৭

বিবিধ

উদ্ধার উদ্ধার খেলা নয়, খালখেকোদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাও : পবা

নিজস্ব প্রতিবেদক

১১ নভেম্বর ২০১৭,শনিবার, ১৮:১৬ | আপডেট: ১১ নভেম্বর ২০১৭,শনিবার, ১৮:১৯


প্রিন্ট

উদ্ধার উদ্ধার খেলা নয়, খালখেকোদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়ার দাবি উঠেছে পরিবেশবাদিদের পক্ষ থেকে। তারা বলেছেন, অপরিকল্পিত নগরায়নসহ ভূমিদস্যুদের বেপরোয়া কার্যক্রমে প্রায় বিলীন হয়ে যাচ্ছে ঢাকার খালগুলো। দখল ও দূষণে ক্রমেই সংকুচিত হয়ে আসছে খালগুলো। সরকার খাল উদ্ধারে কিছু ভূমিকা রাখলেও প্রভাবশালী ও স্বার্থান্বেষী মহল আবার দখল করছে।

শাহাবাগের চারুকলা অনুষদের সামনে পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন (পবা), নাগরিক সংরক্ষণ ফোরামসহ (নাসফ) ১৩টি সংগঠনের উদ্যোগে ‘খাল উদ্ধার কর ও খালখেকোদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাও’ দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধনে নেতৃবৃন্দ এসব বলেন।

নাগরিক সংরক্ষণ ফোরামের (নাসফ) সভাপতি হাফিজুর রহমান ময়নার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন পবা’র চেয়ারম্যান আবু নাসের খান, নাসফের সাধারণ সম্পাদক তৈয়ব আলী, পবা’র সম্পাদক ফেরদৌস আহম্মেদ উজ্জ্বল, সহ-সম্পাদক এম এ ওয়াহেদ, ব্যারিস্টার নিশাত মাহমুদ, মো. সেলিম, সুবন্ধন সমাজ কল্যাণ সংগঠনের সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবিব, ইয়ুথ সানের সভাপতি মাকিবুল হাসান বাপ্পী, বিডি ক্লিকের সভাপতি আমিনুল ইসলাম টুব্বুস, বানিপা’র সভাপতি আনোয়ার হোসেন, সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপক হুমায়ন কবির হিরু, কবি কামরুজ্জামান ভূঁইয়া, মাহবুবুল হক, আনসার অালী, নাসফের সাংগঠনিক সম্পাদক অহিদুর রহমান, প্রকৌশলী কামাল পাশা, বুরহান উদ্দিন আহমেদ প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, ঢাকা শহরের ভেতরের ও চারপাশের খালগুলো রক্ষা এবং সচল করতে না পারলে জলাশয়বিহীন রাজধানীর জনপদ ও জনজীবনের জন্য তা বিপদের কারণ হয়ে উঠবে। দেখা দিবে ভূমিকম্প, ক্ষতিগ্রস্ত হবে জীববৈচিত্র্য। ভূগর্ভস্থ পানি নিচে নেমে যাওয়া, তাপমাত্রা বৃদ্ধিসহ নানা পরিবেশ সংকটের জন্ম দেবে। ইতোমধ্যে সংকট শুরু হয়ে গেছে।

তারা বলেন, খাল ও জলাশয় কেবল মহানগরীর পানি ও বর্জ্য চলাচলের জন্যই প্রয়োজন নয়, জলাবদ্ধতা সমস্যা নিরসন, ভূগর্ভস্থ পানির স্তর ঠিক রাখা, তাপমাত্রার ভারসাম্য বজায় রাখাসহ অন্যান্য প্রাকৃতিক ও মানবসৃষ্ট সমস্যার সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

মানববন্ধন থেকে বক্তারা বলেন, খালের জায়গায় নতুন করে যাতে কোনো স্থাপনা গড়ে উঠতে না পারে তার ব্যবস্থা নিতে হবে। অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে খালের পানির প্রবাহ নিশ্চিত করতে হবে।

তারা বলেন, জলাশয় রক্ষায় বিদ্যমান আইন নীতিমালা সংশোধন ও তার বাস্তবায়নসহ সঠিকভাবে খালগুলোর সীমানা নির্ধারণ সাপেক্ষে সাইনবোর্ড স্থাপন করতে হবে। অবৈধ দখলদারদের চিহ্নিত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। খালসহ সব জলাশয়ে ময়লা আবর্জনা ফেলা বন্ধ করতে হবে এবং সেই সাথে খাল ভরাট করে রাস্তা নির্মাণ বন্ধ করতে হবে। তাছাড়াও পানির প্রবাহ স্বাভাবিক, দখল ও আচ্ছাদিত খাল পুনঃরুদ্ধার করতে হবে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫