আত্মগোপনে থাকাদের উদ্ধার করা কষ্টকর : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, মানুষ নিখোঁজ হয়ে যাবে আর আইন শৃংখলা বাহিনী ও গোয়েন্দা সদস্যরা বসে থাকবে তা হতে পারে না। যারা নিখোঁজ আছেন তাদের সবাইকে খুঁজে বের করা হবে। তবে যারা আত্মগোপনে রয়েছেন তাদের খুঁজে বের করা আইনশৃংকলা বাহিনীর জন্য কষ্টকর।

আজ বুধবার বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন (ক্র্যাব) সংস্কার করা কার্যালয় উদ্বোধন ও সংগঠনটির সদস্যদের পরিচয়পত্র প্রদান উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

ক্র্যাব সভাপতি আবু সালেহ আকনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অথিতি ছিলেন আইএফআইসি ব্যাংকের এমডি শাহ আলম সারওয়ার, ইউরো বাংলা আবাসন লিমিটেডের এমডি নাজমুল হক, ডিএমপি’র ডিসি মিডিয়া মাসুদুর রহমান।
এছাড়া সিনিয়র সাংবাদিক ও পুলিশের ঊর্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সারোয়ার আলম।

মন্ত্রী বলেন, অনেকে ইচ্ছা করে আত্মগোপনে গিয়ে সরকারকে বিব্রত করছে। আত্মগোপনে থাকা কাউকে খুঁজে বের করা কষ্ট সাধ্য। তবে যারা নিখোঁজ হচ্ছে তাদের উদ্ধারের জন্য আইনশৃংখলা বাহিনী কাজ করছে। তবে যাই ঘটুক না কেন, নিখোঁজরা তাড়াতাড়ি ফিরে আসবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

নিখোঁজ সাংবাদিক উৎপল নিখোঁজ হয়েছেন না কি এর পেছনে অন্য কোনো কারণ রয়েছে সে ব্যপারে তদন্ত করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

পুলিশ সদস্যদের অনিয়ম ও দুর্নীতির বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, শুধু পুলিশ নয়, যারাই অনিয়ম করছে, তাদের বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। তাদের বিচারের আওতায় আনা হচ্ছে। কেউই ছাড় পাচ্ছে না।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের গণমাধ্যমকর্মীদের প্রশংসা করে বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুটি মিডিয়াগুলো সঠিকভাবে তুলে ধরার জন্যই বিশ্ব বিষয়টি জানতে পেরেছে। শুধু তাই নয়, সাংবাদিকদের লেখনির কারণেই সুন্দরবনে জলদস্যুদের প্রতিরোধ করা সম্ভব হয়েছে। সাংবাদিকরা কাজ করছেন বলেই আইনশংখলা বাহিনীর সদস্যদের জন্য অনেক সহজ হয়ে যাচ্ছে। সাংবাদিকদের ত্যাগ, উপকার সবাই মনে রাখে ও স্বীকার করে। যার কারণে মানুষ আপনাদের সম্মান করে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.