শীর্ষ ১০ থেকে ছিটকে গেলেন মারে, জকোভিচ

নয়া দিগন্ত অনলাইন

এক বছরেরও বেশি সময় পরে এটিপি বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ ১০জনের তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন এন্ডি মারে ও নোভাক জকোভিচ।
কোমরের ইনজুরির কারনে গত জুলাই থেকে কোর্টের বাইরে রয়েছেন ৩০ বছর বয়সী মারে। সে কারনেই এই বৃটিশ তারতা তৃতীয় স্থান থেকে একেবারে ১৬তম স্থানে নেমে গেছেন। ২০১৪ সালের অক্টোবরে সর্বশেষ র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ দশজনের বাইরে ছিলেন মারে। তিনবারের গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী মারে সর্বশেষ উইম্বলডনে কোর্টে নেমেছিলেন। ঐ আসরে যুক্তরাষ্ট্রের স্যাম কুয়েরির কাছে পরাজিত হয়ে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে তাকে বিদায় নিতে হয়। এরপরই স্প্যানিশ তারকা রাফায়েল নাদালের কাছে তিনি র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষস্থানটি হারান। গত সপ্তাহে প্যারিস মাস্টার্সে নাদাল বছরের শেষ শীর্ষস্থানটি দখল করেছেন।

মঙ্গলবার গ্ল্যাসগোতে বিশ্বের দুই নম্বর খেলোয়াড় রজার ফেদেরারের বিপক্ষে একটি চ্যারিটি ম্যাচে অংশ নিবেন মারে। এরপরই অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের প্রস্তুতি হিসেবে জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে ব্রিসবেন ওপেনে কোর্টে নামবেন।
অন্যদিকে কনুইয়ের ইনজুরির কারনে জকোভিচও উইম্বলডনের পর থেকে বিশ্রামে রয়েছেন। উইম্বলডনের কোয়ার্টার ফাইনালে টমাস বার্ডিচের বিপক্ষে তিনি ইনজুরির কারনে ম্যাচ শেষ করতে পারেননি। ১২ বারের গ্র্যান্ড স্ল্যাম বিজয়ী এই সার্বিয়ান তারকা পাঁচ ধাপ নীচে নেমে র‌্যাঙ্কিংয়ের ১২তম স্থানে থেকে বছর শেষ করেছেন। ২০০৭ সালের মার্চ মাসের পরে এটাই জকোভিচের সর্বনিম্ন অবস্থান। আগামী মাসে আবু ধাবীতে ওয়ার্ল্ড টেনিস চ্যাম্পিয়নশীপের মাধ্যমে কোর্টে ফেরার আশা করছেন জকোভিচ।

প্যারিস মাস্টার্সের ফাইনালে ফিলিপ ক্রাজিনোভিচকে ৫-৭, ৬-৪, ৬-১ গেমে পরাজিত করে প্রথমবারের মত শিরোপা দখল করা যুক্তরাষ্ট্রের জ্যাক সক ১৩ ধাপ উপরে উঠে এটিপি চার্টের নবম স্থানে উঠে এসেছেন। প্যারিসে শিরোপা জয়ের কারনে আগামী সপ্তাহে লন্ডনে অনুষ্ঠিত ওয়ার্ল্ড ট্যুর ফাইনালেও শেষ খেলোয়াড় হিসেবে জায়গা করে নিয়েছেন সক।
হাঁটুর ইনজুরির কারনে প্যারিস মাস্টার্সের কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে আকস্মিক নাম প্রত্যাহার করে নেয়া ১৬বারের স্ল্যাম বিজয়ী নাদালের লন্ডনে খেলা নিয়ে শঙ্কা রয়েছে।

এটিপি বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং :
১. রাফায়েল নাদাল (স্পেন) ১০৬৪৫ রেটিং পয়েন্ট
২. রজার ফেদেরার (সুইজারল্যান্ড) ৯০০৫
৩. আলেক্সান্দার জেভরেভ (জার্মানী) ৪৪১০
৪. ডোমিনিক থেইম (অস্ট্রিয়া) ৩৮১৫
৫. মারিন চিলিচ (ক্রোয়েশিয়া) ৩৮০৫
৬. গ্রিগর দিমিত্রভ (বুলগেরিয়া) ৩৬৫০
৭. স্ট্যান ওয়ারিঙ্কা (সুইজারল্যান্ড) ৩১৫০
৮. ডেভিড গোফিন (বেলজিয়াম) ২৯৭৫
৯. জ্যাক সক (যুক্তরাষ্ট্র) ২৭৬৫
১০. পাবলো কারেনো (স্পেন) ২৬১৫।

 

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.