ঢাকা, বৃহস্পতিবার,২৩ নভেম্বর ২০১৭

সংগঠন

৩২৭ পৌরসভায় কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কর্মবিরতি পালন

নিজস্ব প্রতিবেদক

০৬ নভেম্বর ২০১৭,সোমবার, ১৮:২৭


প্রিন্ট

রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে পেনশনসহ বেতন-ভাতা ও অন্যান্য সুযোগ সুবিধা প্রদানের দাবিতে আজ সোমবার সারাদেশের ৩২৭টি পৌরসভায় অর্ধদিবস কর্মবিরতি পালন করেছে পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। বাংলাদেশ পৌরসভা সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের ব্যানারে সারাদেশে একযোগে সকাল থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

কেন্দ্রীয় সভাপতি আব্দুল আলিম মোল্লা ফরিদপুর ও রাজবাড়ী পৌরসভায় কর্মবিরতিতে অংশগ্রহণ করেন।

এ সময় তিনি বলেন, সারা দেশে ৩২৭টি পৌরসভার বেশিরভাগ কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়মিত বেতন-ভাতা পাচ্ছেন না। বিভিন্ন পৌরসভায় দুই থেকে ৫৬ মাস পর্যন্ত বেতন-ভাতাদি বকেয়া রয়েছে। চাকরি শেষে তারা পেনশনও পাচ্ছেন না। এজন্য কর্মকর্তা-কর্মচারীরা মানবেতর জীবন যাপন করছেন। অবসরে যাওয়া কর্মকর্তা-কর্মচারীরা অর্ধাহারে ও চিকিৎসা সেবা না পেয়ে ধুঁকে ধুঁকে মারা যাচ্ছে। পরিবার ও সন্তানদের ভবিষ্যৎ অন্ধকার। এজন্য গত কয়েকবছর ধরে আমরা বেতন-ভাতা ও পেনশনসহ অন্যান্য সুযোগ সুবিধা রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে প্রাপ্তির দাবিতে মানববন্ধন, স্বারকলিপি প্রদান, বিভাগীয় সমাবেশ, সাংবাদিক সম্মেলনসহ নানা কর্মসূচি পালন করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সু-দৃষ্টি কামনা ও আমাদের যৌক্তিক দাবি মেনে নিতে আহ্বান করেছি। কিন্তু এ পর্যন্ত কোনো দাবি বাস্তবায়ন হয়নি।

তিনি আরো বলেন, পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সরকারের সংবিধানের ৫৯(২) অনুচ্ছেদ অনুসারে সরকারি কর্মচারী হওয়া স্বত্ত্বেও রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে বেতন ভাতা না পেয়ে বৈষম্যের শিকার হয়ে আসছেন। দেশের মোট প্রবৃদ্ধির ৬৫% শহর অঞ্চল হতে আসে। যা পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অবদানের ফসল। অথচ সেই কর্মকর্তা-কর্মচারীরাই রাষ্ট্রীয় কোষাগারের বেতন-ভাতা হতে বঞ্চিত।

তিনি প্রধানমন্ত্রী, স্থানীয় সরকার মন্ত্রী ও সচিবের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে বলেন, অবিলম্বে যৌক্তিক দাবি মেনে নিন।

এ সময় তিনি জানান, আগামী ১৩ নভেম্বর একই দাবিতে সারাদেশে দিনব্যাপী কর্মবিরতি পালন করা হবে।

 

 

অন্যান্য সংবাদ

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫