ঢাকা, বৃহস্পতিবার,২৩ নভেম্বর ২০১৭

নির্বাচন

রংপুর সিটি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা

নিজস্ব প্রতিবেদক

০৫ নভেম্বর ২০১৭,রবিবার, ১৩:৪৩ | আপডেট: ০৫ নভেম্বর ২০১৭,রবিবার, ১৪:২০


প্রিন্ট
রংপুর সিটি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা

রংপুর সিটি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা

রংপুর সিটি কর্পোরেশন (রসিক) নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে। আগামী ২১ ডিসেম্বর ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

আজ রোববার বেলা পৌনে ২টার দিকে রাজধানীর আগারগাঁওস্থ নির্বাচন কমিশন ভবনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা এ তফসিল ঘোষণা করেন।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ২২ নভেম্বর। বাছাইয়ের তারিখ ২৫ ও ২৬ নভেম্বর। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ৩ ডিসেম্বর।

বর্তমান ইসি কে এম নুরুল হুদার নেতৃত্বাধীন কমিশনের তত্ত্বাবধানে এটি হবে দেশের মধ্যে দ্বিতীয় এবং রংপুর সিটি করপোরেশনেরও দ্বিতীয় নির্বাচন। দলীয় প্রতীকেই মেয়র পদে অনুষ্ঠিত হবে এই ভোট।

ইতোমধ্যেই এই সিটি করপোরেশন নির্বাচনের জন্য জাতীয় পার্টির প্রেসিডেন্ট হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ রংপুর মহানগর জাতীয় পার্টির সভাপতি মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফাকে লাঙল প্রতীকে মনোনয়ন দিয়েছেন। তিনি অনেক দিন থেকে মাঠে তার নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছেন। এর পাশাপাশি এরশাদের ভাতিজা সাবেক এমপি আসিফ শাহরিয়ারও মেয়র পদে নির্বাচনের জন্য প্রচারণা চালাচ্ছেন। তিনিও লাঙল প্রতীকের জন্য দেনদরবার করছেন বলে তার পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে।

অন্য দিকে আওয়ামী লীগ এখনো মনোনয়ন কাউকে নির্দিষ্ট করে দেয়নি। তবে মনোনয়নের জন্য রংপুর সিটির বর্তমান মেয়র সরফুদ্দীন আহম্মেদ ঝন্টু, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য চৌধুরী খালেকুজ্জামান, মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি সাফিউর রহমান সফি, মহানগর সাধারণ সম্পাদক তুষার কান্তি মণ্ডল, জেলা আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ আবুল কাশেম, মহানগর আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক রেজাউল ইসলাম মিলন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের জেলা কমান্ডার মোসাদ্দেক হোসেন বাবলু, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপকমিটির সাবেক সহসম্পাদক রাশেক রহমান চেষ্টা করছেন। এর বাইরে সাবেক পৌরমেয়র এ কে এম আব্দুর রউফ মানিক এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের সাবেক উপপরিচালক ড. জয়নাল আবেদীনও আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেতে দৌড়ঝাঁপ অব্যাহত রেখেছেন।

বিএনপির মনোনয়ন পেতে জেলা যুবদলের সভাপতি নাজমুল আল নাজু, মহানগর বিএনপির সহসভাপতি কাওছার জামান বাবলা দৌড়ঝাঁপ করছেন। তারা বিলবোর্ড, ফেস্টুন, প্রচারণাপত্র ও জনসংযোগ চালাচ্ছেন। তবে এখানে মহানগর বিএনপির সভাপতি মোজাফফর হোসেন, সেক্রেটারি শহিদুল ইসলাম মিজু এবং সাবেক সাধারণ সম্পাদক সামসুজ্জামান সামু দৃশ্যমান কোনো প্রচারণা না চালালেও কেন্দ্র থেকে তাদের ক্ষেত্রে মনোনয়নের ব্যাপারে আলাপ-আলোচনা হচ্ছে বলে দলীয় সূত্র জানিয়েছেন।

গত ১ নভেম্বর নির্বাচন কমিশনের নির্বাচন পরিচালনা শাখার যুগ্মসচিব (চলতি দায়িত্ব) ফরহাদ আহম্মদ খান চিঠি দিয়ে রংপুর বিভাগীয় কমিশনারকে ৩ নভেম্বর রাত ১২টার মধ্যে সম্ভাব্য প্রার্থীদের নিজ উদ্যোগে প্রচারণাসামগ্রী সরিয়ে ফেলার নির্দেশ দেন। সেই নির্দেশ মেনে অনেক প্রার্থী বৃহস্পতিবার রাতের মধ্যে তাদের প্রচারণাপত্র সরিয়ে নিলেও অনেক প্রার্থীই সেটা করেননি। পরে শুক্রবার বিকেলে প্রশাসনের পক্ষ থেকে নগরীর বিভিন্ন প্রান্তে নির্বাচনী প্রচারণাপত্র সরিয়ে ফেলা হয়। তবে নগরীর বর্ধিত অংশের বিভিন্ন জায়গায় এখনো ঝুলছে সম্ভাব্য প্রার্থীদের প্রচারণাপত্র।

তবে সাধারণত নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে প্রচারণারসামগ্রী সরিয়ে ফেলার নির্দেশনা দেয়ার রীতি থাকলেও রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগেই হুঁশিয়ারি দিলো নির্বাচন কমিশন।

সিটি করপোরেশন নির্বাচন আইন অনুযায়ী মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণার আগে কোনো প্রার্থী প্রচারণায় যেতে পারে না। তবে প্রতীক নিয়ে প্রচারণায় যেতে পারেন প্রতীক বরাদ্দের পর। তাই নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর থেকে মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণার সময় পর্যন্ত দেয়াল লিখন, পোস্টার, বিলবোর্ড, ব্যানার, তোরণ ও গেট নির্মাণসহ সব ধরনের প্রচার নিষিদ্ধ। এ ছাড়া ভোটগ্রহণের ৩২ ঘণ্টা আগেও সব ধরনের প্রচারণা, শোডাউন, মিছিল বন্ধ এবং নির্বাচনের ফল ঘোষণার পরের দিন পর্যন্ত তা বলবৎ রাখার কথা বলা হয়েছে। এই বিধান লঙ্ঘনকারীর বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা ও সর্বোচ্চ ৩০ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ডের কথা বলা আছে নির্বাচনী আইনে।

রংপুর সিটি করপোরেশনে বর্তমানে ভোটার রয়েছে ৩ লাখ ৮৮ হাজার ৪২১ জন। এর মধ্যে পুরুষ ১ লাখ ৯৬ হাজার ৬৫৯ এবং নারী ১ লাখ ৯১ হাজার ৭৬২ জন। সম্ভাব্য ভোটকেন্দ্র ১৯৬টি, ভোটকক্ষ ১ হাজার ১৭৭টি বলে জানা গেছে।

২০১২ সালের ২০ ডিসেম্বর প্রথমবারের মতো রংপুর সিটি করপোরেশনে ভোট হয়। নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের পাঁচ বছর মেয়াদ পূর্ণ হওয়ার আগের ১৮০ দিনের মধ্যে ভোট করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। সে হিসাবে ২০১৮ সালের ১৮ মার্চের মধ্যে রংপুরে নির্বাচন করতে হবে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫