মিলন অপর্নার আকাশে মেঘ নেই

অভি মঈনুদ্দীন

তরুণ নাট্যনির্মাতা রাশেদ রাহার নির্দেশনায় আবারো একসঙ্গে একটি নতুন ধারাবাহিকে অভিনয় করছেন আনিসুর রহমান মিলন ও অপর্না। ফেরারী ফরহাদের গল্প ভাবনা ও চিত্রনাট্যে তারা দু’জন ‘আকাশে মেঘ নাই’ নামের একটি ধারাবাহিকে অভিনয় করছেন। এতে মিলন ও অপর্না ভাই-বোনের চরিত্রে অভিনয় করছেন।

এরই মধ্যে রাজধানীর উত্তরায় ধারাবাহিকটির শুটিং শুরু হয়েছে। ১০৪ পর্বের নির্মাণ চলতি এই ধারাবাহিকটিতে অভিনয় প্রসঙ্গে মিলন বলেন, ‘খুব ভালো একটি কাজ হচ্ছে। আমাদের সমাজে এমন কিছু চরিত্র থাকে যা বোহেমিয়ান। সে কারো জন্য ক্ষতিকর নয়। অনেক ক্ষেত্রেই তাকে প্রতিবাদী হিসেবে দেখা যায়। আমার চরিত্রটি ঠিক তেমনই একটি চরিত্র। ফেরারী ফরহাদ যথেষ্ট আন্তরিকতা নিয়েই পুরো গল্পটি বলার চেষ্টা করেছেন এবং প্রতিটি চরিত্রই বেশ যত্ন নিয়েই তিনি লেখার চেষ্টা করেছেন। রাশেদ রাহার চেষ্টা করেছেন আন্তরিকভাবে নাটকটি নির্মাণ করার। সত্যি বলতে কী কিছু গল্প থাকে যাতে শিল্পীর মন পড়ে থাকে কাজ করার, এটা এমনই একটি গল্পের নাটক।’

অপর্না বলেন, ‘ধারাবাহিকে বেশ কিছুদিন বিরতির পর মিলন ভাইয়ের সঙ্গে কাজ করছি। গল্পটা সমসাময়িক গল্পের চেয়ে আলাদা। বলা যায় আমাদের সমাজেরই বাস্তব প্রতিফলন ফুটে উঠেছে নাটকের গল্পটিতে। অবশ্যই ধন্যবাদ দিতে চাই নাটকের রচয়িতা ফেরারী ফরহাদ ও নির্মাতা রাশেদ রাহাকে। আর রাশেদ রাহার সঙ্গে আমার কাজের অভিজ্ঞতা বেশ ভালো। যে কারণে এই কাজটিও আশা করছি ভালো হবে।’

আসছে নভেম্বরে ধারাবাহিকটি বাংলা ভিশনে প্রচার শুরু হবে। এ দিকে মিলন এরই মধ্যে শেষ করেছেন অরুন চৌধুরীর নির্দেশনায় ‘আলতাবানু’ চলচ্চিত্রের কাজ। এ ছাড়া শাহআলম মণ্ডলের ‘সাদা কালো প্রেম’, রাশিদ পলাশের ‘নাইওর’ এবং তানিম রহমান অংশুর ‘স্বপ্নবাড়ি’ চলচ্চিত্রের কাজ শেষ করেছেন। তার অভিনীত সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র বুলবুল বিশ্বাসের ‘রাজনীতি’। এতে মিলনের অভিনয় বেশ প্রশংসিত হয়।

এ দিকে অর্পণা প্রথম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হন গাজী রাকায়েতের ‘মৃত্তিকা মায়া’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করে। তার অভিনীত সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র দু’টি হচ্ছে ‘সূতপার ঠিকানা ও ‘ভুবনমাঝি’। অপর্না বর্তমানে চট্টগ্রামে আছেন। আগামী ২০ অক্টোবরের পর থেকে তিনি আবারো শুটিংয়ে নিয়মিত হবেন। 

ছবি : মোহসীন আহমেদ কাওছার

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.