অপ্রতিরোধ্য পাকিস্তানের সামনে গুঁড়িয়ে গেল শ্রীলঙ্কা
অপ্রতিরোধ্য পাকিস্তানের সামনে গুঁড়িয়ে গেল শ্রীলঙ্কা

অপ্রতিরোধ্য পাকিস্তানের সামনে গুঁড়িয়ে গেল শ্রীলঙ্কা

নয়া দিগন্ত অনলাইন

অপ্রতিরোধ্য পাকিস্তানের সামনে গুঁড়িয়ে গেল শ্রীলঙ্কা। প্রথমে হাসান আলীর তাণ্ডব, তারপর নবাগত ইমাম-উল-হকের অভিষেক সেঞ্চুরি পাকিস্তানকে ওয়ানডে সিরিজ এনে দিয়েছে। পাকিস্তান ৭ উইকেটে জিতে ৩-০-এ এগিয়ে থেকে সিরিজ জয় নিশ্চিত করেছে। 

বুধবার প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ২০৮ রানে অল আউট হয়ে যায়। জবাবে পাকিস্তান ৪২.৩ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে জয় তুলে নেয়।
একতরফা এই ম্যাচে দ্বিতীয় পাকিস্তানি হিসেবে অভিষেক ওডিআই ম্যাচে সেঞ্চুরি করলেন ইমাম-উল-হক। তিন ১২৫ বলে ঠিক ১০০ রান করে আউট হয়েছেন।

এটা ছিল পাকিস্তানের টানা ৭ম ওডিআই জয়। আর শ্রীলঙ্কার টানা ১০ ওডিআই পরাজয়।


হাসান আলীর বিশ্ব রেকর্ড
আগেই তার নাম হয়ে গেছে ‘উইকেট টেকিং বোলার’। বুধবার আবুধাবির মাঠে যেন আরো একবার সেই নামের স্বার্থকতা প্রমাণ করলেন পাকিস্তানের ডানহাতি পেসার হাসান আলী। ৫ উইকেট নিয়েছেন ৩৪ রানে, তার দল শ্রীলঙ্কাকে অলআউট করেছে ২০৮ রানে।

এই ম্যাচে একটি নতুন বিশ্বরেকর্ড গড়েছেন হাসান আলী। চলতি বছর এখন পর্যন্ত ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি হয়েছেন তিনি। আগে এই রেকর্ডটি ছিলো আফগানিস্তানের লেগ স্পিনার রশিদ খানের। রশিদ ২০১৭ সালে এখন পর্যন্ত ৩৬ উইকেট শিকার করেছেন। আজকে শ্রীলঙ্কার ইনিংসের ৩৬তম ওভারে ব্যাটসম্যান জেফরি ভ্যান্ডার্সিকে আউট করে রশিদকে টপকে যান হাসান আলী। এরপর অবশ্য আরো দুটি উইকেট নিয়েছেন তিনি।

সব মিলে ২০১৭ সালে হাসান আলী ওয়ানডে উইকেট সংখ্য ৩৯টি। ১৬ ওয়ানডেতে তিনি এই উইকেট শিকার করেছেন। আর সব মিলে ক্যারিয়ারের ২৩ ওয়ানডেতে তার উইকেট সংখ্যা ৪৬।

উড়ে গেল শ্রীলঙ্কা
আবুধাবিতে সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে আর হাসান আলীর বোলিং তোপে উড়ে গেছে শ্রীলঙ্কা। টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে পাকিস্তানি এই ডান হাতি পেসারের দারুণ বোলিংয়ে ২০৮ রানে অলআউট হয়েছে লঙ্কানরা। হাসান ৫ উইকেট নিয়েছেন ৩৪ রানে।
সিরিজ বাঁচাতে এই ম্যাচে জিততে হলে শ্রীলঙ্কাকে। এমন ম্যাচে আগে ব্যাট করতে নেমে উপুল থারাঙ্গার দলের শুরুটা খারাপ ছিলো না। দলীয় ৫৯ রানে ওপেনার ডিকওয়েলা ফিরে গেলেও মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের নিয়ে লড়াই করার চেষ্টা করেছেন অধিনায়ক থারাঙ্গা। তার দৃঢ়তায় দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে একশো রান পার করে দল।

কিন্তু এরপর হাসানা আলীকে মোকাবেলাই করতে পারেনি আর কোন ব্যাটসম্যান। থারাঙ্গার ৮০ বলে ১০০ রানই দলীয় সর্বোচ্চ। ৪৯ তম ওভারে ২০৮ রানে অলআউট হয়েছে তার দল। হাসান আলী ছাড়াও ৩৭ রান ২ উইকেট নিয়েছে তরুণ লেগস্পিনার শাদাব খান।
এই ম্যাচে পাকিস্তানের পক্ষে অভিষেক হয়েছে সাবেক অধিনায়ক ইনজামাম উল হকের ভাতিজা ইমাম উল হকের।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.