ঢাকা, বৃহস্পতিবার,২৩ নভেম্বর ২০১৭

ঢাকা

সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান ধ্বংস করছে সরকার : শিবির সভাপতি

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

১৮ অক্টোবর ২০১৭,বুধবার, ১৯:২৪


প্রিন্ট
সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান ধ্বংস করছে সরকার : শিবির সভাপতি

সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান ধ্বংস করছে সরকার : শিবির সভাপতি

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত বলেছেন, ক্ষমতার মোহে সরকার একের পর এক সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান ধ্বংস করছে। তিনি আজ রাজধানীর এক মিলনায়তনে ছাত্রশিবির আয়োজিত সদস্য প্রার্থী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। কেন্দ্রীয় অফিস সম্পাদক সিরাজুল ইসলামের পরিচালনায় এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় প্রকাশনা সম্পাদক সালাউদ্দীন আইয়ুবী, শিক্ষা সম্পাদক রাজিফুল হাসান বাপ্পীসহ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ।

শিবির সভাপতি বলেন, ক্ষমতায় আসার পর থেকেই সরকার রাষ্ট্র কাঠামো করায়ত্ব করার অপচেষ্টা করে যাচ্ছে। অনেক গণমাধ্যম বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। প্রেসক্লাবে নিজেদের পছন্দের ব্যক্তিদের বসানো হয়েছে। নির্বাচন কমিশনে নিজেদের পছন্দের লোক নিয়োগ দেয়া হয়েছে। প্রতিটি মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন স্থানে যোগ্য ও মেধাবীদের বাদ দিয়ে অযোগ্য দলীয় লোকদের নিয়োগ দেয়া হচ্ছে। বিরোধী মতের লোকজনকে সরকারি চাকরি দেয়ার ক্ষেত্রে অঘোষিত নিষেধাজ্ঞা চলছে। যারা ছিল তাদেরকেও হয় ছাটাই বা ওএসডি করছে। শুধু দলীয় লোকদের নিয়োগ দেয়ার কারণে দেশের লাখো মেধাবী ছাত্র কোণঠাসা হয়ে পড়েছে। বাড়ছে বেকারত্ব। যা সমাজে অপরাধ প্রবণতা বাড়িয়ে দিচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, সরকার এখন অনৈতিকভাবে বিচার বিভাগের দিকে হাত বাড়িয়েছে। অনৈতিক স্বার্থ হাসিলে সহায়ক হবে না ভেবে নিজেদের পছন্দ করা প্রধান বিচারপতিকে জোর করে ছুটি দিয়ে দেশের বাইরে পাঠিয়েছে। এ ব্যপারে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল প্রধান বিচারপতি অসুস্থতার কারণে ছুটি চেয়েছেন। অথচ প্রধান বিচারপতি অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার পূর্বে সাংবাদিকের সামনে দেয়া বক্তব্যে বলেছেন, তিনি সম্পূর্ণ সুস্থ এবং বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিয়ে তিনি গভীরভাবে শংকিত। অন্যদিকে তিনি দেশ ছাড়ার পরই সরকার নিজেদের মিথ্যাচারকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে ১১টি অভিযোগ এনেছে। ফলে জনগণের মনে প্রশ্ন সৃষ্টি হয়েছে যে, নানা অপরাধ, দুর্নীতি ও অনৈতিক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত ব্যক্তিকে সরকারি ব্যবস্থাপনায় বিদেশ যেতে দেয়া হল কেন? সরকার পরিকল্পিতভাবে প্রধান বিচারপতিকে কেন্দ্র করে যে অনৈতিক নাটক করেছে তা বিচার বিভাগের ইতিহাসে নজিরবিহীন ও জাতির জন্য চরম অবমাননাকর। দেশবাসীর কাছে পরিস্কার যে সরকার রাজনৈতিক স্বার্থ হাসিলের জন্য বিচার বিভাগকে নিয়ে ষড়যন্ত্র করে জাতিকে অনিশ্চিত ভবিষ্যতের দিকে ঠেলে দিচ্ছে।

তিনি বলেন, ছাত্রশিবির জাতিকে একটি সমৃদ্ধ সোনার বাংলা উপহার দিতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। কিন্তু সেই প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে হলে নেতাকর্মীদের সর্বোচ্চ যোগ্যতার স্বাক্ষর রাখতে হবে। সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠন ও পরিচালনায় নেতৃত্ব দেয়ার প্রস্তুতি নিতে হবে। এজন্য প্রতিটি নেতাকর্মীকে সৎ, দক্ষ ও নৈতিকতাকে লক্ষ্য রেখে যোগ্যতা অর্জনের জন্য সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা চালাতে হবে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫