ঢাকা, বৃহস্পতিবার,২৩ নভেম্বর ২০১৭

উপমহাদেশ

পাকিস্তানের সাফল্যে অস্বস্তিতে ভারত

পাকিস্তান টুডে

১৭ অক্টোবর ২০১৭,মঙ্গলবার, ০৬:৫৯


প্রিন্ট
পাকিস্তানের সাফল্যে অস্বস্তিতে ভারত

পাকিস্তানের সাফল্যে অস্বস্তিতে ভারত

পাকিস্তানের পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র নাফিস জাকারিয়া বলেছেন, ভারত নিয়ন্ত্রণরেখায় বারবার যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করছে। কারণ, তারা সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে পাকিস্তানের সাফল্য হজম করতে পারছে না। পাকিস্তানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা বলেন।


জাকারিয়া বলেন, পাকিস্তানে সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালানোর জন্য ভারত এক দিকে আফগান সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোকে অর্থায়ন করছে, অন্য দিকে তারা পাক-ভারত নিয়ন্ত্রণরেখায় বেসামরিক জনগণকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ছে।
তিনি বলেন, ভারতীয় সেনারা কাশ্মিরের নিরীহ বেসামরিক লোকজন এমনকি শিশুদের ওপর কাপুরুষের মতো হামলা করছে। আবার মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনাগুলো থেকে বিশ্বের মনোযোগ অন্য দিকে নিয়ে যেতে নানাভাবে চেষ্টা করছে।


পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র বলেন, কাশ্মিরে ভারতীয় সেনাদের মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয়টি সব আন্তর্জাতিক ফোরামে কার্যকরভাবে তুলে ধরেছে পাকিস্তান।
গত আগস্টে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আফগানিস্তান ও দক্ষিণ এশিয়ায় নতুন মার্কিন কৌশল ঘোষণাকালে পাকিস্তানের সমালোচনা করেন। আঞ্চলিক স্থিতিশীলতায় ভারত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।


এই অভিযোগের ব্যাপারে তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে পাকিস্তান। এমনকি দেশটির সেনাপ্রধান তখন বলেছিলেন, এবার বাকি বিশ্বকে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে ‘আরো কিছু’ করতে হবে, পাকিস্তান যথেষ্ট করেছে। নাফিস জাকারিা বলেন, আফগানিস্তানে ভারতের বিতর্কিত ভূমিকা আঞ্চলিক স্থিতিশীলতার স্বার্থে নয় এবং তা পাকিস্তানের কাছেও গ্রহণযোগ্য নয়।

মিয়ানমারের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের আহ্বান ওআইসির

কুয়েত নিউজ এজেন্সি

রোহিঙ্গা সঙ্কট নিয়ে মিয়ানমারের সাথে অর্থনৈতিক ও কূটনৈতিক সম্পর্ক পুনর্বিবেচনার জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ইসলামি সহযোগিতা সংস্থা (ওআইসি)। রোববার ওআইসির এক বিবৃতিতে এই আহ্বান জানানো হয়। মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর ‘জাতিগত নির্মূল অভিযান’ চলছে বলে জাতিসঙ্ঘের মানবাধিকার কাউন্সিলের রিপোর্ট নিয়েও গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ওআইসি।
বাংলাদেশের কক্সবাজারে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে জাতিসঙ্ঘ মিশন ওই রিপোর্ট তৈরি করে। রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সহিংসতা বন্ধ ও সমস্যা সমাধানের কোনো উদ্যোগ নিতে অস্বীকার করলে মিয়ানমারের ওপর বাণিজ্য নিষেধাজ্ঞা আরোপের আহ্বান জানায় ওআইসি।


সংস্থার বিবৃতিতে বলা হয়, রোহিঙ্গারা আধুনিক ইতিহাসে সবচেয়ে ভয়াবহ নিপীড়ন ও অমানবিক দুঃখকষ্টের মুখোমুখি হচ্ছে। ২৫ আগস্টে শুরু হওয়া এই নির্মূল অভিযান থেকে বাঁচতে পাঁচ লাখের বেশি রোহিঙ্গা মুসলমান বাংলাদেশে পালিয়ে আশ্রয় নিয়েছে। জাতিসঙ্ঘের রিপোর্টে বল হয়, মিয়ানমার সরকার তার নিরাপত্তাবাহিনীর মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের ওপর সঙ্ঘবদ্ধ হামলা চালিয়ে তাদেরকে দেশ থেকে বিতাড়িত করছে। তারা যাতে ফিরে আসতে না পারে সেই ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।


রোহিঙ্গা মুসলমানরা সেনাবাহিনীর হাতে হত্যাকা , ধর্ষণ ও নির্যাতনের শিকার হচ্ছে এবং তাদের ঘরবাড়ি ও মসজিদ পুড়িয়ে দেয়া হচ্ছে বলেও রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫