ঢাকা, শুক্রবার,১৫ ডিসেম্বর ২০১৭

কর্পোরেট দিগন্ত

হোগলা-খেজুরপাতার পণ্য উৎপাদন করে বর্ষসেরা উদ্যোক্তা বেলাল হোসেন

শামছুল ইসলাম

১৬ অক্টোবর ২০১৭,সোমবার, ০০:০০ | আপডেট: ১৫ অক্টোবর ২০১৭,রবিবার, ২৩:৩৯


প্রিন্ট

বাংলাদেশ নৌবাহিনীর চাকরি ছেড়ে বেলজিয়ামে পাটের তৈরী কার্পেট ব্যবসা শুরু করেন বেলাল হোসেন। সেখানে বিভিন্ন সুপারস্টোর, চেইনস্টোরে ও ফুলের দোকানে হস্তশিল্পের বিভিন্ন পণ্য দেখে উৎসাহ বোধ করেন এবং ভাবেন বাংলাদেশেও এজাতীয় হস্তশিল্পের পণ্য দেশীয় বেকার জনশক্তিকে কাজে লাগিয়ে তৈরি করা সম্ভব।
১৯৯৯ সালে দেশে ফিরে গাজীপুরের বোর্ডবাজারে উৎপাদনমুখী চিন্তা এবং মেধা খাটিয়ে ব্যবসা শুরু করেন। তার বিচক্ষণতায় অল্প সময়ের মধ্যে তিনি তার ব্যবসা সম্প্রসারিত করেন। ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের নামকরণ করেন ‘বিডি ক্রিয়েশন’। এ প্রতিষ্ঠানই হস্তশিল্পে সর্বোচ্চ রফতানিকারক প্রতিষ্ঠান হিসেবে পরপর চার বছর (২০০২, ২০০৩, ২০০৪ ও ২০০৫) জাতীয় রফতানি ট্রফি অর্জন করে।
২০০৭ সালে মো: বেলাল হোসেন ইউরোপে ফিরে যান বাজার সম্প্রসারণ ও পণ্যে বৈচিত্র্য আনার উদ্দেশ্যে। ক্রেতাদের চাহিদা সম্পর্কে অধিকতর অভিজ্ঞতা অর্জনের লক্ষ্যে তিনি দীর্ঘ প্রায় তিন বছর ইউরোপের বিভিন্ন বাজার পরিদর্শন ও পর্যালোচনা করেন। পরে ২০১০ সালে তিনি আবারো বাংলাদেশে ফিরে আসেন অনেক নতুন পরিকল্পনা নিয়ে।
মোস্তফা আহমেদ পিয়াসকে সাথে নিয়ে ২০১১ সালে বিডি ক্রিয়েশন নতুন আঙ্গিকে তার কার্যক্রম শুরু করে আশুলিয়া ও সাভার থেকে পাঁচজন অফিস কর্মকর্তা, কর্মচারী ও ২০ জন কারিগর নিয়ে। দুইজনের অভিজ্ঞতা, যোগ্যতা, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পরিশ্রম আর নিষ্ঠার বিনিময়ে প্রতিষ্ঠানটি দ্রুত সফলতা লাভ করে এবং কোম্পানি দ্রুত বিভিন্ন অঞ্চলে তাদের কার্যক্রম সম্প্রসারণ করে। বিডি ক্রিয়েশন অল্প সময়ের মধ্যে পূবাইল (গাজীপুর), বোর্ডবাজার (গাজীপুর), বেলাব (নরসিংদী), শেরপুর (বগুড়া), অঞ্চলে আঞ্চলিক অফিস স্থাপন করে। এ ছাড়া ২০১৩ সালে যশোরে খেজুরপাতানির্ভর এবং পাবনায় বেতনির্ভর উৎপাদনমুখী কারখানা স্থাপন করে।
বিডি ক্রিয়েশন ২০১৩-২০১৪ অর্থবছরে হস্তশিল্প রফতানিতে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখার স্বীকৃতিস্বরূপ বাংলাদেশ সরকারের কাছ থেকে জাতীয় রফতানি ট্রফি গ্রহণ করে এবং ২০১৭ সালে বর্ষসেরা মাঝারি উদ্যোক্তা হিসেবে নির্বাচিত হয়।
বেলাল হোসেন বলেন, দক্ষ জনবল এবং একসাথে কাজ করার মাধ্যমে অভীষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছানোর মানসিকতাই বিডি ক্রিয়েশনের দ্রুত সাফল্যের ধারক ও বাহক। প্রতিষ্ঠানটি তাদের পণ্যের বাজার সৃষ্টির লক্ষ্যে বছরে অন্তত দুইবার ফ্রাঙ্কফুট (জার্মানি) এবং দুইবার হংকংয়ে আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলায় অংশগ্রহণ করে তাদের পণ্যের বৈচিত্র্য ক্রেতাদের সামনে তুলে ধরে, যার মাধ্যমে সরাসরি ক্রেতাদের বর্তমান ও ভবিষ্যৎ চাহিদা সম্পর্কে জানতে পারে এবং সে অনুযায়ী পণ্য উৎপাদন ও রফতানি করতে পারে।
প্রথম দিকে বিডি ক্রিয়েশনের বেশির ভাগ পণ্যই তৈরি হতো হোগলাপাতার রশির মাধ্যমে, কিন্তু গত কয়েক বছরে প্রতিষ্ঠানটি পণ্যসম্ভারে অনেক নতুনত্ত্ব এনেছে ক্রেতাদের ক্রমবর্ধমান পরিবর্তনশীল ও পরিবর্ধনশীল চাহিদার কারণে। বর্তমানে পাট, বেত, বাঁশ, ছন, খেজুরপাতা, তালপাতা ও হোগলাপাতার মাধ্যমে বিভিন্ন পণ্য উৎপাদন ও রফতানি দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলেছে। পাট ও পাটজাত পণ্যের অপার সম্ভাবনার কারণে বিডি ক্রিয়েশন নিজস্ব জায়গায় ইতোমধ্যে পাটজাত পণ্য প্রস্তুতকরণের কারখানা স্থাপন করেছে, যেখানে দৈনন্দিন উৎপাদন অব্যাহত রয়েছে। প্রতিষ্ঠানটি বছরে ২৪ কোটি টাকার অধিক রফতানি করতে সমর্থ হয়েছে, যা সম্ভাবনার তুলনায় যথেষ্ট কম বলে প্রতিষ্ঠান মনে করে। বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটি পুরো রফতানির ২৫ শতাংশেরও অধিক পাটজাত পণ্য রফতানি করছে। হোগলাপাতার জোগান নিশ্চিত করার জন্য প্রতিষ্ঠানটি নোয়াখালী ও ভোলায় নিজস্ব অফিস স্থাপন করেছে, যেখান থেকে পণ্যের কাঁচামালের গুণগত মান ও সরবরাহ নিশ্চিত করা হচ্ছে।
প্রতিষ্ঠানটি ২০১৬ সালে গাজীপুরের পূবাইলে নিজস্ব জায়গায় সবুজ পরিবেশে বড় পরিসরে কারখানা স্থাপন করেছে, যা ইতোমধ্যে বিভিন্ন দেশী-বিদেশী ক্রেতাদের প্রশংসা অর্জন করেছে। প্রতিষ্ঠানটি ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারি থেকে এখানে পুরোদমে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। ক্রমবর্ধমান চাহিদা ও উৎপাদন বাড়ানোর লক্ষ্যে মো: ইমরান খান আবুধাবি থেকে ফিরে ২০১৬ সালে বিডি ক্রিয়েশনে একজন পরিচালক হিসেবে যোগদান করেন। বর্তমানে বিডি ক্রিয়েশনে ৫০ জন অফিস কর্মকর্তা-কর্মচারী, ১০০ জন কারখানার কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং চার হাজারের অধিক কারিগর রয়েছেন; যারা এই প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রমের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। শেরপুর (বগুড়া) ও বেলাব (নরসিংদী), দাশুড়িয়ায় (পাবনা) প্রতিষ্ঠিত কারখানাগুলো প্রতিষ্ঠানটির নিজস্ব জায়গায় স্থাপিত। বর্তমানে বিডি ক্রিয়েশন বিশ্বের প্রায় ৬৬ দেশে তাদের উৎপাদিত পণ্য সাফল্যের সাথে রফতানি করে যাচ্ছে। প্রতিষ্ঠানটির নিজস্ব পরিবহনব্যবস্থা রয়েছে, যার মাধ্যমে মাসে প্রায় ৩৫টি ৪০ ফুট কনটেইনারের সমপরিমাণ মালামাল রফতানি করা সম্ভব হচ্ছে। রফতানিমুখী ব্যবসা নিয়ে বিডি ক্রিয়েশনের সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনা রয়েছে জানিয়ে এই বর্ষসেরা উদ্যোক্তা বলেন, পরিকল্পনাকে বাস্তবে রূপ দিতে সরকারের একান্ত সহযোগিতা খুবই প্রয়োজন।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫