ঢাকা, বুধবার,১৮ অক্টোবর ২০১৭

ক্রিকেট

সাকিবের সামনে ‘অনন্য’ রেকর্ড স্পর্শ করার হাতছানি

নয়া দিগন্ত অনলাইন

১৩ অক্টোবর ২০১৭,শুক্রবার, ১৫:৪৮ | আপডেট: ১৩ অক্টোবর ২০১৭,শুক্রবার, ১৬:০৩


প্রিন্ট
সাকিব আল হাসান

সাকিব আল হাসান

ওয়ানডে ক্রিকেটে অলরাউন্ডার হিসেবে অনন্য এক রেকর্ড স্পর্শ করার হাতছানি দিচ্ছে বাংলাদেশের সাকিব আল হাসানকে। ব্যাট হাতে আর মাত্র ১৭ রান করলেই পাঁচ হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করবেন তিনি। ফলে বিশ্বের পঞ্চম অলরাউন্ডার হিসেবে পাঁচ হাজার রান ও দুই শ’ উইকেট শিকারের মালিক হবেন তিনি। তবে অন্য চারজনের চেয়ে সবচেয়ে কম ম্যাচ খেলে অলরাউন্ডার হিসেবে পাঁচ হাজার ও দুই শ’ উইকেট শিকার করবেন সাকিব।

ওয়ানডেতে সাকিবের ক্যারিয়ার পরিসংখ্যান-১৭৭ ম্যাচে ৪৯৮৩ রান ও ২২৪ উইকেট। দুই শ’ উইকেটের মাইলফলক আগেই স্পর্শ করেছেন তিনি। এবার পালা পাঁচ হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করা।

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে কিম্বার্লিতে আগামী ১৫ অক্টোবর সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে বা পুরো সিরিজে ব্যাট হাতে ১৭ রান করলেই পাঁচ হাজার রানের ক্লাবে প্রবেশ করবেন সাকিব। বাংলাদেশের দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবেই এই ক্লাবে প্রবেশ করবেন তিনি। এর আগে বাংলাদেশের হয়ে এমন অর্জন করেছেন ড্যাশিং ওপেনার তামিম ইকবাল।

তবে ওয়ানডেতে পাঁচ হাজার রানের সাথে সাথে বিশ্ব রেকর্ডের পাতায় নিজের নাম তুলবেন সাকিব। কারণ বিশ্বের অলরাউন্ডার হিসেবে দুই শ’ উইকেট শিকারের পাশাপাশি পাঁচ হাজার রানের মালিকও হয়ে যাবেন তিনি। এতে দক্ষিণ আফ্রিকার জ্যাক ক্যালিস, শ্রীলঙ্কার সনাথ জয়সুরিয়া ও পাকিস্তানের শহিদ আফ্রিদি-আব্দুর রাজ্জাকের পাশে বসবেন সাকিব। তবে এই চারজনের চেয়ে কম ম্যাচ খেলে এই রেকর্ডের মালিক হবেন সাকিব।

ক্যালিস ১৯৭তম ম্যাচে ৫ হাজার ও ২শ’ উইকেট শিকারের মালিক ছিলেন। এই রেকর্ড স্পর্শ করতে জয়সুরিয়ার লেগেছিলো ২০৪ ম্যাচ। পাকিস্তানের আফ্রিদি ও রাজ্জাকের লেগেছিলো আরো বেশি ম্যাচ। আফ্রিদি ২৩৯ ও রাজ্জাক ২৫৮তম ম্যাচে পাঁচ হাজার ও দুই শ’ উইকেট শিকারের মালিক হয়েছিলেন।

শেষ পর্যন্ত সবার উপরে থেকেই ক্যারিয়ার শেষ করেছেন জয়সুরিয়া। ৪৪৫ ম্যাচে অংশ নিয়ে ১৩৪৩০ রান ও ৩২৩ উইকেট শিকার করেন তিনি। এই তালিকায় দ্বিতীয়স্থানে রয়েছেন ক্যালিস। ৩২৮ ম্যাচে ১১৫৭৯ রান ও ২৭৩ উইকেট নিয়েছেন ক্যালিস।

ওয়ানডেতে কমপক্ষে পাঁচ হাজার রান ও দুই শ’ উইকেট নেয়া অলরাউন্ডাররা :
খেলোয়াড়                                 ম্যাচ             রান          উইকেট
সনাথ জয়সুরিয়া (শ্রীলঙ্কা)              ৪৪৫         ১৩৪৩০        ৩২৩
জক ক্যালিস (দক্ষিণ আফ্রিকা)        ৩২৮         ১১৫৭৯        ২৭৩
শহিদ আফ্রিদি (পাকিস্তান)              ৩৭৮        ৭৬১৯           ৩৭৮
আব্দুর রাজ্জাক (পাকিস্তান)              ২৬৫         ৫০৮০          ২৫৪

আনুষ্ঠানিকভাবে এমসিসি বিশ্ব ক্রিকেটের সদস্য হলেন সাকিব
সপ্তাহখানেক আগে সাকিব আল হাসান নিজেই জানিয়েছিলেন, ঐতিহ্যবাহী মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাবের (এমসিসি) বিশ্ব ক্রিকেট একাদশে অন্তর্ভুক্তির কথা। এমসিসি ওয়েবসাইটেও বিষয়টি তখন নিশ্চিত করা হয়েছিল। অপেক্ষা ছিল কেবল আনুষ্ঠানিক ঘোষণার। এবার সেটিও হয়ে গেলো।

এমসিসির পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হলো সাকিবকে বিশ্ব ক্রিকেট কমিটিতে নিয়োগ দেয়ার কথা। সাকিব ছাড়াও বিশ্ব ক্রিকেট কমিটিতে নিয়োগ পেয়েছেন আরো তিনজন। এরা হলেন নিউজিল্যান্ড মহিলা ক্রিকেট দলের অধিনায়ক সুজি ব্যাটস, ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাবেক পেসার ও বর্তমান ক্রিকেট বিশ্লেষক ইয়ান বিশপ ও শ্রীলঙ্কা জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার ও আইসিসি এলিট প্যানেলের বর্তমান আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনা।

একইসাথে আনুষ্ঠানিকভাবে কমিটির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পড়েছে সাবেক ইংলিশ ব্যাটসম্যান মাইক গ্যাটিংয়ের কাঁধে। সিডনিতে অদল-বদল আসা কমিটির প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হবে আগামী বছরের ৯ ও ১০ জানুয়ারি।

প্রাচীন ও ঐতিহাসিক মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাবের বিশ্ব ক্রিকেট কমিটিতে থাকতে পারা যেকোনো খেলোয়াড় ও তার দেশের জন্যই গর্বের বিষয়। মূলত কিংবদন্তী খেলোয়াড়দের সম্মানিত করার একটি প্রয়াস হিসেবেই দেখা হয় ক্লাব সদস্য হিসেবে অন্তর্ভুক্তিকে। সাকিবই প্রথম এবং একমাত্র বাংলাদেশী, যিনি এমসিসির বিশ্ব ক্রিকেট কমিটিতে নিয়োগ পেলেন।

সাকিব প্রসঙ্গে কমিটির নতুন চেয়ারম্যান মাইক গ্যাটিং বলেন, ‘কমিটিতে যুক্ত হওয়া প্রথম বাংলাদেশী সাকিব। ঘরোয়া এবং আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সব ফরম্যাটে তার বিশ্ব কাঁপানোর অভিজ্ঞতা আছে। আমরা ভবিষ্যতে তার কাছ থেকে আরো অবদান পাওয়ার প্রত্যাশা করি।’

গত সপ্তাহে এমসিসি থেকে পাঠানো ই-মেইলের ছবি জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে সংযুক্ত করে সাকিব লিখেছিলেন, ‘মর্যাদাপূর্ণ এমসিসি ওয়ার্ল্ড ক্রিকেট কমিটির সদস্য হিসেবে মনোনীত করায় আমি সত্যিই অনেক আনন্দ বোধ করছি। আমাকে সম্মানিত করার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’

১৭৮৭ সালে মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাব বা এমসিসি প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রাচীন এই ক্লাবের অধীনেই রয়েছে ক্রিকেটের তীর্থস্থান খ্যাত লর্ডস ক্রিকেট গ্রাউন্ডের মালিকানা। প্রতিষ্ঠার এক বছর পর, ১৭৮৮ সালে ক্রিকেটের আইন প্রণয়নের দায়িত্ব নেয় এমসিসি। এর পর থেকে আজ অবধি ক্রিকেট সংক্রান্ত সকল আইন-কানুন প্রণয়ন করে থাকে এই কমিটিই।

প্রতি বছর দুটি বার্ষিক সভার আয়োজন করে মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাব। শুধু কমিটির সদস্যরাই সেখানে অংশগ্রহণের সুযোগ পান। আগামী সভা থেকে তাই এতে অংশ নিতে পারবেন সাকিবও। সভায় মূলত ক্রিকেট সংশ্লিষ্ট নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়ে থাকে। এমসিসির ওয়ার্ল্ড ক্রিকেট কমিটি দীর্ঘদিন ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল- আইসিসির সমন্বয়ক সংস্থার ভূমিকা পালন করে আসছে।

সাকিব ছাড়াও বর্তমানে ক্লাবটির সদস্য হিসেবে আছেন সৌরভ গাঙ্গুলি, ব্র্যান্ডন ম্যাককালাম, রিকি পন্টিংয়ের মতো নামকরা সাবেক ক্রিকেটাররা।

অবশ্য কয়েক বছর পর পর কমিটির সদস্যদের মধ্যে পরিবর্তন আনে এমসিসি। সেই সুবাদে সম্প্রতি কমিটি থেকে বাদ পড়েছেন অনিল কুম্বলে-স্টিভ ওয়াহর মতো ক্রিকেটাররাও।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫