ঢাকা, বুধবার,১৩ ডিসেম্বর ২০১৭

ক্রিকেট

এবার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিলো এমসিসি

নয়া দিগন্ত অনলাইন

১৩ অক্টোবর ২০১৭,শুক্রবার, ১০:৪৬ | আপডেট: ১৩ অক্টোবর ২০১৭,শুক্রবার, ১৬:০২


প্রিন্ট
সাকিব আল হাসান

সাকিব আল হাসান

সপ্তাহখানেক আগে সাকিব আল হাসান নিজেই জানিয়ে ছিলেন, ঐতিহ্যবাহী মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাবের (এমসিসি) বিশ্ব ক্রিকেট একাদশে অন্তর্ভুক্তির কথা। এমসিসি ওয়েবসাইটেও বিষয়টি তখন নিশ্চিত করা হয়েছিল। অপেক্ষা ছিল কেবল আনুষ্ঠানিক ঘোষণার। এবার সেটিও হয়ে গেলো।

এমসিসির পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হলো সাকিবকে বিশ্ব ক্রিকেট কমিটিতে নিয়োগ দেয়ার কথা। সাকিব ছাড়াও বিশ্ব ক্রিকেট কমিটিতে নিয়োগ পেয়েছেন আরো তিনজন। এরা হলেন নিউজিল্যান্ড মহিলা ক্রিকেট দলের অধিনায়ক সুজি ব্যাটস, ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাবেক পেসার ও বর্তমান ক্রিকেট বিশ্লেষক ইয়ান বিশপ ও শ্রীলঙ্কা জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার ও আইসিসি এলিট প্যানেলের বর্তমান আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনা।

একইসাথে আনুষ্ঠানিকভাবে কমিটির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পড়েছে সাবেক ইংলিশ ব্যাটসম্যান মাইক গ্যাটিংয়ের কাঁধে। সিডনিতে অদল-বদল আসা কমিটির প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হবে আগামী বছরের ৯ ও ১০ জানুয়ারি।

প্রাচীন ও ঐতিহাসিক মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাবের বিশ্ব ক্রিকেট কমিটিতে থাকতে পারা যেকোনো খেলোয়াড় ও তার দেশের জন্যই গর্বের বিষয়। মূলত কিংবদন্তী খেলোয়াড়দের সম্মানিত করার একটি প্রয়াস হিসেবেই দেখা হয় ক্লাব সদস্য হিসেবে অন্তর্ভুক্তিকে। সাকিবই প্রথম এবং একমাত্র বাংলাদেশী, যিনি এমসিসির বিশ্ব ক্রিকেট কমিটিতে নিয়োগ পেলেন।

সাকিব প্রসঙ্গে কমিটির নতুন চেয়ারম্যান মাইক গ্যাটিং বলেন, ‘কমিটিতে যুক্ত হওয়া প্রথম বাংলাদেশী সাকিব। ঘরোয়া এবং আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সব ফরম্যাটে তার বিশ্ব কাঁপানোর অভিজ্ঞতা আছে। আমরা ভবিষ্যতে তার কাছ থেকে আরো অবদান পাওয়ার প্রত্যাশা করি।’

গত সপ্তাহে এমসিসি থেকে পাঠানো ই-মেইলের ছবি জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে সংযুক্ত করে সাকিব লিখেছিলেন, ‘মর্যাদাপূর্ণ এমসিসি ওয়ার্ল্ড ক্রিকেট কমিটির সদস্য হিসেবে মনোনীত করায় আমি সত্যিই অনেক আনন্দ বোধ করছি। আমাকে সম্মানিত করার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’

১৭৮৭ সালে মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাব বা এমসিসি প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রাচীন এই ক্লাবের অধীনেই রয়েছে ক্রিকেটের তীর্থস্থান খ্যাত লর্ডস ক্রিকেট গ্রাউন্ডের মালিকানা। প্রতিষ্ঠার এক বছর পর, ১৭৮৮ সালে ক্রিকেটের আইন প্রণয়নের দায়িত্ব নেয় এমসিসি। এর পর থেকে আজ অবধি ক্রিকেট সংক্রান্ত সকল আইন-কানুন প্রণয়ন করে থাকে এই কমিটিই।

প্রতি বছর দুটি বার্ষিক সভার আয়োজন করে মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাব। শুধু কমিটির সদস্যরাই সেখানে অংশগ্রহণের সুযোগ পান। আগামী সভা থেকে তাই এতে অংশ নিতে পারবেন সাকিবও। সভায় মূলত ক্রিকেট সংশ্লিষ্ট নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়ে থাকে। এমসিসির ওয়ার্ল্ড ক্রিকেট কমিটি দীর্ঘদিন ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল- আইসিসির সমন্বয়ক সংস্থার ভূমিকা পালন করে আসছে।

সাকিব ছাড়াও বর্তমানে ক্লাবটির সদস্য হিসেবে আছেন সৌরভ গাঙ্গুলি, ব্র্যান্ডন ম্যাককালাম, রিকি পন্টিংয়ের মতো নামকরা সাবেক ক্রিকেটাররা।

অবশ্য কয়েক বছর পর পর কমিটির সদস্যদের মধ্যে পরিবর্তন আনে এমসিসি। সেই সুবাদে সম্প্রতি কমিটি থেকে বাদ পড়েছেন অনিল কুম্বলে-স্টিভ ওয়াহর মতো ক্রিকেটাররাও।

সাকিবের প্রশংসায় ক্যালিস
বিশ্বের অন্যতম সেরা বাংলাদেশী অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে ‘দারুণ খেলোয়াড়’ বলে আখ্যা দিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার কিংবদন্তী ক্রিকেটার ও সর্বকালের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার জ্যাক ক্যালিস।

ভারতের জনপ্রিয় ঘরোয়া টুর্নামেন্ট ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে বেশ কয়েকদিন একসাথে খেলেছেন ক্যালিস ও সাকিব। সেই সুবাদে সাকিবকে কাছ থেকেই দেখেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার তারকা ক্রিকেটার। সাকিবের প্রসঙ্গে মন্তব্য করতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘সাকিব দারুণ খেলোয়াড়। বিশেষত ধীরগতির নিচু বাউন্সের উপমহাদেশীয় উইকেটে ও ভীষণ কার্যকর বোলার। খুব চতুরও। আর ব্যাটিংয়ে সাকিব আক্রমণাত্মক ধাঁচের। বাংলাদেশের জন্য ও অনেক বড় খেলোয়াড়।'

বাংলাদেশের খেলা দেখা হয় কি না- জিজ্ঞেস করা হলে জানান, ‘আমার আসলে ক্রিকেট দেখার মতো খুব বেশি সময় নেই। তবে কিছু কিছু খবর রাখি। ঘরের মাঠে ওরা দুর্দান্ত দল। এখন বিদেশে ভালো করার চ্যালেঞ্জ।'

বিশ্ব ক্রিকেটের একসময়ের সেরা অলরাউন্ডার ছিলেন ক্যালিস। তবে তার বিদায়ী সময়ে সাকিব আল হাসানের আবির্ভাব ঘটে দুর্ধর্ষ অলরাউন্ডার হিসেবে। ফলে ক্যালিসের অনেক কীর্তিই নিজের করে নেন সাকিব। ক্যালিসকে এখনও সর্বকালের সেরা অলরাউন্ডার মনে করা হলেও অনেকেরই ধারণা, ক্যারিয়ার শেষে ক্যালিস কিংবা অন্য অলরাউন্ডারদেরও ছাপিয়ে যাবেন সাকিব।

দীর্ঘ ক্যারিয়ারে দক্ষিণ আফ্রিকা জাতীয় দলের জার্সি গায়ে ৫১২টি আন্তর্জাতিক ম্যাচে অংশ নিয়েছেন জ্যাক ক্যালিস। তার ঝুলিতে রয়েছে বেশ কয়েকটি রেকর্ড। ২০১৩ সালের শেষদিকে ভারতের বিপক্ষে সিরিজ শেষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর গ্রহণ করেন তিনি।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫