ঢাকা, বুধবার,১৩ ডিসেম্বর ২০১৭

ক্রীড়া দিগন্ত

জয়ের মিশনে আত্মবিশ্বাসী পাকিস্তান

ক্রীড়া প্রতিবেদক

১৩ অক্টোবর ২০১৭,শুক্রবার, ০০:০০


প্রিন্ট

সংকল্পে ছিল নতুন যুগের শুভ সূচনা। কিন্তু ২২ গজের উইকেটে ব্যাট-বলের লড়াইয়ে পুরনো দিনের শূন্যতা পূরণের ব্যর্থতায় দীর্ঘ দিনের গৌরবও হাতছাড়া করার দুঃস্বপ্ন হজম করল পাকিস্তান। মিসবাহ-ইউনুসের অবসরের পর প্রথমবারের মতো পাঁচ দিনের ক্রিকেটের সূচনাতে মাঠে বিপর্যস্ত দেশটির ক্রিকেটারেরা। সংযুক্ত আরব আমিরাতে ইতিহাসের প্রথম টেস্ট সিরিজ হারের ধাক্কা সামলে ওঠার আগেই সীমিত ওভারের চ্যালেঞ্জে পাকিস্তান। বাড়তি চাপের মধ্যে থেকেই তারা ৫ ম্যাচের ওয়ানডের সিরিজের মোকাবেলায় মাঠে নামছে উজ্জীবিত শ্রীলঙ্কার। আজ দুবাইয়ে দল দু’টি লড়বে প্রথম ৫০ ওভারের খেলায়।
ফরম্যাটের পরিবর্তনে পারফরম্যান্স পাল্টে দেয়ার মিশনেই ওয়ানডের লড়াইয়ে মাঠে নামছে পাকিস্তান। সিরিজে শুভ সূচনায় তাদের বাড়তি আত্মবিশ্বাস জোগাচ্ছে ৫০ ওভারের প্রতিষ্ঠিত ক্রিকেটারদের উপস্থিতি। দেশটির টেস্ট দলের বেশির ভাগ ক্রিকেটার দর্শক ওয়ানডে সিরিজের। দলে ফিরেছেন ওয়ানডে ফরম্যাটের প্রতিষ্ঠিত ক্রিকেটারেরা। ফলে অধিনায়ক সারফরাজও জয়ে ফেরার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন। পাকিস্তানি দলনায়ক বলেন, ‘আমার ওপর চাপ বেড়ে গেছে। অধিনায়ক হিসেবে প্রথম সিরিজে পরাজয় মোটেও স্বস্তির নয়। তবে আমি আত্মবিশ্বাসী ঘুরে দাঁড়ানোর ব্যাপারে। ওয়ানডে দল ব্যালান্সড। সিনিয়রদের অনেকেই আছেন।’
টেস্টে খেলা পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের মধ্যে সরফরাজ আহমেদ, হারিস সোহেল, বাবর আজম ও হাসান আলি ওয়ানডে সিরিজের দলে আছেন। নতুন যোগ দিয়েছেন ১১ জন। অলরাউন্ডার মোহাম্মদ হাফিজ, ফখর জামান, আহমেদ শেহজাদসহ নিয়মিত একাদশের প্রায় সবাই আছেন পাকিস্তানের স্কোয়ার্ডে। তবে লঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে ইনজুরি বাধিয়ে মাঠের বাইরে চলে গেছেন মোহাম্মদ আমের।
২০০৯ সালের লাহোরে লঙ্কান টিম বাসে সন্ত্রাসী হামলার পর সংযুক্ত আরব আমিরাতেই হোম সিরিজ খেলছে পাকিস্তান। নিজেদের দশম টেস্ট সিরিজে তারা হজম করেছে প্রথম হার। আরব আমিরাতে টেস্ট ফরম্যাটে পাকিস্তানের দীর্ঘ দিন অপরাজিত থাকার রেকর্ড গুঁড়িয়ে ঐতিহাসিক সিরিজ জিতেছে আন্ডারডগ লঙ্কা। দেশটিতে ইতিহাসের প্রথম সিরিজ জেতায় বাড়তি আত্মবিশ্বাস নিয়েই সফরকারীরা সীমিত ওভারের ফরম্যাটের লড়াইয়ে মাঠে নামছে। ৫০ ওভারের ক্রিকেটে লঙ্কানদের সাম্প্রতিক নৈপুণ্যও স্বস্তির নয়। সর্বশেষ খেলা ২১ ম্যাচের ১৬টিতেই তারা পরাজিত হয়। তবে সাম্প্রতিক ব্যর্থতা মেনে নিয়েই ঘুরে দাঁড়ানোর সংকল্প ব্যক্ত করেছেন লঙ্কান অধিনায়ক উপল থারাঙ্গা। তিনি বলেন, ‘শেষ কয়েকটি সিরিজে আমরা মোটেও ভালো খেলতে পারিনি। অবশ্যই প্রতিটি বিভাগে ভালো করতে হবে।’

 

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫