ঢাকা, বৃহস্পতিবার,১৯ অক্টোবর ২০১৭

প্রশাসন

কন্যাশিশুর অধিকার ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করা সবার দায়িত্ব : রাষ্ট্রপতি

নয়া দিগন্ত অনলাইন

১২ অক্টোবর ২০১৭,বৃহস্পতিবার, ১৮:১৩


প্রিন্ট
রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ (ফাইল ফটো)

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ (ফাইল ফটো)

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, সব প্রতিবন্ধকতা দূর করে কন্যাশিশুদের উপযুক্ত করে গড়ে তুলতে প্রতিটি কন্যাশিশুর অধিকার ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করা সকলের দায়িত্ব ও কর্তব্য।

‘জাতীয় কন্যাশিশু দিবস-২০১৭’ উপলক্ষে আজ এক বাণীতে রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘কন্যা-জায়া-জননী’র বাইরেও কন্যাশিশুর বৃহৎ জগত রয়েছে। স্বাধীনভাবে নিজের মতামত ব্যক্ত করা ছাড়াও পরিবার, সমাজ, দেশ ও রাষ্ট্রীয় কর্মকাণ্ডে নারীদের অংশগ্রহণের মাধ্যমে তাদের প্রকৃত ক্ষমতায়ন করা সম্ভব। এ জন্য কন্যাশিশুদের শিক্ষা, স্বাস্থ্য, নিরাপত্তাসহ বেড়ে ওঠার সকল অনুকূল পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে।’

তিনি বলেন, কন্যাশিশুদের অধিকার ও ক্ষমতায়ন নিয়ে সচেতনতা ও উদ্যোগ প্রশংসনীয়ভাবে বৃদ্ধি পেলেও বিশ্বজুড়ে নারী ও কন্যাশিশুদের প্রতি সহিংসতা ও নৃশংসতা অব্যাহত রয়েছে। নারী ও কন্যাশিশুর প্রতি এই মনোভাব অগ্রগতির পথে বড় বাধা।

মো. আবদুল হামিদ বলেন, বর্তমান সরকার কন্যাশিশুদের উন্নয়নে অত্যন্ত আন্তরিক। এ লক্ষ্যে সরকার কন্যাশিশুদের শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও পুষ্টিসহ পরিপূর্ণ বিকাশে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। বাংলাদেশের এসব পদক্ষেপ বহির্বিশ্বেও প্রশংসিত হচ্ছে। তা সত্ত্বেও কন্যাশিশুর অধিকার ও মর্যাদা সমুন্নত রাখতে সমাজের দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তনসহ অনেক দূর যেতে হবে।

তিনি বলেন, ‘কন্যাশিশুর জাগরণ, আনবে দেশের উন্নয়ন’-এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে আগামীকাল ‘জাতীয় কন্যাশিশু দিবস-২০১৭’ পালিত হচ্ছে জেনে আমি আনন্দিত। দিবসটি উপলক্ষে দেশের সব কন্যাশিশুর প্রতি রাষ্ট্রপতি আন্তরিক শুভেচ্ছা জানান।’

রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘কন্যাশিশুদের অধিকার ও নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের পাশাপাশি সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধি পাক, জাতীয় কন্যাশিশু দিবসে এটাই হোক সবার অঙ্গীকার।’

তিনি ‘জাতীয় কন্যাশিশু দিবস-২০১৭’ উপলক্ষে গৃহীত কর্মসূচির সাফল্য কামনা করেন।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫