ঢাকা, মঙ্গলবার,১৭ অক্টোবর ২০১৭

ইতিহাস-ঐতিহ্য

কলম্বাস : নায়ক না খলনায়ক?

কাউন্টারপাঞ্চ ডট অর্গ

১২ অক্টোবর ২০১৭,বৃহস্পতিবার, ১৪:২৪


প্রিন্ট
কলম্বাস

কলম্বাস

কোন দিক দিয়ে অভিন্নতা রয়েছে ক্যালিফোর্নিয়ার বারব্যাংক ও লস অ্যাঞ্জেলেস, কলোরাডোর কলোরাডো স্প্রিংস, ইলিনয়ের ওক পার্ক, আইওয়ার ড্যাভেনপোর্ট, মেইনের পোর্টল্যান্ড, ওকলাহোমার টালসা, নিউ মেক্সিকোর ফার্মিংটন, নিউ ইয়র্কের ইথাকা, ভার্জিনিয়ার শার্লটসভিল এবং ওয়াশিংটনের এডমন্ডসÑ যুক্তরাষ্ট্রের এসব রাজ্যশহরের মধ্যে?


এগুলোর সব ক’টিতে গত মাসে কলম্বাস দিবসের পরিবর্তে আদিবাসী জনতা দিবস পালন করা হয়েছে। তাদের অনুসরণ করে আলাস্কা, সাউথ ডাকোটা এবং ভারমন্ড অঙ্গরাজ্যের কিছু শহর যেমন ডেনভার, ফিনিক্স, সেন্ট পল, মিনেয়পোলিস, সিয়াটেল দিবসটি উদযাপনের সিদ্ধান্ত নেয়। এ ছাড়া দক্ষিণ আমেরিকার বেশ কিছু দেশ নাটকীয় পদক্ষেপের মাধ্যমে আমেরিকা দিবস উদযাপনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সম্ভবত যুক্তরাষ্ট্রের অন্যান্য অঙ্গরাজ্য, শহর, ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান, স্কুল, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে একইভাবে দিবসটি পালন করা হবে। 


ক্রিস্টফার কলম্বাসকে আর জাতীয় ছুটির জন্য উপযুক্ত নায়ক হিসেবে মূল্যায়ন করা হচ্ছে না, এমনকি তার স্মরণে কোনো প্যারেডও অনুষ্ঠিত হয় না। পনের শতকেও তিনি এই মর্যাদার উপযুক্ত ছিলেন না, একুশ শতকে এসেও তিনি এ মর্যাদার উপযুক্ত নন। কলম্বাস ছিলেন অনৈতিক চরিত্রের অধিকারী এবং তিনি এই সম্মান পাওয়ার অনুপযুক্ত। 


তাকে বলা হয় আত্মপ্রচারকারী সুযোগসন্ধানী, তিনি নিজের ধর্মীয় মতবাদ ছড়িয়ে দিতে নতুন জনপদ অবিষ্কার করতে চেয়েছিলেন। মূলকথা হলো, তিনি ভুল ব্যাখ্যা দিয়ে নিজের মতো করে খ্রিষ্টান ধর্ম ছড়িয়ে দিতে চেয়েছেন। তিনি ছিলেন ঔপনিবেশিকতার সমর্থক। আর সেই সাথে ধর্ষণ, খুন, দাসত্ব, যুদ্ধবিগ্রহ, সহিংসতা, নিয়ন্ত্রণ ও গণহত্যার সহযোগী। 


ইতালির জেনোয়ায় জন্ম নেয়া কলম্বাস কমপক্ষে দু’টি লক্ষ্য নির্ধারণ করেছিলেন : আমেরিকার আদিবাসী জনগণকে ধর্মান্তরিত করা এবং জেরুসালেম পুনরুদ্ধারে খ্রিষ্টধর্মীয় উগ্রপন্থীদের যথেষ্ট অর্থ সরবরাহ করা। 


কলম্বাস একটি কার্যকর জনসংযোগ অভিযান চালিয়েছিলেন। কেউ জানে না ঠিক কিভাবে ও কখন কলম্বাস এশিয়ায় একটি বাণিজ্যিক যোগাযোগ পথ আবিষ্কার করতে পশ্চিমে ভ্রমণের ধারণা পেশ করেছিলেন। ওই সময়টায় তিনি পর্তুগালের একজন ুদ্র ব্যবসায়ী ও মানচিত্রকার ছিলেন। 
পর্তুগালের অভিজাত এক মহিলাকে তিনি স্ত্রী হিসেবে পেয়েছিলেন। এটি তাকে অন্যদের দৃষ্টিতে রাষ্ট্রীয় সম্মান ও মর্যাদা লাভে সহায়ক হয়েছিল। 


পর্তুগাল ও স্পেনের রাজদরবারে তিনি একাধারে কয়েক বছর ধরে তদবির করতে থাকেন। পর্তুগিজরা আগেই আফ্রিকার দক্ষিণ দিক ঘুরে এশিয়ার সাথে একটি বাণিজ্য পথের সন্ধান পেয়ে গিয়েছিল এবং এ জন্য কলম্বাসের পরিকল্পনায় তাদের আগ্রহ ছিল না। অন্য দিকে স্পেন তখন ব্যস্ত ছিল দেশ থেকে সব মুসলিম বিতাড়ন নিয়ে। 
আট বছর দমন-নিপীড়নের পর মুসলমানরা পরাজিত হলে রাজা ফার্দিনান্দ ও রানী ইসাবেলা ১৯৪২ সালে কলম্বাসের অভিযান পরিচালনায় অর্থায়ন করতে সম্মত হন। 


কলম্বাস যে মানচিত্র উপস্থাপন করেছিলেন তার ভিত্তি ছিল প্রাচীন গ্রিক দার্শনিক টলেমি, শত শত বছর আগে এশিয়া ভ্রমণকারী ইউরোপীয় নাগরিক মার্কো পোলো ও খ্রিষ্টানদের ধর্মীয় গ্রন্থ বাইবেলের নিজস্ব ব্যাখ্যা। এই অভিযান নিয়ে কলম্বাস স্প্যানিশ শাসকদের কাছ থেকে অনেক প্রতিশ্রুতি পেয়েছিলেন। যেমন, আবিষ্কৃত অঞ্চলগুলো শাসন করার ক্ষমতা থাকবে তার এবং এই অভিযাত্রায় অর্জিত সব মুনাফার ১০ শতাংশ তিনি পাবেন। 


তার সব কিছুকে সমর্থন করতে স্পেনকে সম্মত করেছিলেন তিনি, যদিও তার বেশির ভাগ ভৌগোলিক তত্ত্বই ছিল অস্বাভাবিক। ইউরোপের অধিকাংশ শিক্ষিত লোকেই তখন বিশ্বাস করতেন পৃথিবী গোলাকার, যদিও তাদের কেউ আশা করেননি যে, এশিয়া মহাদেশের পশ্চিম দিকের পথে বাধা হয়ে রয়েছে বিশাল বিশাল মহাদেশ। শিক্ষিত ইউরোপীয়রা বিশ্বাস করতেন পৃথিবীর পরিধি ২৪ হাজার মাইল এবং ইরোপীয় উপকূলের ১০ হাজার মাইল পশ্চিমে এশিয়ার পূর্ব উপকূল অবস্থিত যে পথে তখনকার ছোট ছোট জাহাজে অভিযাত্রা করা সম্ভব ছিল না। কিন্তু কলম্বাস বাইবেল ও প্রাচীন সূত্রগুলোর ব্যবহার করে বলেছিলেন পৃথিবীর পরিধি আরো অনেক ছোট এবং তিন হাজার মাইল দূরত্বের মধ্যেই এশিয়া অবস্থিত। বস্তুত ভূগোল সম্পর্কে তার ভুল ধারণাই তার যাত্রার প্রেরণা ছিল।

যদিও তিনি বিদেশী ছিলেন এবং নৌযান চালনায় সীমিত অভিজ্ঞতাসম্পন্ন ব্যক্তি ছিলেন, তবু স্প্যানিশদের পূর্ণ সমর্থন পেয়েছেন। অথচ স্প্যানিশ রাজা ফার্দিনান্দ ও রানী ইসাবেলার উপদেষ্টারা ভিন্ন কথা বলেছিলেন। তিনি যখন সমুদ্রপথে যাত্রা শুরু করেন, তখন জাহাজের নাবিকদের তিনি ঘোষণা দিয়ে বলেছিলেন, যিনি প্রথমে এশিয়ার স্থলভাগ দেখাবেন তাকে অনেক অর্থ দিয়ে (এখনকার ১৫০০ মার্কিন ডলারের সমতুল্য) সম্মানিত করবেন। শুরুর দিকে রড্রিগো বার্মোজকে প্রথম এশিয়ার মাটি দেখার কৃতিত্ব দিয়েছিলেন। পরে কলম্বাস সেই কৃতিত্ব আবার বাতিল করে বলেছেন, এরও কয়েক ঘণ্টা আগে তিনি নিজেই এই ভূমি দেখে ছিলেন। মূলকথা হলো, কলম্বাস জানতেন কিভাবে গুরুত্বপূর্ণ এই খ্যাতি নিজের নামে করে নেবেন। 
সূত্র : কাউন্টারপাঞ্চ ডট অর্গ

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫