বিএনপিপন্থী আইনজীবীরা ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছেন : অ্যাটর্নি জেনারেল

নিজস্ব প্রতিবেদক

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেছেন, আমাদের আইন বিভাগ, বিচার বিভাগ খুব সাধারণভাবে তাদের কাজ করে যাচ্ছে। কিন্তু বিএনপিপন্থী কিছু আইনজীবী ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছে তা কোনোদিনই স্বার্থক হবে না। স্বার্থক হতে দেয়া হবে না।

আজ বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের ব্যানারে আদালত অঙ্গনকে রাজনীতিকরণ এবং বিএনপি-জামায়াতপন্থী আইনজীবীদের অপতৎপরতা ও ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে মানববন্ধন কর্মসূচি পালনকালে তিন একথা বলেন।

এতে আরো বক্তব্য দেন সাবেক আইনমন্ত্রী আব্দুল মতিন খসরু, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন, আওয়ামী লীগের আইন সম্পাদক শ ম রেজাউল করিম, আইনজীবী সমিতির সাবেক সম্পাদক মমতাজ উদ্দিন মেহেদী, সমিতির সহ-সভাপতি অজিউল্লাহ প্রমুখ।

আব্দুল বাসেত মজুমদার বলেন, আজ জামায়াত বিএনপি আমাদের এই পবিত্র অঙ্গনকে কলুষিত করে বিএনপির অঙ্গ সংগঠন হিসেবে বানিয়েছে। তারা এই অঙ্গনকে কলুষিত করছেন। এতো দিন তারা দাবি করেছিল প্রধান বিচারপতির সাথে তারা দেখা করতে চান। আর এখন দাবি তুলেছে প্রধান বিচারপতিকে বিদেশ যেতে দেবেন না। এসব অর্বাচিনেরা আমাদের প্রধানমন্ত্রীকে কটূক্তি করেছেন। যা কোনোভাবেই কাম্য নয়। তারা আন্দোলনের নামে এখানে যে বিশৃংখলা সৃষ্টির চেষ্টা করছেন তাদের আর সুযোগ দেয়া ঠিক হবে না বলেও হুঁশিয়ারী দেন তিনি।

বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের আহবায়ক ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন বলেন, এখানে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা সম্পর্কে অশালীন বক্তব্য রাখা হয়েছে। ভবিষ্যতে এ ধরনের বক্তব্য দেয়া হলে তাদের সমচিত জবাব দেয়া হবে।

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতিকে রাজনীতিকরণ করা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমি পরিষ্কারভাবে বলতে চাই, কোনো অবস্থাতেই আইনজীবী সমিতিকে রাজনীতিকরণ করতে দেয়া হবে না। যদি কেউ চেষ্টাও করে তাদের উপযুক্ত জবাব দেয়া হবে।

ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নুর তাপস বলেন, আজকে বিচারাঙ্গনকে কলুষিত করার জন্য সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতিকে যেভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে আমরা তার তীব্র নিন্দা জানাই। আমরা তাদের কর্মসূচিকে প্রতিহত করার জন্য তাদের ষড়যন্ত্রকে নস্যাত করার জন্য ঐক্যবদ্ধ হয়েছি। আমরা এ কর্মসূচি পালন করছি। ভবিষ্যতে সেই ষড়যন্ত্রের দাত ভাঙা জবাব দেয়ার জন্য সুপ্রিম কোর্টের সাধারণ সভা করে এই সভাপতি জয়নুল আবেদীন ও সাধারণ সম্পাদককে এখান থেকে বিতাড়িত করা হবে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.