ঢাকা, বৃহস্পতিবার,১৪ ডিসেম্বর ২০১৭

ফুটবল

মেসিকে নিয়ে যা বললেন কোচ

নযা দিগন্ত অনলাইন

১১ অক্টোবর ২০১৭,বুধবার, ১৯:০৩


প্রিন্ট
মেসিকে নিয়ে যা বললেন কোচ

মেসিকে নিয়ে যা বললেন কোচ

শেষ পর্যন্ত আর্জেন্টিনাকে বিশ্বকাপ ফুটবলের টিকিট পাইয়ে দিলেন বিশ্বনন্দিত তারকা লিওনেল মেসি। 'বেপরোয়া' মেসির হ্যাটট্রিকে ভর করে আজ ইকুয়েডরকে ৩-১ গোলে হারিয়ে ২০১৮ বিশ্বকাপের চূড়ান্ত আসরে সরাসরি অংশগ্রহণ নিশ্চিত করলো দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। এদিন ব্রাজিলের কাছে হেরে ছিটকে পড়েছে দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের চ্যাম্পিয়ন চিলি।

আজ ভোরে কিটোতে অনুষ্ঠিত বছাইপর্বের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থায় ছিলো লিওনেল মেসির নেতৃত্বাধীন আর্জেন্টিনা। ‘ডু অর ডাই’ ম্যাচে সামান্য ছন্দপতনেই আগামী বছর রাশিয়া বিশ্বকাপের আসর থেকে ছিটকে দিতো দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের। তবে সেই পথে হাটেননি ৫ বারের ব্যালন ডিঅঁর জয়ী মেসি। হাটেনি তার দল আর্জেন্টিনা। একে একে তিনটি গোল করার মাধ্যমে মেসি হ্যাট্রিক পূর্ণ করলেন। নিশ্চিত করলেন বিশ্বকাপের চূড়ান্ত আসরে খেলা। ম্যাচ শুরুর ২০ মিনিটের মধ্যেই প্রতিপক্ষের জালে দুই দফা বল পাঠিয়ে দেশবাসীকে আস্বস্ত করেন বার্সেলোনা সুপার স্টার। এর আগে ম্যাচের প্রথম মিনিটে স্বাগতিক ইকুয়েডরের হয়ে রোমারিও ইবারার গোল শংকায় ফেলে দেয় সফরকারী আর্জেন্টিনাকে। বিরতির পর ৬২তম মিনিটে মেসি ফের গোল করে নিজের হ্যাট্রিক পূরণের পাশাপাশি দলকে নির্ভার করেন।

এখন ক্যারিয়ারের চতুর্থ বিশ্বকাপ খেলতে পারবেন ফুটবল নক্ষত্র মেসি। যেখানে দেশকে শিরোপা এনে দেয়ার জন্য আরেক দফা প্রচেষ্টা চালানোর সুযোগ পাবেন এই বিশ্বনন্দিত ফুটবল তারকা।
২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপের ফাইনালে জার্মানির কাছে পরাজিত হবার পর দুইবার দেশকে বড় শিরোপা এনে দেয়ার সুযোগ থেকে বঞ্চিত হয়েছেন মেসি। ২০১৫ ও ২০১৬ কোপা আমেরিকার ফাইনালে পৌঁছানোর পরও চিলির কাছে হেরে শিরোপা বঞ্চিত থাকতে হয়েছে আর্জেন্টিনাকে।
আগামী বছর রাশিয়ায় যখন বিশ্বকাপ ফুটবলের চূড়ান্ত পর্ব মাঠে গড়াবে তখন ৩১ বছর বয়সে পৌঁছে যাবেন মেসি। পরে হয়তো বিশ্বকাপ খেলার সুযোগ নাও পেতে পারেন তিনি। তাই মেসির প্রধান চেষ্টা থাকবে শেষবারের মতো বিশ্বকাপ শিরোপা ঘরে তোলা।


যেমনটি করেছেন তার আদর্শ কিংবদন্তী ফুটবলার দিয়েগো ম্যারাডোনা। বাছাইপর্বে তৃতীয়বারের মতো পরিবর্তিত হয়ে কোচের দায়িত্ব পাওয়া আর্জেন্টাইন কোচ হোর্হে সাম্পাওলি এখন অনেকটাই চাপমুক্ত। ম্যাচ-পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে তাই তিনি মেসির প্রশংসা করতে এতটুকু কার্পণ্যবোধ করেননি। বরং এই সফলতার জন্য মেসিকেই সাধুবাদ জানিয়েছেন। তিনি বলেন, মেসি আর্জেন্টিনার কাছে ঋণী থাকবে না, বরং দলকে বিশ্ব দরবারে পৌঁছে দেয়ায় আর্জেন্টিনা মেসির কাছে কৃতজ্ঞ থাকবে। ইতিহাসে তিনি সেরা খেলোয়াড় হিসেবে পরিচিত থাকবেন। এই জয় অবশ্য গোটা দলের। সবাই অসাধারণ খেলেছে।’

পরে সাংবাদিকদের মেসি বলেন, ‘আমরা সবাই আর্জেন্টিনাকে জেতানোর জন্য বেপরোয়া হয়ে উঠেছিলাম। ম্যাচটি নিয়ে অবশ্যই সবার মধ্যে শংকা কাজ করেছে। তবে আজ আমরা জানতাম কিভাবে খেলতে হবে।’ বাছাই পর্বের চাপ থেকে মুক্তি পাওয়ায় আর্জেন্টিনার খেলা এখন আরো উন্নতি করবে বলে মন্তব্য করেন মেসি। তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় এখন দলের মধ্যে বিশাল একটি পরিবর্তন ঘটবে। দলটি আরো ভাল অবস্থায় পৌঁছে যাবে।’


গ্রুপ পর্ব থেকে সরাসরি বিশ্বকাপের চূড়ান্ত আসরে খেলার লক্ষ্য নিয়েই আজ মাঠে নেমেছিল আর্জেন্টিনা। সে জন্য ২০০১ সালের পর কিটোতে প্রথম জয় নিশ্চিত করতে হবে। কিন্তু ম্যাচের প্রথম মিনিটেই রোমারিও ইবারার গোল শংকায় ফেলে দেয় সফরকারীদের (১-০)। তবে মেসির নেতৃত্বে ঘুরে দাঁড়াতে খুব একটা সময় নেয়নি আর্জেন্টিনা। সম্মিলিত প্রচেস্টার মাধ্যমে ১২তম মিনিটে সমতাসুচক গোল করে দলকে লড়াইয়ে ফেরান মেসি। বাঁ প্রান্ত থেকে এ্যাঞ্জেল ডি মারিয়ার পাঠানো বলটি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে দারুণ দক্ষতায় গোল করেন মেসি (১-১)। ৮ মিনিট পর মেসি নিজেই মধ্য মাঠ থেকে বল নিয়ে গোল করে এগিয়ে দেন আর্জেন্টিনাকে (২-১)। ৬২তম মিনিটে ফের ডি বক্সের লাইন থেকে অসাধারণ এক ক্রসে প্রতিপক্ষের জালে বল পাঠিয়ে হ্যাট্রিক পুর্ন করেন মেসি (৩-১)।

আর্জেন্টিনার উৎসবের রাতে কেঁদে মরেছে সাম্পাওলির সাবেক দল চিলি। সাও পাওলোতে ব্রাজিলের কাছে ৩-০ গোলে হেরে বিশ্বকাপে অংশগ্রহণের সুযোগ থেকে বঞ্চিত হয়েছে ২০১৫ ও ২০১৬ কোপা আমেরিকা চ্যাম্পিয়নরা। গোল ব্যবধানের কারণে তারা পয়েন্ট টেবিলের পঞ্চম স্থানটিও হারিয়েছে পেরুর কাছে। কারণ, লিমায় একই সময়ে অনুষ্ঠিত বাছাইপর্বের আরেক ম্যাচে কলম্বিয়ার সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করে তালিকার পঞ্চম অবস্থানটি দখলে রেখেছে পেরু। ফলে প্লে অফ ম্যাচে অংশগ্রহনের মাধ্যমে ১৯৮২ সালের পর প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ অক্ষুন্ন রাখল পেরু। পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয় স্থান নিয়ে বিশ্বকাপ নিশ্চিত করার পথে উরুগুয়ে এদিন ৪-২ গোলে হারিয়েছে বলিভিয়াকে। বাছাই পর্বের আরেক ম্যাচে ভেনিজুয়েলা ১-০ গোলে হারায় প্যারাগুয়েকে।


বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বে ফ্রান্স ও পর্তুগাল
বিশ্বকাপ ফুটবলের চূড়ান্ত পর্ব নিশ্চিত করেছে এ্যান্টনিও গ্রিজম্যানের ফ্রান্স ও ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর পর্তুগাল। মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে ফ্রান্স ২-১ গোলে বেলারুশকে এবং পর্তুগাল ২-০ গোলে সুইজারল্যান্ডকে হারিয়ে রাশিয়া বিশ্বকাপে নিজেদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করেছে।

ফ্রান্সের স্তাদে ডি ফ্রান্সে অনুষ্ঠিত ম্যাচে স্বাগতিক ফ্রান্সের হয়ে গোল করেছেন গ্রিজম্যান ও অলিভার গিরুদ। ম্যাচের ২৭তম মিনিটে গোল করে স্বাগতিক ফ্রান্সকে এগিয়ে দেন গ্রিজম্যান (১-০)। ছয় মিনিট পর স্বাগতিক দলকে দ্বিগুণ ব্যবধানে পৌঁছে দেন অলিভার গিরুদ (২-০)। তবে ম্যাচের ৪৪তম মিনিটে সফরকারী বেলারুশের হয়ে একমাত্র গোলটি পরিশোধ করেন এ্যানটন সারোকা।

লিসবনে অনুষ্ঠিত ম্যাচের ৪৪তম মিনিটে জোহান ডিজরুর আত্মঘাতী গোলে লীড পায় পর্তুগাল (১-০)। ম্যাচের ৫৭তম মিনিটে আন্দ্রে সিলভা লক্ষ্য ভেদ করলে দ্বিগুণ ব্যবধানে এগিয়ে যেতে সক্ষম হয় পর্তুগাল। এ জয়ের ফলে বি-গ্রুপের শীর্ষ দল হিসেবে রাশিয়া যাবার টিকিট নিশ্চিত করল পর্তুগাল।

একই রাতে অনুষ্ঠিত ইউরোপীয় অঞ্চলের বাছাইপর্বে হল্যান্ড ২-০ গোলে সুইডেনকে, হাঙ্গেরি ১-০ গোলে ফারাও আইল্যান্ডকে, লাটভিয়া ৪-০ গোলে এন্ডোরাকে, বেলজিয়াম ৪-০ গোলে সাইপ্রাসকে, বসনিয়া হার্জেগোভিনা ২-১ গোলে এস্তনিয়াকে এবং গ্রীস ৪-০ গোলে জিব্রালটারকে পরাজিত করে। এ ছাড়া ১-১ গোলে ড্র করেছে লুক্সেমবার্গ ও বুলগেরিয়া।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫