রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ১০ হাজার টয়লেট বানাবে ইউনিসেফ

নিজস্ব প্রতিবেদক

কক্সবাজার জেলায় রোহিঙ্গাদের মধ্যে রোগের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে এবং ক্রমবর্ধমান স্যানিটেশন সমস্যার দ্রুত সমাধান দিতে আজ রাজধানীতে ইউনিসেফ এবং বাংলাদেশে সরকারের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের মধ্যে একটি কর্ম পরিকল্পনা সই হয়েছে।

এর আওতায় শরণার্থী ও স্থানীয় জনগোষ্ঠীর মাঝে বড় আকারে পানিবাহিত রোগবালাই ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকি ঠেকাতে সম্ভাব্য দ্রুততম সময়ের মধ্যে রোহিঙ্গা ক্যাম্প ও আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে ১০ হাজার টয়লেট নির্মাণে অর্থায়ন করবে ইউনিসেফ।

বাংলাদেশ সচিবালয়ে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব মোহাম্মাদ হাবিবুল কবির চৌধুরী এবং ইউনিসেফের বাংলাদেশ প্রতিনিধি অ্যাডয়ার্ড বেগবেদার নিজ নিজ পক্ষে কর্ম পরিকল্পনাটি সই করেন।

১০ হাজার টয়লেট প্রায় দুই লাখ ৫০ হাজার মানুষের স্যানিটেশন সুবিধা দেবে। আর প্রতিটি টয়লেট নির্মাণে খরচ হবে আনুমানিক ১১ হাজার ৮০০ টাকা (প্রায় ১৪৭ মার্কিন ডলার) এবং ১০ হাজার টয়লেটের মোট নির্মাণ ব্যয় হবে ১.৪৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। বাংলাদেশ সেনাবাহিনী এই নির্মাণ কাজটি ছয় থেকে আট সপ্তাহের মধ্যে শেষ করবে।

ইউনিসেফ বাংলাদেশের প্রতিনিধি অ্যাডয়ার্ড বেগবেদার বলেন, 'ক্যাম্পগুলোর স্বাস্থ্যকেন্দ্র থেকে এরই মধ্যে মানুষ পানিবাহিত রোগব্যাধিতে আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। ফলে ক্যাম্পগুলোর বাসিন্দা ও স্থানীয় জনগোষ্ঠীর জন্য বর্তমানে রোগব্যাধির প্রাদুর্ভাবই প্রকৃত বিপদ। সেখানে স্যানিটেশনের ব্যাপ্তি বাড়াতে আমাদের অবিলম্বে পদক্ষেপ নিতে হবে।' এই প্রচেষ্টায় ইউনিসেফ মন্ত্রণালয়কে প্রয়োজনীয় অর্থনৈতিক সহায়তার পাশাপাশি কারিগরি সহযোগিতাও দেবে।

ইউনিসেফ এবং তার পানি, স্যানিটেশন ও হাইজিন (ওয়াশ) খাতের সহযোগীরা প্রতিটি ৫-রিং সম্বলিত টয়লেট নির্মাণের স্থান নির্বাচন করে দেবে। এই টয়লেটগুলো যাতে দূষণের উৎসে পরিণত না হয় সেজন্য নিয়মিত ক্লোরিন ছিটানোর মাধ্যমে এগুলোকে জীবণুমুক্ত করা হবে।

ইউনিসেফ জনস্বাস্থ্য ও প্রকৌশল বিভাগ (ডিপিএইচই) এবং ওয়াশ খাতের সহযোগীদের সাথে কক্সবাজার জেলার দু’টি উপজেলায় ক্যাম্পগুলোতে শরণার্থীদের জন্য দ্রুততম সময়ে টয়লেট নির্মাণের একটি প্রকল্পও বাস্তবায়ন করছে।
অন্যদিকে, স্বাস্থ্য খাতের অংশীদারদের সাথে ১০ অক্টোবর থেকে ইউনিসেফ কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফ উপজেলায় মুখে-খাওয়ানো কলেরা টিকা ক্যাম্পেইন শুরু করেছে। রোহিঙ্গা ও স্বাগতিক জনগোষ্ঠীকে কলেরার প্রকোপ থেকে রক্ষা করার জন্য ইউনিসেফ নয় লাখ টিকা সরবরাহ করেছে।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.