প্রশ্নপত্র ফাঁস চক্রের ডাঃ দিপু চুয়াডাঙ্গার
প্রশ্নপত্র ফাঁস চক্রের ডাঃ দিপু চুয়াডাঙ্গার

প্রশ্নপত্র ফাঁস চক্রের ডাঃ দিপু চুয়াডাঙ্গার

চুয়াডাঙ্গা সংবাদদাতা

এবছরের ১১ অক্টোবরে মেডিকেল কলেজে ভর্তি পরীক্ষায় ফাঁস হওয়া প্রশ্নপত্র সরবরাহ করা চক্রের ৪ সদস্যকে ঢাকা থেকে গ্রেফতার করে র‌্যাব-১০। এদের একজনের বাড়ি চুয়াডাঙ্গায়। তিনি চুয়াডাঙ্গা শহরের হকপাড়ার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী রয়েল পরিবহনের মালিক সালাউদ্দিনের ছেলে ডাঃ সামসুর রশীদ দিপু। তার এই আটকের ঘটনায় জেলাজুড়ে চলছে নানা জল্পনা কল্পনা। এই চক্রটি দীর্ঘদিন ধরে মেডিকেল কলেজে ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁসের জাল জালিয়াতি করে আসছিল।

৬ অক্টোবর সারা দেশে মেডিকেল কলেজে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এর আগের রাত থেকে ৮ আক্টোবর দুপুর পর্যন্ত র‌্যাব-১০ এর একটি দল লাগাতার অভিযান চালায়। এ সময় ভর্তি পরীক্ষার ফাঁসকৃত প্রশ্নপত্র বিক্রির সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ঢাকার বিভিন্ন এলাকা থেকে ৪ জনকে গ্রেফতার করে। এদের নিকট থেকে উদ্ধার করা হয় ৩ কোটি ৫০ লাখ ২৫ হাজার টাকা লেখা ৪৬টি এবং টাকার অংশ লেখা বাদে স্বাক্ষর দেয়া ৬টিসহ মোট ৫২টি চেকসহ বিভিন্ন উপকরণ।

আটককৃত ৪ জন হলেন চুয়াডাঙ্গার হক পাড়ার সালাউদ্দিনের ছেলে ডাঃ সামসুর রশীদ দিপু, দিনাজপুরের দেবিপুর রানীগঞ্জ এলাকার অপু হাওলাদারের স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন তিন্নি, ঘোড়াঘাট রামেশ্বরপুর গ্রামের জিয়াউর রহমানের ছেলে রাশিদুজ্জামান রিপন ও ফুলবাড়ি গৌরিপাড়া গ্রামের আব্দুল সালামের ছেলে ডাঃ সোলায়মান হোসেন মেহেদী।

ডাঃ সামসুর রশীদ দিপু আটকের পর থেকে চুয়াডাঙ্গার সর্বমহলে আলোচনা সমালোচনা শুরু হয়েছে। তাহলে কী দীর্ঘদিন থেকে এরা এই চক্রের সাথে জড়িত। ২০১৫-১৬ সেশনে তার ছোট বোন সালমা চট্রগ্রাম মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষায় যোগ্যতা অর্জন করে। পরে সে মাইগ্রেশন করে বর্তমানে রাজশাহী মেডিকেলে অধ্যয়নরত। সেই সময় তার থেকে অনেক মেধাবী শিক্ষার্থীরা মেডিকেল পরীক্ষায় যোগ্যতা অর্জন করেনি।

ডাঃ সামসুর রশীদ দিপুর পিতা সালাউদ্দিনের বাড়ি দামুড়হুদা উপজেলার গোপালপুর। কিন্তু তিনি চুয়াডাঙ্গা শহরের হকপাড়ায় আলিসান বাড়ি নির্মাণ করে বসবাস করছেন। পরিবহন ব্যবসার পাশাপাশি তিনি বিএডিসির তালিকাভুক্ত কৃষক ও ঠিকাদার। তিনি ৩ সন্তানের জনক। বড় ছেলে কানাডা প্রবাসী, ছোট ছেলে ডাঃ দিপু ও মেয়ে রাজশাহী মেডিকেলের ছাত্রী সালমা। গ্রেফতারকৃত ডাঃ দিপু ঢাকার শাহাবুদ্দিন মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে এমবিবিএস পাস করেছেন।

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.