ঢাকা, সোমবার,২০ নভেম্বর ২০১৭

ময়মনসিংহ

নান্দাইলে ছাত্রলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১০, পুলিশের গুলিবর্ষণ

ময়মনসিংহ অফিস ও নান্দাইল সংবাদদাতা

০৯ অক্টোবর ২০১৭,সোমবার, ১৭:৪৩


প্রিন্ট

ময়মনসিংহের নান্দাইলে পৌর ছাত্রলীগ ও কলেজ ছাত্রলীগ কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষে পুলিশ ও সাংবাদিকসহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে স্কুলগামী শিশুও রয়েছে।

সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় এ ঘটনা ঘটে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ চার রাউন্ড শর্টগানের গুলিবর্ষণ করেছে বলে জানিয়েছেন নান্দাইল মডেল থানার ওসি সরদার মো. ইউনুস আলী।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, নান্দাইল পৌরসভা শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মো. শফিকুল ইসলাম সালাম ও নান্দাইল শহীদস্মৃতি আদর্শ কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মো. মনজিল হাসান স্থানীয়ভাবে বিবদমান ছাত্রলীগের দু’পক্ষের নেতৃত্ব দেন। সোমবার নান্দাইল শহীদ স্মৃতি আদর্শ কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মিঠু ছাত্রীদের কমনরুমে যাওয়াকে কেন্দ্র করে পৌর ছাত্রলীগের সালাম গ্রুপের নেতা মোফাজ্জলের সাথে বাগ্বিতণ্ডা হয়। এর জেরে উভয়ই নিজ নিজ পক্ষের নেতাকর্মীদের মোবাইল ফোনে ডেকে জড়ো করে। এক পর্যায়ে কলেজের সামনে ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ সড়কে উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টাধাওয়া শুরু হয়। উভয়পক্ষ পরস্পরের প্রতি ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে এবং দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে আসে। পরিস্থিতি সামাল দিতে পুলিশ চার রাউ- শর্টগানের ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে। এসময় পুলিশের এসআই নুরুল হুদা, সাংবাদিক আলম ফরাজী, স্কুলগামী নান্দাইল প্রি-ক্যাডেটের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী তাইবা (৯), ছাত্রলীগ নেতা জাহিদুল ইসলাম খাঁন ও টিটু চন্দ্র দেসহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হন।

আহত ছয়জন প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। গুরুতর আহত ছাত্রলীগের এক নেতাকে নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি ও ছাত্রলীগকর্মী জাহিদুল ইসলাম খাঁনকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

সূত্রমতে, নান্দাইল শহীদ স্মৃতি কলেজে আগামী ২০ অক্টোবর নবীণবরণ অনুষ্ঠান ও কনসার্ট করার জন্য চাঁদা তোলা শুরু হয়। কিন্তু চাঁদা তুলতে বাঁধা দেয় পৌর ছাত্রলীগের কর্মীরা। বিষয়টি নিয়ে রোববার কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মিঠুর সাথে হাতাহাতি হয়। এছাড়াও দু’পক্ষের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের মধ্যে নান্দাইল শহীদস্মৃতি আদর্শ ডিগ্রি কলেজের কমনরুমে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে কয়েকদিন ধরে উত্তেজনা বিরাজ করছিল। সোমবার সংঘর্ষের মধ্যদিয়ে ওই উত্তেজনার বহিপ্রকাশ ঘটে।

নান্দাইল শহীদ স্মৃতি আদর্শ কলেজের উপাধ্যক্ষ বাদল কুমার দত্ত বলেন, কলেজের কমন রুমে বসাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়। এতে কলেজের এক ছাত্র আহত হয়েছে। কলেজের অনুষ্ঠানের নামে কাউকেই চাঁদা তোলার অনুমতি দেননি বলেও জানান তিনি।

নান্দাইল মডেল থানার ওসি মো. ইউনুস আলী জানান, কলেজের কমনরুমে বসাকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দু’পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়লে এক পুলিশ কর্মকর্তাসহ কয়েকজন আহত হয়েছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে চার রাউন্ড গুলিবর্ষণ করা হয় বলেও জানান তিনি।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫