জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী সিগমার গ্যাব্রিয়েল
জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী সিগমার গ্যাব্রিয়েল

ট্রাম্পের জন্য যে কারণে ‘পৃথবী বদলে যাওয়ার’ হুঁশিয়ারী দিল জার্মানি

নয়া দিগন্ত অনলাইন

জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী সিগমার গ্যাব্রিয়েল হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরানের পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গেলে ‘এই পৃথিবী বদলে যাবে।’

বার্লিনে একটি নির্বাচনী জনসভায় গ্যাব্রিয়েল বলেন, ‘এটি আমাদের জন্য একটি ভয়াবহ বিপদ কারণ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ইরানের পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গেলে পৃথিবী বদলে যাবে।’

কীভাবে পৃথিবী বদলে যাবে তা উল্লেখ না করলেও জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, ‘ছয় জাতিগোষ্ঠীর সঙ্গে ইরানের স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে ট্রাম্পের সম্ভাব্য সিদ্ধান্তের ব্যাপারে আমি গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। ট্রাম্পের এ সিদ্ধান্তের কারণে ইরান যদি পরমাণু অস্ত্র তৈরি করে বসে তাহলে কিন্তু তা কারো জন্যই ভালো ফল বয়ে আনবে না।’

মার্কিন প্রশাসন আইনের শাসনকে ‘শক্তিশালীর শাসনে’ রূপ দেয়ার যে চেষ্টা করছে তার তীব্র নিন্দা জানিয়ে সিগমার গ্যাব্রিয়েল বলেন, জার্মানি ইরানের ঐতিহাসিক পরমাণু চুক্তি বাস্তবায়নের সিদ্ধান্তে অটল থাকবে।

২০১৫ সালের জুলাই মাসে জাতিসংঘের পাঁচ স্থায়ী সদস্যদেশ আমেরিকা, ব্রিটেন, ফ্রান্স, রাশিয়া ও চীনের পাশাপাশি জার্মানিকে নিয়ে গঠিত ছয় জাতিগোষ্ঠীর সঙ্গে ঐতিহাসিক পরমাণু সমঝোতা সই করে ইরান। সমঝোতার প্রতি তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সমর্থন থাকলেও বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এটি থেকে বেরিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছেন।

১০ জন ট্রাম্প আবির্ভূত হলেও পরমাণু সমঝোতা বাতিল করতে পারবেন না: রুহানি

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি বলেছেন, ২০১৫ সালে যে পরমাণু সমঝোতা সই হয়েছে তার সুফল থেকে ইরানকে কেউ বঞ্চিত করতে পারবে না; কেউ এ সমঝোতা থেকে ফিরেও যেতে পারবে না।

ইরানের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর নতুন শিক্ষাবর্ষ উপলক্ষে তেহরান বিশ্ববিদ্যালয়ে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্ট রুহানি শনিবার এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘পরমাণু সমঝোতা থেকে আমরা যে সুবিধা পেয়েছি তা অপরিবর্তনীয়। মি. ট্রাম্প কিংবা অন্য কেউ তা পাল্টে দিতে পারবেন না।’

প্রেসিডেন্ট রুহানি জোর দিয়ে বলেন, ‘যদি ১০ জন ট্রাম্প বিশ্বে আবির্ভূত হন এবং পরমাণু সমঝোতা বাতিল করার চেষ্টা করেন তাহলেও এসব সুবিধা পরিবর্তন করা যাবে না।’

ড. রুহানি আরো বলেন, ‘পরমাণু আলোচনার সময় ইরান তার রাজনৈতিক শক্তি দেখিয়েছে এবং ইরান প্রমাণ করে দিয়েছে যে, তার কূটনীতিকরা বিশ্ব শক্তিগুলোর সঙ্গে আলোচনা করতে যথেষ্ট সক্ষম। আমরা শুধু যুদ্ধক্ষেত্রে শক্তিশালী নই, আমরা শান্তির ক্ষেত্রেও শক্তিশালী দেশ।’

 

সম্পাদকঃ আলমগীর মহিউদ্দিন,
প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ
১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

Copyright 2015. All rights reserved.