ঢাকা, সোমবার,১১ ডিসেম্বর ২০১৭

টেলিভিশন

কুরআন পড়া শুরু করেছে মীর সাব্বিরের ছেলে

নয়া দিগন্ত অনলাইন

০৭ অক্টোবর ২০১৭,শনিবার, ২০:০৮ | আপডেট: ০৮ অক্টোবর ২০১৭,রবিবার, ১৮:২০


প্রিন্ট
ছেলের সাথে মীর সাব্বির

ছেলের সাথে মীর সাব্বির

কুরআন পড়া শুরু করেছে জনপ্রিয় অভিনেতা মীর সাব্বিরের ছেলে ফারশাদ। ফেসবুকে এ তথ্য জানিয়ে সবার দোয়া চেয়েছেন মীর সাব্বির। সাথে কয়েকটি ছবিও পোস্ট করেছেন তিনি।

শুক্রবার ফেসবুকে এক পোস্টে তিনি লিখেছেন- ‘ফারশাদ আজ কোরআন শরীফ পড়া শুরু করল। আলহামদুলিল্লাহ। সবার দোয়া নিয়ে এগিয়ে যাক আমার ফারশাদ’।

উল্লেখ্য অভিনেত্রী চুমকিকে ২০০৩ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি বিয়ে করেন মীর সাব্বির। এখন তাদের সংসারে দু' সন্তান। একজনের নাম ফারশাদ। আরেজকজন সানদিদ। ফারশাদের জন্ম ২০০৬ সালের ১২ নভেম্বর। বর্তমানে ফারশাদের বয়স দশ। গতকাল শুক্রবার ফারশাদ কোরআন পড়া শুরু করেছে। আরেক সন্তান সানদিদের জন্ম ২০১৩ সালে।

অভিনেতা মীর সাব্বির না পরিচালক মীর সাব্বির?
কেউ বলেন অভিনেতা মীর সাব্বির অনেক শক্তিশালী। আবার কেউ বলেন অভিনেতা মীর সাব্বিরের চেয়ে পরিচালক মীর সাব্বির অনেক মেধাবী। তবে মীর সাব্বির জানালেন তিনি দুই মাধ্যমের কাজেই সমান মনোযোগী। এখন অভিনয় ও পরিচালনা সমান তালেই করছেন এই অভিনেতা ও পরিচালক। বিশেষ করে আরটিভিতে প্রচারিত তার পরিচালিত ‘নোয়াশাল’ ধারাবাহিকটি দর্শক মহলে তাকে ব্যাপক আলোচিত করেছে। গেলো ঈদের নাটক নির্মাণ করেও নিজের সুনাম অক্ষুণ্ন রেখেছেন মীর সাব্বির। তার নির্দেশনায় দর্শক তিনটি নাটক উপভোগ করেছেন।
এগুলো হচ্ছে- ‘বাপ বেটা দৌড়ের উপর’, ‘পথিক বাবু’ ও ‘কাইল্যা চোরা’। আগামী ঈদুল আযহার অনুষ্ঠানমালায় প্রচারের জন্য মীর সাব্বির এ তিনটি নাটকেরই সিক্যুয়াল নির্মাণ করবেন। এর বাইরে আরও একটি নাটক নির্মাণে দেখা যাবে তাকে।

গেল ঈদে গাজী টিভিতে প্রচার হয় মীর সাব্বির নির্দেশিত ‘বাপ বেটা দৌড়ের উপর’, দীপ্ত টিভিতে ‘পথিক বাবু’ এবং আরটিভিতে ‘কাইল্যা চোরা’। দর্শকপ্রিয়তাকে বিবেচনা করেই প্রতিটি চ্যানেল থেকে নাটকগুলোর সিক্যুয়াল নির্মাণের অনুরোধ করা হয় মীর সাব্বিরকে।

তিনি বলেন, ‘একজন অভিনেতা হিসেবে আমি যেমন সিরিয়াসলি অভিনয় করি এবং অভিনয় আমার নেশা এবং পেশা। সেই ধারাবাহিকতায় নির্মাণও আমার নেশা। ভীষণ উপভোগ করি আমি নাটক নির্মাণ। ফলে জীবনে হয়তো অন্যকিছু হবার সুযোগ ছিলো আমার। কিন্তু আমি অভিনয়কে ভালোবেসে অভিনেতা হয়েছি। আর এর পাশাপাশি আমি নাটক নির্মাণও করি। এখানেই আমি আমার ভালোলাগা খুঁজে পাই। দর্শককে বিনোদন দিতে আমার ভীষণ ভালো লাগে। শুধু তাই নয়, নাটকের মাধ্যমে সমাজের মানুষকে সচেতনও করা যায় বিভিন্ন ধরনের মেসেজের মাধ্যমে।’

প্রসঙ্গত, মীর সাব্বির নির্দেশিত প্রথম নাটক ছিলো ‘বরিশাল বনাম নোয়াখালী’। এটি তাকে জনপ্রিয়তা এনে দেয়। এর পর থেকেই নির্মাণের প্রতি ভালোবাসা বেড়ে যায় তার। বিশেষ বিশেষ দিবসে তিনি খণ্ড নাটক বা টেলিফিল্ম নির্মাণ করেন। বর্তমানে মীর সাব্বিরের নির্দেশনায় আরটিভিতে প্রচার হচ্ছে দর্শকপ্রিয় ধারাবাহিক ‘নোয়াশাল’।

এদিকে নির্মাতা হিসেবে তিনি জনপ্রিয় সাতজন অভিনয়শিল্পীদের দিয়ে সাতটি নাটক নির্মাণের আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। হয়তো ভবিষ্যতে তার প্রযোজনা সংস্থা থেকে সাব্বির এই কাজটি করবেন। তবে এর আগে যদি কোনো চ্যানেল এই চ্যালেঞ্জটি গ্রহণ করেন, তা সাধুবাদ জানাবেন বলেও অভিমত প্রকাশ করেছেন মীর সাব্বির।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫