ঢাকা, বৃহস্পতিবার,১৯ অক্টোবর ২০১৭

অপরাধ

রাজধানীতে স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন

নিজস্ব প্রতিবেদক

০৬ অক্টোবর ২০১৭,শুক্রবার, ১৮:৩৮


প্রিন্ট

রাজধানীর মধ্য বাড্ডায় মাদকের টাকা না পেয়ে স্ত্রী সুমা আক্তারকে (২৮) গলাকেটে হত্যা করেছে স্বামী।

আজ শুক্রবার দুপুরে বাড্ডা লুৎফুন টাওয়ার সংলগ্ন ল-৭১ নম্বর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় ঘাতক স্বামী মনির হোসেনও আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছেন। তিনি বর্তমানে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পুলিশি পাহারায় চিকিৎসাধীন।

মনিরের চাচাতো ভাই সিরাজুল ইসলাম বলেন, শুক্রবারের জুমার নামাজ শেষ করে বাসায় যেতে মনির ও তার স্ত্রীর চিৎকার চেচামেচি শুনতে পাই। দ্রুত তাদের বাসায় গিয়ে গলা কাটা রক্তাক্ত অবস্থায় সুমাকে এবং বাম হাতের আঙুল ও সামান্য গলা কাটা অবস্থায় মনিরকে পড়ে থাকতে দেখি। এ সময় তাদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যালে নিলে চিকিৎসক সুমাকে মৃত ঘোষণা করেন। ধারণা করা হচ্ছে, মনির নিজেই তার স্ত্রীর গলা কেটে হত্যা করেছে। ধস্তাধস্তির সময় সে নিজেও আহত হয়েছে।

নিহতের বড় বোন রেহেনা আক্তার জানান, সুমা-মনির দম্পত্তির মারিয়া নামে ১২ বছরের এক কন্যা সন্তান রয়েছে। মনির কিছুই করত না। কিন্তু নিয়মিত ফেন্সিডিল খেত। প্রতিদিন মাদকের জন্য তার তিন হাজার টাকা লাগতো। মাদক সেবন করায় এবং মাদকের টাকার জন্য প্রায়ই সে সুমাকে মারধর করত। নেশার টাকার জন্য সুমার ও তাদের অনেক স্বর্ণালংকার সে বন্ধকও রেখেছে। তাছাড়া সে আরেকটি বিয়ে করার জন্য পায়তারা করছিল। রেহেনার অভিযোগ, নেশার টাকার জন্যই সুমাকে গলা কেটে হত্যা করেছে মনির।

বাড্ডা থানার ওসি কাজী ওয়াজেদ আলী মনির তার স্ত্রীকে গলাকেটে হত্যা করে নিজে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। এতে সেও জখম হয়েছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তার শ্বাসনালী কেটে গেছে। পরিবার বলছে, মাদকের টাকা ও পারিবারিক কলহে ঘটনাটি ঘটেছে। নিহতের পরিবার মামলা করলে মনিরকে গ্রেফতার দেখানো হবে এবং বিষয়টি তদন্ত করা হবে।

তিনি জানান, মনিরকে মেডিক্যালে ভর্তি থাকা অবস্থায় আটক করা হয়েছে। পুলিশ পাহারায় তার চিকিৎসা চলছে বলে জানান ওসি।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫