ঢাকা, সোমবার,২০ নভেম্বর ২০১৭

অনলাইন জগৎ

স্বামী-স্ত্রীর অভিনব প্রতারণা : অ্যামাজানের ক্ষতি ১২ ডলার

নযা দিগন্ত অনলাইন

০৫ অক্টোবর ২০১৭,বৃহস্পতিবার, ১৬:০৯


প্রিন্ট
স্বামী-স্ত্রীর অভিনব প্রতারণা : অ্যামাজানের ক্ষতি ১২ ডলার

স্বামী-স্ত্রীর অভিনব প্রতারণা : অ্যামাজানের ক্ষতি ১২ ডলার

বিশ্বখ্যাত অনলাইন শপিং প্রতিষ্ঠান অ্যামাজন থেকে ১২ লাখ ডলারের বেশি মূল্যের পণ্য চুরি করেছে বলে স্বীকার করেছে আমেরিকার এক দম্পতি ।
তারা যে পণ্যগুলো অর্ডার করেছিলো সেগুলো ভাঙ্গা কিংবা নষ্ট ছিল বলে বারবার দাবি করে এই কাজ করেছেন তারা।
ইন্ডিয়ানা রাজ্যের বাসিন্দা এরিন জোসেফ ফিন্যান (৩৮) এবং লিয়া জেনেত্তি ফিন্যান (৩৭) দম্পতি প্রতারণা এবং অর্থ পাচারের অপরাধ স্বীকার করেছে।
এ দম্পতির ৫ লাখ মার্কিন ডলার জরিমানা এবং সর্বোচ্চ ২০ বছরের কারাদণ্ড হতে পারে।
আগামি ৯ নভেম্বর এ রায় ঘোষনা করা হবে।

স্থানীয় একটি সংবাদপত্র বলছে, ফিন্যান দম্পতি অনলাইনে শত শত ভুয়া অ্যাকাউন্ট ব্যবহারের মাধ্যমে অ্যামাজান থেকে অনলাইনে পণ্য ক্রয়ের অর্ডার দিয়েছে।
এগুলোর মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক সামগ্রি যেমন স্যামসাং স্মার্ট ওয়াচ, গোপ্রো ক্যামেরা, এক্সবক্স ভিডিও গেম কনসোল ইত্যাদি।

অর্ডার করা পন্যগুলো হাতে পাওয়ার পর তারা অ্যামাজনের কাস্টমার সার্ভিস বিভাগে যোগাযোগ করে জানায় যে পাঠানো গেজেটগুলো ভাঙ্গা বা কাজ করছে না।

অ্যামাজানের নীতি অনুযায়ী তারপর ঐ পণ্যের পরিবর্তে আরেকটি বিনামূল্যে পাঠিয়ে দেয়।
তারপর এই পণ্যগুলো ফিন্যান দম্পতি আরেকজনের কাছে বিক্রি করে, যিনি আবার এই পণ্যগুলো নিউইয়র্কের এক বেনামি প্রতিষ্ঠানের কাছে বিক্রি করে।

অতঃপর মার্কিন ডাক বিভাগের অনুসন্ধান বিভাগ,ইন্ডিয়ানা রাজ্য পুলিশ এবং অভ্যন্তরীণ রাজস্ব বিভাগের যৌথ তদন্তে এই দম্পতির জালিয়াতি ধরা পড়ে। এরপর সে দম্পতি তাদের সহযোগীকে গ্রেফতার করা হয়।

বিবাহবার্ষিকীতে স্ত্রীকে চমক ওবামার
একসঙ্গে ২৫ বছর কাটিয়ে ফেলেছেন। ব্যস্ততার জেরে এত দিন সময় দিতে পারেননি। তবে এখন তিনি ঝাড়া হাত পা। স্ত্রী মিশেলকে তাই পুষিয়ে দিলেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। মঙ্গলবার তাদের বিবাহবার্ষিকী ছিল। ওই দিনই পেনসিলভ্যানিয়ায় নারী অধিকার-সংক্রান্ত একটি সম্মেলনে বক্তৃতা দিচ্ছিলেন সাবেক ফার্স্টলেডি। সেখানে টিভি স্ক্রিনে আচমকাই আবির্ভূত হন বারাক ওবামা।
দু’‌মিনিটের একটি ভিডিওয় স্ত্রীর ভূয়সী প্রশংসা করলেন ওবামা। বললেন, ‘‌জানি তুমি খুব ব্যস্ত। গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে আলোচনা করতে গেছ। কিন্তু একটু বাধা দিতেই হলো। আমাদের বিবাহ ২৫ বছর পূর্ণ হলো যে!‌ এই ২৫ বছরে তুমি সবসময় আমার পাশে থেকেছ। অসম্ভব ধৈর্য তোমার। তুমিই আমার সবচেয়ে কাছের বন্ধু। তুমি এমন মানুষ, যে আমাকে হাসায়, সঠিক পথ দেখায়। আমাদের দুই কন্যাই নয়, সমগ্র দেশবাসীর কাছে তুমি উদাহরণ।’‌

সকলের সামনে নিজের প্রশংসা শুনে অভিভূত হয়ে পড়েন মিশেল। নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে স্বামীকে পাল্টা শুভেচ্ছা জানান তিনি। বিয়ের সাদা কালো একটি ছবি পোস্ট করে লেখেন, ‘‌বিবাহবার্ষিকীর শুভেচ্ছা তোমাকে। এক শতাব্দির সিকিভাগ একসঙ্গে কাটিয়ে ফেলেছি আমরা। আজও তুমিই আমার প্রিযবন্ধু। একজন অসাধারণ পুরুষ। আমি তোমাকে ভালোবাসি।’‌

শিকাগোর একটি আইনি সংস্থায় কর্মরত অবস্থায় ১৯৮৯ সালে মিশেল রবিনসন ও বারাক ওবামার সাক্ষাৎ। তার দু’‌বছর পর ১৯৯২ সালে বিয়ে করেন তারা।

 

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫