ঢাকা, সোমবার,২০ নভেম্বর ২০১৭

বিবিধ

হারিয়ে যাচ্ছে লাটিম খেলা

নয়া দিগন্ত অনলাইন

২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭,শুক্রবার, ১৯:৫৪


প্রিন্ট
হারিয়ে যাচ্ছে লাটিম খেলা

হারিয়ে যাচ্ছে লাটিম খেলা

গ্রাম-বাংলা থেকেও লাটিম খেলা প্রায় উঠে গেছে। তবে এক সময় লাটিম খেলার প্রচলন ছিল বেশি। লাটিম সাধারণত কাঠমিস্ত্রিরা বানায়। এদের কাছ থেকে ছেলেরা এগুলো কিনে আনে। লাটিম ঘোরানোতে চিকন দড়ি বা ফিতা ব্যবহার করা হয়। একে কোন কোন অঞ্চলে লেতি বলে।

লাটিম খেলার শুরুতে সমতল ভূমিতে একটি বৃত্ত আঁকা হয়। এই বৃত্ত আঁকারও একটা নিয়ম আছে। প্রথমে একটি লাটিমের সঙ্গে লেপতির এক মাথা বাধা হয়। এরপর একজন লেপতির অপর মাথা মাটিতে এক স্থানে চেপে ধরে। আরেকজন খেলোয়াড় লেপতি টানটান করে লাটিমটি মাটি স্পর্শ করে ঘুরিয়ে আনলেই লাটিমের সোঁচালো আলে দাগ বসে যায়। এতেই বৃত্ত তৈরি হয়। এরপর শুরু হয় খেলা। একেকজন খেলোয়াড় লাটিম বৃত্তের মধ্যে ঘোরানো শুরু করে। এরপর যার লাটিমটি ঘুরতে ঘুরতে বৃত্ত থেকে বেরিয়ে সবচেয়ে বেশি দূরে যায় সে প্রথম, তারপর যারটি থাকে সে দ্বিতীয় হয়। এমনভাবে তৃতীয়, চতুর্থও নির্ধারণ হয়। এরপর চতুর্থ অবস্থানের খেলোয়াড় বৃত্তে লাটিম ঘুরিয়ে দেয়, তৃতীয় অবস্থানের জন তার লাটিম দিয়ে ঘোরানো লাটিমকে আঘাত করে বৃত্তের বাইরে আনতে পারলে লাটিমটি তার হয়ে যায়। এরপরে তৃতীয় অবস্থানের খেলোয়াড় তার লাটিম ঘুরালে, দ্বিতীয় অবস্থানের খেলোয়াড় একইভাবে ওই লাটিমকে তার লাটিম দিয়ে আঘাত করে বৃত্তের বাইরে নিতে পারলে সেটির মালিক হয়। এরপর দ্বিতীয় খেলোয়াড়ের লাটিমকে প্রথম অবস্থানের খেলোয়াড় আঘাত করে বাইরে নিতে পারলে সেটির মালিক সে হয়। এভাবে চলতে থাকে খেলা। তবে এ খেলায় লাটিমের আঘাতে অন্যের লাটিম ভেঙেও যায় অনেক সময়। আর সেটা করতে পারলে খেলোয়াড়রা অনেক বাহবা পায়।

এজন্য লাটিমের আল সোঁচালো করতে পছন্দ করে খেলোয়াড়রা। এছাড়াও কে কতক্ষণ সময় ধরে লাটিম ঘোরাতে পারে সে প্রতিযোগিতাও হয় শিশু-কিশোরদের মধ্যে। গ্রামের অনেক শিশু-কিশোরই মাটিতে ঘুরানো লাটিম অদ্ভুত কৌশলে হাতের তালুতে তুলে নিলেও তা ঘুরতে থাকে। হাতের তালুতে লাটিম ঘোরানোর প্রতিযোগিতাই কখনও কখনও মেতে ওঠে গ্রামের ছেলেরা।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫