ঢাকা, বুধবার,১৩ ডিসেম্বর ২০১৭

উপমহাদেশ

আরব সাগরে পাকিস্তানের রণতরী-বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ

এক্সপ্রেস ট্রিবিউন

২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭,শনিবার, ১৪:৪৩


প্রিন্ট
বিএনপি পতাকা

বিএনপি পতাকা

পাকিস্তান নৌবাহিনী শনিবার উত্তর আরব সাগরে আকাশ থেকে সাগরে রণতরীবিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে।


পাকিস্তান নৌবাহিনীর মুখপাত্র জানিয়েছেন, সি কিং হেলিকপ্টার উন্মুক্ত সাগরে ক্ষেপণাস্ত্রটি নিক্ষেপ করে। সেটি সফলভাবে টার্গেটে আঘাত করে।
পাকিস্তান নৌবাহিনীর চিফ অব স্টাফ মোহাম্মদ জাকাউল্লাহ ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ অনুষ্ঠান প্রত্যক্ষ করেন। তিনি বলেন, সফলভাবে এই পরীক্ষা প্রমাণ করে, পাকিস্তান নৌবাহিনী প্রস্তুত এবং পেশাগতভাবে দক্ষ।

নতুন ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে ইরান
নয়া দিগন্ত অনলাইন

নবনির্মিত ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ‘খোররামশাহর’-এর সফল পরীক্ষা চালিয়েছে ইরান। রাজধানী তেহরানে শুক্রবার এক সামরিক কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে এই ক্ষেপণাস্ত্র উন্মোচন করার কয়েক ঘণ্টা পর এটি পরীক্ষার ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করে ইরান।

ইরানের জাতীয় সম্প্রচার সংস্থা আইআরআইবি’তে প্রকাশি ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, একটি অজ্ঞাত স্থান থেকে ক্ষেপণাস্ত্রটি আকাশে নিক্ষেপ করা হচ্ছে। এটির পাল্লা দুই হাজার কিলোমিটার বলে জানানো হয়েছে।

ভিডিওতে চারটি আলাদা অ্যাঙ্গেল থেকে টেলিমেট্রি ক্যামেরার মাধ্যমে ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার আলাদা আলাদা ফুটেজ ধারণ করা হয়। ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার পরিচালক জানিয়েছেন, ক্ষেপণাস্ত্র থেকে ওয়ারহেড বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ার মুহূর্তটিও ভিডিওতে ধারণ করা হয়েছে।

এর আগে শুক্রবার সকালে প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি এবং উচ্চপদস্থ সামরিক কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে ক্ষেপণাস্ত্রটি উন্মোচন করা হয়। ‘খোররামশাহর’ হচ্ছে ইরানের  ২,০০০ পাল্লার তৃতীয় ক্ষেপণাস্ত্র। কয়েক বছর আগে একই পাল্লার  ‘কাদর-৫’ এবং ‘সেজ্জিল’ ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালানো হয়।

ইরানের ইসলামি বিপ্লবি গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি’র অ্যারোস্পেস ডিভিশনের কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আমির আলী হাজিযাদেহ বলেছেন, আগের দুই ক্ষেপণাস্ত্রের চেয়ে এটি আকারে ছোট এবং বেশি কার্যকর।

ইরান বহুবার বলেছে, দেশটির সামরিক সক্ষমতা সম্পূর্ণ আত্মরক্ষামূলক এবং অন্য কোনো দেশকে হুমকি দেয়ার কোনো লক্ষ্য তেহরানের নেই। একইসাথে ইরান সতর্ক করে দিয়ে একথাও বলে রেখেছে, আক্রান্ত হলে আগ্রাসী শক্তিকে সমুচিৎ জবাব দেয়ার জন্যও তেহরান প্রস্তুত রয়েছে।

'ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি আরো শক্তিশালী করবে ইরান'

ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি দেশটির ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি শক্তিশালী করার ঘোষণা দিয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্র ও ফ্রান্সের তীব্র সমালোচনার মুখে গতকাল প্রেসিডেন্ট রুহানি এ কথা বলেন।

ইরাক-ইরান ১৯৮০-৮৮ যুদ্ধের বার্ষিকী পালন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে রুহানি বলেন, ‘কেউ পছন্দ করুক আর না করুক ইরান সামরিক শক্তি বৃদ্ধি করবে। যেটা দেশের প্রতিরক্ষার জন্য জরুরি।’

তিনি বলেন, ‘ইরান শুধুমাত্র ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি শক্তিশালী করবে না, পাশাপাশি বিমান, সমুদ্র ও সেনা বাহিনীকে শক্তিশালী হিসেবে গড়ে তোলা হবে। যখন দেশের প্রতিরক্ষার বিষয় নিয়ে ভাবনা-চিন্তার সময় আসবে, তখন আমরা অন্যদের অনুমতির অপেক্ষা করবো না।’

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫