ঢাকা, শুক্রবার,২৪ নভেম্বর ২০১৭

রাজনীতি

বিচার বিভাগকে সংসদের প্রতিপক্ষ করেছে সরকার : মির্জা ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক

১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭,বৃহস্পতিবার, ২০:২৪


প্রিন্ট

গণতন্ত্রকে ধবংস করতে সরকার বিচার বিভাগকে সংসদের প্রতিপক্ষ হিসেবে দাঁড় করছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, আজকে এই সরকার সুপরিকল্পিতভাবে রাষ্ট্রের স্তম্ভগুলোকে ভেঙে ফেলতে চায়। তারা বিচার বিভাগকে পুরোপুরিভাবে পার্লামেন্টের মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দিয়েছে। পার্লামেন্টে দাঁড়িয়ে তথাকথিত সংসদ সদস্য ও মন্ত্রীরা বিচার বিভাগের বিরুদ্ধে বিষোদগার করছে এটা পৃথিবীর কোথাও নেই। উদ্দেশ্য একটাই- বাংলাদেশের গণতন্ত্রকে ধ্বংস করে রাষ্ট্রকে দুর্বল করে ফেলা যাতে করে আমরা নিজের পায়ে নিজেরা দাঁড়াতে না পারি।

রাজধানীর গুলিস্তানে মহানগর নাট্যমঞ্চের কাজী বশির মিলনায়তনে দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার দশম কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে এ আলোচনা সভার আয়োজন করে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি।

মহানগর দক্ষিণের সভাপতি হাবিব উন নবী খান সোহেলের সভাপতিত্বে ও দফতর সম্পাদক সাইদুর রহমান মিন্টুর পরিচালনায় আলোচনা সভায় বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, যুগ্মমহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরফত আলী সপু, ঢাকা দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, সিনিয়র যুগ্মসম্পাদক হাবিবুর রশিদ হাবিবসহ দক্ষিণের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

এদিকে আলোচনার শেষ মুহূর্তে সভাপতি হাবিব উন নবী খান সোহেল বক্তব্য দেয়ার সময় চেয়ারে বসা নিয়ে মহানগরীর নেতাকর্মীদের দুই পক্ষের মধ্যে চেয়ার ছোঁড়াছুঁড়ি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। পরে দলের নেতৃবৃন্দের হস্তক্ষেপে তা নিয়ন্ত্রণে আসে।

‘ক্ষমতাসীনদের সম্পদের হিসাব তদন্ত হবে’ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও তার পরিবারের সদস্যদের সম্পদ নিয়ে জাতীয় সংসদে বুধবার প্রধানমন্ত্রীর দেয়া বক্তব্যে পরিপ্রেক্ষিতে ক্ষমতাসীনদের সম্পদেরও হিসাব তদন্ত করার হুঁশিয়ারি দিয়ে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আপনাদের বিরুদ্ধেও তদন্ত করার জন্য সবকিছু তৈরি হচ্ছে। এ আট বছরে যে লুটপাট করেছেন, যে সম্পদের পাহাড় গড়ে চলেছেন, আমেরিকা, কানাডা, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়াতে যে সম্পদ পাচার করেছে, তার সব হিসাব রাখা হচ্ছে এখন। বেশিদিন নাই দেরি এগুলোর জবাব আপনাদের দিতে হবে। কুইক রেন্টাল পাওয়ার প্ল্যান্টে, শেয়ার বাজার থেকে কত টাকা লুট করেছেন, ব্যাংক থেকে কত টাকা লুট করেছেন, মেগা প্রকল্প উড়াল সেতু, মেট্রো রেল, এলিভেটেড এক্সপ্রেস ওয়ে এসব খাতে কত টাকা লুট করেছেন। আর পদ্মাসেতু থেকে কত টাকা। এতো দুর্নীতি করে আপনারা অন্যের দিকে আঙ্গুল তোলেন?

বিএনপি মহাসচিব বলেন, প্রধানমন্ত্রী সংসদে বলেছেন দেশনেত্রী ও জিয়া পরিবারের সম্পদের তদন্ত করা হচ্ছে। কতদিন ধরে তদন্ত করবেন? ১০ বছর ধরে চালাচ্ছেন কিচ্ছু কোথাও খুঁজে পাননি সারা বিশ্বে।

কক্সবাজারের উখিয়াতে রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রাণ নিয়ে যেতে বিএনপির ত্রাণ টিমকে বাধা প্রদানের ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তার কাছ থেকে আমি রাজনৈতিক বক্তব্য আশা করি সবসময়। তিনি কী বলছেন? মিথ্যাচার করছেন।

তিনি বলেছেন, আমরা না কি লোক দেখানোর জন্য ত্রাণ নিয়ে গেছি। আমরা এ কথাগুলো কখনোই তার কাছ থেকে প্রত্যাশা করি না।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫