ঢাকা, শুক্রবার,২৪ নভেম্বর ২০১৭

ঢাকা

বালিয়াকান্দিতে ছাত্রলীগের নেতার বিরুদ্ধে ইউপি সদস্যকে মারপিটের অভিযোগ

বালিয়াকান্দি (রাজবাড়ী) সংবাদদাতা

১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭,বৃহস্পতিবার, ১৪:৫৪


প্রিন্ট

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলায় ঈদ ও পূজা উপলক্ষে সার্টানো পোস্টারে স্থানীয় সাংসদের ছবি না থাকায় এক ইউপি সদস্যকে মারপিট করার অভিযোগ উঠেছে। বুধবার দুপুর দুইটার দিকে বহরপুর ইউনিয়ন পরিষদের পাশে তেঁতুলিয়া বাজার এলাকায় এই ঘটনাটি ঘটে।

মারপিটের শিকার হয়েছেন, বহরপুর ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মুরাদ বিশ^াস। মারপিট করেছে বহরপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি ও জেলা ছাত্রলীগের সদস্য জাহিদুল ইসলাম।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, ইউপি সদস্য মুরাদ হোসেন ঈদ ও পূজা উপলক্ষে ইউনিয়নবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে একটি পোস্টার সার্টিয়েছেন। এতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, সজীব ওয়াজেদ জয়, বহরপুর ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল করিম এবং ইউপি সদস্য নিজের ছবি ব্যবহার করেন।
মুরাদ বিশ^াস জানান, আমি ইউনিয়ন পরিষদ থেকে বের হওয়ার পর ছাত্রলীগের নেতা জাহিদ কথা আছে বলে দাঁড়াতে বলে। আমি দাঁড়ানোর পর ২৫-৩০ জন ঘিরে ধরে। এক পর্যায়ে তাঁরা আমাকে কিল-ঘুষি মারতে থাকে। আমি বিষয়টি ইউপি চেয়ারম্যান রেজাউল করিম, উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কালাম আজাদ ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফকীর আব্দুল জব্বার এবং রাজবাড়ী-২ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ জিল্লুল হাকিমকে জানিয়েছি। সংসদ সদস্য শনিবার এসে আপোষ করে দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন।
কিল-ঘুষি মারার কথা অস্বীকার করে ছাত্রলীগের নেতা জাহিদুল ইসলাম জানান, ওই মেম্বার বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে যোগ দিয়েছে। তিনি ঈদ ও পূজা উপলক্ষে এলাকাবাসীকে ইউনিয়নের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা পোস্টার টাঙিয়েছেন। কিন্তু সেখানে জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও এমপি মহোদয়ের ছবি দেননি। এমপি মহোদয়ের ছবি না দেওয়ার কারন জানতে চাই। এসময় ইউপি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকসহ আরো নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। কিন্তু মুরাদ মেম্বার উত্তর না দিয়ে খারাপ ব্যবহার করে। এতে করে তাঁর সঙ্গে ধাক্কাধাক্কি হয়। কোন প্রকার মারপিটের ঘটনা ঘটেনি। বিষয়টি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে অপপ্রচার চালাচ্ছেন।
বহরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রেজাউল করিম জানান, জাহিদেরা একটি খাল চেয়ে ছিলো। কিন্তু সেখান থেকে সাধারণ মানুষ মাছ ধরে। খাল কেন্দ্র করে মেম্বারের সঙ্গে জাহিদের ঝামেলা ছিলো। তাঁরা আমার কাছেও এসে ছিলো। আজ পোস্টারে এমপি মহোদয়ের ছবি না দেওয়াকে কেন্দ্র অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটিয়েছে।

 

 

Logo

সম্পাদক : আলমগীর মহিউদ্দিন

প্রকাশক : শামসুল হুদা, এফসিএ

১ আর. কে মিশন রোড, (মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন), ঢাকা-১২০৩।
ফোন: ৫৭১৬৫২৬১-৯

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | নয়া দিগন্ত ২০১৫